This Article is From Jul 18, 2019

“কাটমানি” ইস্যুতে রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ বিজেপির

নবান্নের সামনে বিক্ষোভ পালন কর্মলূচী পালন করতে গেলে তাঁদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

“কাটমানি” ইস্যুতে রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ বিজেপির

কর্মসূচী শান্তিপূর্ণ ছিল বলে জানান দিলীপ ঘোষ।(ফাইল)

কলকাতা:

“কাটমানি” (Cut Money) ইস্যুতে বৃহস্পতিবার রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ কর্মসূচী পালন করল বিজেপি (BJP)। নবান্নসহ রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি দফতরের সামনে বিক্ষোভ দেখায় গেরুয়া শিবির। নয়াদিল্লিতে দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেন, “তৃণমূলের “কাটমানি”র প্রতিবাদে আমরা পশ্চিমবঙ্গে বিক্ষোভ পালন করেছি। এই কর্মসূচী শান্তিপূর্ণ ছিল”। কলকাতা পুরনিগমের বিভিন্ন বোরো অফিস ছাড়াও রাজারহাট বিডিও অফিস, হাওড়া জেলা শাসকের বাংলোর সামনেও বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করা হয়েছে বলে পিটিআইকে জানিয়েছেন বিজেপি নে রাহুল সিনহা। রাজ্যের সমস্ত জেলায় বিডিও ও এসডিও অফিসের সামনেও বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

কাটমানি ইস্যুতে বীরভূমে সংঘর্ষ, গ্রেফতার ৯

নবান্নের সামনে বিক্ষোভ পালন কর্মলূচী পালন করতে গেলে তাঁদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। শহর এবং জেলায় শান্তিপূর্ণভাবেই বিক্ষোভ হয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার বিবিময়ে মোটা টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল নেতা ও জনপ্রতিনিদিদের একাংশের বিরুদ্ধে। সম্প্রতি বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূল নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের বাড়ির সামনে আদায় করা “কাটমানি” (Cut Money) ফেরৎ-এর দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন সাধারণ মানুষ। আর তারপরেই বিষয়টি সামনে চলে আসে।

“কাটমানি” ইস্যুতে আইন নিজের হাতে না নেওয়ার আবেদন পঞ্চায়েতমন্ত্রীর

বিভিন্ন জেলা থেকে পঞ্চায়েত স্তরের তৃণমূল নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের “কাটমানি” (Cut Money)  ফেরৎ-এর দাবিতে ঘেরাও-এর ঘটনা ঘটেছে। দলীয় বৈঠকে তৃণমূলের নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের আদায় করা “কাটমানি” ফেরৎ এর নির্দেশ দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  

দলের নেতাদের তৃণমূল সুপ্রিমো বলেন, “আমার দলে আমি চোরদের চাই না। কয়েকজন নেতা গরীব মানুষদের ঘর তৈরির টাকার ২৫ শতাংশ দাবি করছেন। এটা এক্ষুণি বন্ধ হওয়া দরকার। যদি আপনারা কেউ টাকা নিয়ে থাকেন, তাহলে তা ফেরৎ দিন”।

প্রবল প্রতিবাদ, ১.৫ লক্ষ টাকা “কাটমানি” ফেরালেন তৃণমূলনেতা

রাজ্যবাসীকে আইন নিজের হাতে না নিয়ে, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনি পথে ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন রাজ্যের পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। তিনি বলেন, যদি কোনও উপভোক্তা কোনও জনপ্রতিনিধিকে “কাটমানি” (Cut Money) দেন, তাঁকে আইনি পদক্ষেপ চেয়ে, পুলিশে অভিযোগ দায়ের করতে হবে। যদি অভিযোগ প্রমাণিত হয়, আইন অনুযায়ী, অভিযুক্তের শাস্তি হবে। যদি অভিযোগ মিথ্য হয়, তাহলে অভিযোগকারীকে শাস্তি দেওয়া হবে। তবে মানুষকে নিজের হাতে আইন তুলে নেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে”।  



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)