অল ইন্ডিয়া

  • দেশজুড়ে ধর্মঘট চিকিৎসকদের, জেনে রাখুন ১০টি তথ্য
    রাজ্যে চিকিৎসকদের ধর্মঘট ৬দিনে পা দিল। রাজ্য সরকারের তাঁরা কথা বলতে রাজি বলে জানিয়েছেন প্রতিবাদে সামিল হওয়া চিকিৎসকরা। এবার তাঁদের পাশে দাঁড়ানোর বার্তা দিতে, সোমবার দেশজুড়ে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন চিকিৎসকরা। বিকেল৩টের সময় এনআরএস-এর বিক্ষোভরত চিকিৎসকদের সময় দিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার। চিকিৎসাধীন এক রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে গণ্ডগোলের সূ্ত্রপাত। এক জুনিয়র চিকিৎসককে মারধরের অভিযোগ ওঠে মৃতের পরিবারের বিরুদ্ধে। ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশননের ডাকে দেশজুড়ে ধর্মঘটে সারা দিয়েছে বিভিন্ন রাজ্যের হাসপাতাল।
  • ভারতের বিরল প্রজাতির ধূসর নেকড়েকে মেরে ফেলা হল বাংলাদেশে
    নিজেদের গবাদি পশুকে বাঁচাতে গিয়ে ভারতের বিরল প্রজাতির ধূসর নেকড়েকে পিটিয়ে মেরে ফেলল বাংলাদেশের মের একদল কৃষিজীবী।
  • বায়ু দুর্বল হতেই মৌসুমি বায়ুর গতি বৃদ্ধি, আগামী ২-৩ দিনে অনেকটা এগোবে বর্ষা
    ঘূর্ণিঝড় বায়ু শক্তিহীন হয়ে পড়ায় মৌসুমি বায়ুর গতি বাড়ল। আপাতত আরব সাগরের কাছে তার অবস্থান। এই সময়ের মধ্যে মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, উত্তরপ্রদেশ ও গুজরাত হয়ে মধ্য ভারতে পৌঁছে যাওয়ার কথা ছিল মৌসুমি বায়ুর।
  • একটি শর্তে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় রাজি চিকিৎসকরা
    এক সপ্তাহ ধর্মঘট (Doctors Strike) চলার পর, তাঁরা সরকারের সঙ্গে আলোচনায় রাজি বলে জানালেন বিক্ষোভরত জুনিয়র চিকিৎসকরা। চিকিৎসাধীন এক রোগীর মৃত্যুর পর, এক জুনিয়র চিকিৎসককে মারধরের অভিযোগ ওঠে মৃতের পরিবারের বিরুদ্ধে। তারই প্রতিবাদে ধর্মঘট (Doctors Strike) শুরু করেন চিকিৎসকরা। এর আগে মুখ্যমন্ত্রীর (Mamata Banerjee) সঙ্গে আলোচনার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন তাঁরা। তাঁদের উপযুক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা এবং সহকর্মীকে নিগ্রহে দোষীর বিরুদ্ধে উপযুক্ত পদক্ষেপ না করা পর্যন্ত কোনও আলোচনা নয় বলে জানিয়ে দেন চিকিৎসকরা। রবিবার বৈঠক বসেন, এনআরএসের চিকিৎসকরা, তারপরেই তাঁরা জানান, “মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে আমরা এই অলচলাবস্থার অবসান চাই, তবে স্বচ্ছতার জন্য এই বৈঠক রুদ্ধদ্বার হবে না, সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরার সামনে বৈঠক হবে”। সরকারের তরফে এখনও পর্যন্ত কোনও উত্তর দেওয়া হয় নি।
  • জঙ্গি ডেরায় ভারত-মায়ানমারের যৌথ হানা সীমান্তে, ধ্বংস বহু ঘাঁটি
    জঙ্গি ঘাঁটিতে ভারত ও মায়ানমারের সেনার যৌথ আক্রমণ সীমান্ত এলাকায়। ১৬ মে থেকে শুরু হয়েছে অপারেশন। মণিপুর, নাগাল্যান্ড ও অসমের বিভিন্ন জঙ্গি দলের ঘাঁটিতে তারা হানা চালিয়েছে বলে প্রতিরক্ষা সূত্রে জানা গিয়েছে রবিবার। ‘অপারেশন সানরাইজ’-এর প্রথম পর্যায় ছিল তিন মাস আগে ভারত-মায়ানমার সীমান্তে। সেবার উত্তর-পূর্ব জঙ্গি দলগুলির ঘাঁটিকে ধ্বংস করা হয়।
  • মর্মান্তিক ফাদার্স ডে: পড়া বন্ধ করতে মেয়েকে ছুরি দিয়ে কোপাল বাবা!
    অভিযোগ, নাবালিকা মেয়ের (15-year-old girl) দোষ, বিয়ের পিঁড়িতে না বসে পড়তে চেয়েছিল সে। বাবা-দাদার মতে, পড়াশোনার বদলে বিয়েটাই জরুরি। মেয়ে সেই কথা না শোনায় আজকের দিনে মেয়েকে পেছন থেকে ছুরি দিয়ে কোপাল বাবা। তারপরে ধাক্কা মেরে ফেলে দিল খালের জলে।
  • তৃণমূল কর্মী খুনে অভিযুক্ত গ্রেফতার ছত্তিশগড়ে
    এক তৃণমূলকর্মীকে (TMC worker)খুনের ঘটনায় ছত্তিশগড়ের বিলাসপুর থেকে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ৪ জুন উত্তর ২৪ পরগনার নিমতা এলাকায় তৃণমূল কর্মী (TMC worker) নির্মল কুণ্ডুকে গুলি করে খুন করে বাইক আরোহী এক দুষ্কৃতী। সরকান্দা থানার এসএইচও সন্তোষ জৈন জানিয়েছেন, শুক্রবার ও শনিবারের মধ্যের রাতে, বিলাসপুরের চিলহাটি গ্রামে এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় তৃণমূল খুনে (TMC worker) অভিযুক্ত সুদীপ দাসকে।পুলিশ আধিকারিক সন্তোষ জৈন বলেন, “সুদীপ দাস সম্পর্কে তথ্য পেয়েছিল কলকাতা পুলিশ”।
  • মুজাফফরপুরে শিশুমৃত্যু বেড়ে ৮৩, ছড়াচ্ছে আতঙ্ক, উদবিগ্ন নীতিশ কুমার
    রবিবার সকালে এনকেফেলাইটিসে আক্রান্ত হয়ে আরও এক শিশুর মৃত্যু হল মুজাফফরপুরে। এই নিয়ে এই মাসে এখনও পর্যন্ত এই অসুখে এই জেলায় ৮৩টি শিশুর মৃত্যু হল। বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার প্রত্যেকটি মৃত শিশুর পরিবারকে চার লক্ষ টাকা করে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন।
  • প্রধান বিল পাস করানোর লক্ষ্যে নির্বাচনের পরে প্রথম সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক নরেন্দ্র মোদীর
    প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী একটি সর্বদলীয় বৈঠক ডেকেছেন। ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তনের পরে এটাই তাঁর ডাকা প্রথম সর্বদলীয় বৈঠক। প্রধানমন্ত্রী সব দলের কাছে সমর্থন ও সহযোগিতা চাইছেন। যা রাজ্যসভায় গুরুত্বপূর্ণ বিল পাস করাতে প্রয়োজন। বিজেপি তথা এনডিএ এখনও সেখানে সংখ্যালঘু। লোকসভায় এনডিএ ৫৪৩ আসনের মধ্যে ৩৫৩টি আসন দখল করলেও উচ্চ কক্ষে ২৪৫ জন সদস্যের মধ্যে মাত্র ১০২ জন সদস্য তাদের।
  • অব্যাহত চিকিৎসকদের ধর্মঘট, মুখ্যমন্ত্রী সঙ্গে বৈঠকের স্থান ঠিক হতে পারে আজ
    পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসকদের ধর্মঘট ছ’দিনে পৌঁছেছে। আন্দোলনকারী চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তাঁরা সরকারের সঙ্গে কথা বলতে রাজি। আলোচনার স্থান কোথায় হবে সেটা ঠিক করবে চিকিৎসকদের পরিচালনসভা।
  • রাম মন্দির নির্মাণে অর্ডিন্যান্স আনা উচিত মোদির; নির্বাচ‌নের পরে অযোধ্যায় উদ্ধব ঠাকরে
    উদ্ধব ঠাকরে বলেন, ‘‘আমরা বলছি অধ্যাদেশ আনা হোক। আমি আত্মবিশ্বাসী একটি রাম মন্দির এখানে নিশ্চয়ই গড়ে উঠবে।’’
  • Father's Day Doodle 2019: অ্যানিমেশনে বিশ্বের সব বাবাকে শ্রদ্ধা গুগল ডুডলের
    Father's Day Google Doodle: আজ বাবা 'দি' বস। যদিও বিভিন্ন দেশে নানা দিনে এই বিশেষ দিন উদাযাপিত হয়। তবে বেশির ভাগই দেশই আজ অর্থাৎ, চলতি মাসের তৃতীয় রবিবারকেই ফাদার্স ডে হিসেবে পালন করে।
  • চিকিৎসকদের ধর্মঘটের কারণেই শিশুমৃত্যু, দাবি করল রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশন
    Doctor strike: কাজের জন্য নিরাপদ পরিবেশের দাবিতে চিকিৎসকদের ধর্মঘট শনিবার পঞ্চমদিনে পড়ল।
  • রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে রাজ্যের থেকে রিপোর্ট চাইল কেন্দ্র: সূত্র
    রাজ্যের রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে গত সপ্তাহেই অ্যাডভাইজারি পাঠায় কেন্দ্রীয় সরকার, এবার রাজ্যের রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে কী পদক্ষেপ করা হয়েছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের থেকে তা জানতে চাইল কেন্দ্র, সূত্রের খবর এমনই।সূত্রের খবর, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের(Home Ministry) তরফে বলা হয়েছে, “কয়েকবছর ধরে লাতাগার ঘটে চলা হিংসার ঘটনা, একটি গভীর উদ্বেগের বিষয়”। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রের খবর, ১০২৬-এ পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক হিংসার ঘটনার সংখ্যা ছিল ৫০৯, সেখানে ২০১৮ এ তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে, ১০৩৫। প্রায় ৮০০ রাজনৈতিক হিংসার ঘটনা ঘটেছে ২০১৯-এ।
  • মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের “হুমকি”র পরেই চিকিৎসকদের ধর্মঘট হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
    এনআরএসকাণ্ড এবং তারপর চিকিৎসকদের ধর্মঘটকে (Doctors Strike) কেন্দ্র করে তোলপাড় রাজ্য। চিকিৎসা পরিষেবা ভেঙে পড়ায় তার পক্ষে বিপক্ষে শুরু হয়েছে চর্চা, তোলপাড় হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়ও। এই পরিস্থিতিতে দেশজুড়ে চিকিৎসকদের ধর্মঘটের (Doctors Strike) নেপথ্যে মমতা বন্দ্যোপাাধ্যায়কেই দায়ী করলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ হর্ষবর্ধন (Harsh Vardhan)। মঙ্গলবার থেকে কর্মবিরতি শুরু করেছেন রাজ্যের চিকিৎসকরা, র্তা দিতে, দেশজুড়ে কর্মবিরতি পালন শুরু করেছেন বিভিন্ন শহরের চিকিৎসকরা।

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................