ভেজা কাপড় থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করলেন খড়গপুর আইআইটির গবেষকরা

Electricity From Wet Clothes: ৫০টি ভেজা কোনও সুপার ক্যাপাসিটরের সঙ্গে সংযুক্ত করা হলে, প্রায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১০ ভোল্টের বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সক্ষম।

ভেজা কাপড় থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করলেন খড়গপুর আইআইটির গবেষকরা

IIT Kharagpur: ভিজে কাপড় থেকে ২৪ ঘণ্টায় উৎপন্ন হওয়া বিদ্যুৎ এক ঘণ্টারও বেশি সময় একটি সাদা এলইডি বাল্ব জ্বালাতে সক্ষম।

কলকাতা:

কাপড় কেচে আপনি হয়তো বাইরে শুকোতে দিয়েছেন, তারপর হঠাৎ দেখলেন আপনার কাপড় থেকেই তৈরি হচ্ছে বিদ্যুৎ। হ্যাঁ, এরকমই অসাধ্য সাধন করে (research) সকলকে চমকে দিলেন খড়গপুর আইআইটির (IIT
Kharagpur) গবেষকরা।নিয়মিত বিদ্যুৎ উৎপাদনের উদ্যোগের অংশ হিসাবে, আইআইটি খড়গপুরের গবেষকরা খোলা জায়গায় শুকোতে দেওয়া ভিজে কাপড় থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য একটি নতুন প্রযুক্তি তৈরি করেছেন, একটি বিবৃতি দিয়ে জানালেন সেখানকার গবেষকরা। প্রযুক্তিটি সম্প্রতি একটি প্রত্যন্ত গ্রামে পরীক্ষা করা হয়েছিল, যেখানে প্রায় ৩০০০ বর্গ মিটার জায়গা জুড়ে ৫০ টি ভেজা কাপড়ের জিনিসপত্র শুকোতে দেওয়া হয়ে ছিল। ওই পোশাকগুলিকে কোনও সুপার ক্যাপাসিটরের সঙ্গে সংযুক্ত করা হলে, প্রায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১০ ভোল্টের বিদ্যুৎ উৎপাদন (Electricity From Wet Clothes) করে - যা এক ঘণ্টারও বেশি সময় একটি সাদা এলইডি বাল্ব জ্বালাতে সক্ষম।

কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনার প্রযুক্তি তৈরি করলেন আইআইটি খড়গপুরের গবেষকরা

বিবৃতি অনুসারে, ঐতিহ্যগতভাবে বোনা সেলুলোজ-ভিত্তিক ফ্যাব্রিকটিতে একটি ক্ষুদ্র চ্যানেল নেটওয়ার্ক রয়েছে, যা গবেষকরা বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য ব্যবহার করেছিলেন। প্রধান গবেষক সুমন চক্রবর্তী ব্যাখ্যা করেছিলেন, "আমরা যে পোশাকগুলি পরে থাকি সেগুলি সেলুলোজ ভিত্তিক টেক্সটাইল থেকে তৈরি করা হয় যার মধ্যে ন্যানো-চ্যানেলগুলির একটি নেটওয়ার্ক রয়েছে। লবণাক্ত জলের আয়নগুলি এই প্রক্রিয়াতে বৈদ্যুতিক সম্ভাবনা পাঠায় যা কৈশিক পদ্ধতির মাধ্যমে সরবরাহ করা যেতে পারে"। যে কোনো ফাঁকা নল জাতীয় জিনিসের মধ্যে দিয়ে জল সরবরাহ করার পদ্ধতিটিই হল কৈশিক পদ্ধতি, বলেন তিনি।

রক্ত পরীক্ষার জন্যে স্বল্প মূল্যের যন্ত্র তৈরি করলেন আইআইটি খড়গপুরের গবেষকরা

"এখনও পর্যন্ত এই ঘটনা কল্পনা করার বাইরে ছিল যে, কোনও প্রাকৃতিক পরিবেশে শুকানো একটি ভেজা কাপড় বৈদ্যুতিক শক্তি উৎপাদনে সক্ষম হতে পারে। প্রত্যন্ত গ্রামগুলিতে প্রয়োজনীয় বিদ্যুতের প্রয়োজনীয়তা মোকাবিলায় এই নতুন প্রযুক্তি দারুণ ভাবে উপকারী হবে" আশা প্রকাশ করেন ওই গবেষক।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)