চিন সেনার সদস্য! পরিচয় গোপন করে গবেষক ভিসা, ইউএসে ধৃত চার চিনা পড়ুয়া

প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ভিসা প্রতারণার দায়ে মামলা দায়ের হয়েছে। দোষী প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ দশ বছর জেল এবং আড়াই লক্ষ মার্কিন ডলার জরিমানা হতে পারে

চিন সেনার সদস্য! পরিচয় গোপন করে গবেষক ভিসা, ইউএসে ধৃত চার চিনা পড়ুয়া

আমেরিকায় বসবাসকারী কয়েকজন চিনা পড়ুয়াকে সে দেশের সামরিক বাহিনীর সঙ্গে যোগাযোগ করার অভিযোগে এফবিআই গ্রেপ্তার করেছে।

ওয়াশিংটন:

ভিসা প্রতারণার দায়ে চার জন চিনা নাগরিকের (Case against China nationalist for violating US visa) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হল মার্কিন মুলুকে। এফবিআই সূত্রে খবর, চিন সেনার সদস্য ওই চারজন নিজেদের পরিচয় গোপন করে গবেষক হিসেবে মার্কিন ভিসার আবেদন করেছিলেন। সূত্র মারফত খবর পেয়েই তিন জনকে গ্রেপ্তার করেছে এফবিআই। চতুর্থ জন আপাতত সানফ্রান্সিসকোর চিনি কনসুলেটের নিরাপদ আশ্রয়ে রয়েছে। ইউএস ন্যায় দফতর সূত্রে খবর, প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ভিসা প্রতারণার দায়ে মামলা দায়ের হয়েছে। দোষী প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ দশ বছর জেল এবং আড়াই লক্ষ মার্কিন ডলার জরিমানা হতে পারে। এই চার জনকে জেরা করে জানা গিয়েছে, ইউএসের ২৫টি শহরে এই সন্দেহভাজনদের অঘোষিত অনুমোদন রয়েছে। যারা চিনা সেনার (People Liberation Army)  সঙ্গে সমন্বয় রেখে কাজ করে।

জাতীয় নিরাপত্তা বিভাগের অ্যাটর্নি জন সি ডেমার্স  বলেছেন, "চিনা পিপলস আর্মির এই সদস্যরা রিসার্চ ভিসার জন্য আবেদন করেছিলেন। কিন্তু এরা চিন সেনার সক্রিয় সদস্য এই তথ্য গোপন করেছিলেন।" তিনি আরও বলেছেন, "চিনা কমিউনিস্ট পার্টির এটা আরও একটা পরিকল্পনা যেখানে আমাদের মুক্ত সমাজ ও শিক্ষাব্যবস্থায় নাক গলাতে চাইছে। আমরা এই তদন্ত চালিয়ে যাবো।"

এফবিআইয়ের এক কর্তা বলেছেন, "গোটা বিশ্বের গবেষক পড়ুয়াদের ইউএসে স্বাগত। কিন্তু এক্ষেত্রে আমাদের মাটিতে অনুপ্রবেশ ও সার্বভৌমত্বে আঘাত হানা হয়েছে।"
 



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)