সিবিএসই বোর্ডের প্রস্তাবে সম্মতি সুপ্রিম কোর্টের, জুলাইয়ের মাঝামাঝি ফলপ্রকাশ

করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে ১ জুলাই থেকে ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির যে পরীক্ষাগুলো নেওয়ার কথা ছিল তা বাতিল করা হচ্ছে, জানায় CBSE

সিবিএসই বোর্ডের প্রস্তাবে সম্মতি সুপ্রিম কোর্টের, জুলাইয়ের মাঝামাঝি ফলপ্রকাশ

CBSE Results: জুলাইয়ের মাঝামাঝি বেরোতে পারে সিবিএসই বোর্ডের দশম শ্রেণির ফল (ফাইল চিত্র)

হাইলাইটস

  • জুলাইয়ের মাঝামাঝি ফলপ্রকাশ করবে সিবিএসই
  • বৃহস্পতিবার বোর্ড জানায় করোনা পরিস্থিতিতে বাকি পরীক্ষা নেওয়া যাবে না
  • সিবিএসই বোর্ডের প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট
নয়া দিল্লি:

দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বাকি পরীক্ষাগুলো সম্বন্ধে বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে একটি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল সিবিএসই (CBSE) বোর্ডের তরফে। শুক্রবার সেই প্রস্তাবেই সম্মতি দিল দেশের শীর্ষ আদালত (Supreme Court)। বোর্ড ইতিমধ্যেই যে যে পরীক্ষাগুলো হয়ে গেছে এবং অভ্যন্তরীণ পরীক্ষার মূল্যায়নের ভিত্তিতেই সামগ্রিক রেজাল্ট প্রস্তুত করবে। আশা করা যাচ্ছে, জুলাইয়ের মাঝামাঝিই ফলপ্রকাশ (CBSE Results) করবে সিবিএসই। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে ১ জুলাই থেকে ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির যে পরীক্ষাগুলো নেওয়ার কথা ছিল তা বাতিল করা হচ্ছে, একথাই আদালতকে জানায় সিবিএসই। তবে দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষার্থীরা চাইলে পরে পরীক্ষা দিতে পারবে। এছাড়াও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরীক্ষার আয়োজনের বিষয়ে চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।

"দশমের পরীক্ষা বাতিল, দ্বাদশের পরীক্ষা পরে", সুপ্রিম কোর্টকে জানালো সিবিএসই 

কেন্দ্র এবং সিবিএসই-র তরফে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টকে বলেন, ১ থেকে ১৫ জুলাই সিবিএসই-র দশম (শুধুমাত্র উত্তর-পূর্ব দিল্লিতেই বাকি ছিল) এবং দ্বাদশ শ্রেণির বাকি পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে তা নেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে দিল্লি, মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ুর মতো রাজ্যগুলো। এছাড়া, আরও সমস্ত দিক বিচার করেই জুলাইয়ে ওই পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

স্নাতক ও স্নাতকোত্তর চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা নিয়ে ২৬ জুনের পরে সিদ্ধান্ত

তুষার মেহতা আরও জানান, এবারের মতো দশমের বাকি পরীক্ষা আর হবে না। কিন্তু পরিস্থিতি কিছুটা শোধরালে, দ্বাদশের পরীক্ষা নেওয়া হতে পারে। তবে তা বাধ্যতামূলক নয়। চাইলে পরীক্ষার্থীরা তাতে বসতে পারে, নয়তো তাঁর রেজাল্ট তৈরি হবে আগের পরীক্ষার ভিত্তিতে। 

সিবিএসই যে মূল্যায়ন প্রকল্প আদালতে জমা দিয়েছে তা অনুসারে, দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির সকল পরীক্ষায় অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার পারফরম্যান্সের ভিত্তিতেই তাদের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

আর তিনটির অধিক বিষয়ে পরীক্ষায় অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের জন্য, তিনটি বিষয়ের পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে যেসব পরীক্ষা হইনি সেগুলোতেও নম্বর দেওয়া হবে।

আর যে পরিক্ষার্থীরা কেবল তিনটি বিষয়ে পরীক্ষায় অংশ নিতে পেরেছে তাদের ক্ষেত্রে যে দুটি বিষয়ে তারা বেশি নম্বর পেয়েছে তার গড় করেই বাকি বিষয়ে নম্বর দেওয়া হবে। 

উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে দ্বাদশ শ্রেণির এমন কিছু পরিক্ষার্থী রয়েছে যারা কেবল এক বা দুটি বিষয়ের পরীক্ষাতেই অংশ নিতে পেরেছে। তাদের জন্য, ওই বিষয়ের নম্বর এবং অভ্যন্তরীণ মূল্যায়ন, ব্যবহারিক প্রকল্পের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে অন্য বিষয়গুলোতেও নম্বর দেওয়া হবে।