৮২ বছর পরে টকটকে লাল রঙের বিরল প্রজাতির সাপের দেখা মিলল বৃষ্টির ঠিক পরেই!

বিশেষজ্ঞদের মতানুসারে, লাল কোরাল কুকরি সাপ বিষাক্ত নয়। এই সাপ কেবল পোকামাকড় খায়। এই সাপের নাম এর লাল উজ্জ্বল রঙ এবং এর দাঁতের জন্য দেওয়া হয়েছে।

৮২ বছর পরে টকটকে লাল রঙের বিরল প্রজাতির সাপের দেখা মিলল বৃষ্টির ঠিক পরেই!

৮২ বছর পরে ফের জনসমক্ষে দেখা গিয়েছে এই সাপটিকে।

বিরল প্রজাতির সাপের দেখা মিলল উত্তরপ্রদেশে! রেড কোরাল কুকরি (Red Coral Kukri snake) সাপের একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতেও ব্যাপক শেয়ার হচ্ছে। উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেড়ির দুধওয়া ন্যাশনাল পার্কে দু'দিন আগে এই সাপ দেখা গিয়েছে। লাল সাপের এই ছবি বনবিভাগের কর্নীরাই তুলেছেন এবং তা টুইটারে শেয়ার করেছে বন্যপ্রাণ সংরক্ষণ এবং পর্যটন সংস্থা ওয়াইল্ডলেন্স।

এইরকম সাপ প্রথম ১৯৩৬ সালে দুধওয়ায় দেখা গিয়েছিল। এই সাপের বিজ্ঞানসম্মত নাম ‘ওলিগোডন খেরিয়েন্সিস'। উজ্জ্বল রঙের এই সাপ এককথায় বেশ দুর্লভ! ৮২ বছর পরে ফের জনসমক্ষে দেখা গিয়েছে এই সাপটিকে। ভারতীয় বনবিভাগের ঊর্ধ্বতন আধিকারিক রমেশ পাণ্ডের কথা অনুযায়ী, লাল কোরাল কুকরি সাপ সম্প্রতি কিছু বছরে মোট ৪ বার দেখা গেছে। আগে এত বার দেখা যেত না।

রবিবার এই ছবিটি শেয়ার করে ওয়াইল্ডলেন্স লিখেছে, “দুধওয়া ন্যাশনাল পার্ক বৈচিত্র্য এবং আশ্চর্যে ভরা। রেড কোরাল কুকরি সাপ একটি খুব দুর্লভ প্রজাতির সাপ। আজ সন্ধ্যায় একটি ঝুপড়ির পাশে বৃষ্টির পরে এই সাপটিকে দেখা গিয়েছে।

সোশ্যলা মিডিয়ায় এই ছবি এখন ভাইরাল। এমন সুন্দর দেখতে সাপের ছবি বেশ কিছু মানুষ শেয়ারও করেছেন...

বিশেষজ্ঞদের মতানুসারে, লাল কোরাল কুকরি সাপ বিষাক্ত নয়। এই সাপ কেবল পোকামাকড় খায়। এই সাপের নাম এর লাল উজ্জ্বল রঙ এবং এর দাঁতের জন্য দেওয়া হয়েছে। নেপালে যে ছুরি পাওয়া যায়, খুখরি নামে, তার ধারের সঙ্গে এই সাপের দাঁতের মিল আছে। সাপ এই দাঁত ডিম ভাঙার জন্য ব্যবহার করে।

Click for more trending news