দিল্লি চিড়িয়াখানায় সিংহরাজের মুখোমুখি বসলেন এক বেপরোয়া ব্যক্তি!

Delhi Zoo-র ওই সিংহের খাঁচায় কেন ওইভাবে যুবকটি ঢুকে পড়লেন তা এখনও জানা যায়নি

দিল্লি চিড়িয়াখানায় সিংহরাজের মুখোমুখি বসলেন এক বেপরোয়া ব্যক্তি!

দেখা যায় সিংহের খাঁচার ভিতরে পশুরাজের মুখোমুখি বসে আছেন ওই ব্যক্তি

নয়া দিল্লি:

বাঘের গলায় মালা পড়ানোর ঘটনাকে ফের উস্কে দিল দিল্লি চিড়িয়াখানার এই ঘটনা। বৃহস্পতিবার দিল্লি চিড়িয়াখানায় (Delhi Zoo) সিংহরাজের ঘরে ঢুকে একেবারে তার মুখোমুখি বসে পড়েন এক বেপরোয়া ব্যক্তি। পরে যদিও উদ্ধার করা হয় তাঁকে। কিন্তু ওই ব্যক্তি হঠাৎ কেনই বা সিংহের (Lion) ঘরের মধ্যে ঢুকতে গেল বা কীভাবে সেখানে ঢুকে পড়ল তা এখনও জানা যায়নি। ওই ঘটনায় প্রত্যক্ষদর্শীদের রীতিমতো হাত-পা ঠাণ্ডা হয়ে যাওয়ার মতো অবস্থা হয়।  "ওই ব্যক্তি বিহার নিবাসী ২৮ বছর বয়সী রেহান খান। তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ বলেই প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। খাঁচায় ঢোকার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে বের করে আনা হয়েছে, তাঁর গায়ে কোনও আঁচড়ও লাগেনি", জানিয়েছেন একজন প্রবীণ পুলিশকর্তা। 

rf6kj7m4

সিংহের সামনে ওই ব্যক্তিকে শুয়ে থাকতেও দেখা যায়

Watch Video: বেড়া ডিঙিয়ে সিংহের মুখোমুখি তরুণী! তারপর কী হল?

অথচ দেখা যায় বহাল তবিয়তে ওই ব্যক্তি সিংহের (Lion) খাঁচায় ঢুকে তার সামনে বসে আছে। এমনকি তাঁকে একবার ওই খাঁচার মধ্যে শুয়ে থাকতেও দেখা যায়। হঠকারী ওই যুবককে সিংহের সামনে গিয়ে আস্ফালন করতেও দেখা গেছে। জানা গেছে, সিংহের খাঁচার উঁচু ফেন্স টপকেই সেখানে ঢোকেন ওই যুবক। পরে তাঁকে কোনওক্রমে সিংহের খাঁচার মধ্যে থেকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন যে সিংহের খাঁচায় ঢুকে পশুরাজের মুখোমুখি হওয়া সত্ত্বেও ওই ব্যক্তির গায়ে যে আঁচড়টুকুও লাগেনি সে জন্যে তিনি সত্যিই "অত্যন্ত ভাগ্যবান"। "এই আকারের একটি সিংহ একজন মানুষকে ১৫ সেকেন্ডের মধ্যেই হত্যা করতে পারে", বলেন বন্যজীবন সংরক্ষণ ট্রাস্টের আধিকারিক আনিস আন্ধেরিয়া । তিনি একথাও অনুমান করে বলেন যে হয়তো ওই যুবক যখন খাঁচার বেড়া টপকে সেখানে ঢোকে তখন প্রহরীরা সতর্ক ছিলেন না। আর সিংহটিরও মেজাজ ভাল থাকায় ওই যুবকের কোনও ক্ষতি সে করেনি বলেও অনুমান তাঁর।

টলোমলো পায়ে মা সিংহীকে ‘ধাপ্পা' দিল খুদে ছানা! মন ভালো করা ভিডিওই এখন ভাইরাল

প্রাণী অধিকার কর্মী গৌরী মৌলেখি দিল্লি চিড়িয়াখানার সুরক্ষা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। "কয়েক মাস আগেও ঠিকভাবে বন্ধ না থাকায় সিংহের ঘেরাটোপটি ভেঙে দেওয়া হয়েছিল", অভিযোগ করেন তিনি । "আর যদি এই ঘটনা ইচ্ছাকৃতই হয় তবে অবশ্যই বুঝতে হবে যে তবে কী সিংহের আস্তানার ঘেরাটোপটি পর্যাপ্ত পরিমাণে নেই, তাই যে কেউ সেখানে প্রবেশ করতে সক্ষম হচ্ছে?" প্রশ্ন তোলেন তিনি। পাশাপাশি তিনি এই কথাও বলেন যে "সিংহের খাঁচার সুরক্ষা ব্য়বস্থা ঠিকঠাক থাকলে এরকম ঘটনা ঘটার প্রশ্নই ওঠে না"।

দেখুন এই ভিডিও:

More News