This Article is From Apr 26, 2019

মহুয়া মৈত্র'র বিরুদ্ধে যৌন বিদ্বেষমূলক মন্তব্য, ৪৮ ঘন্টা নিষিদ্ধ বিজেপি নেতা

নির্বাচন কমিশন(Election Commision) মহাদেব সরকারের এই মন্তব্যের নিন্দা করে অত্যন্ত কড়া ভাষায়।

মহুয়া মৈত্র'র বিরুদ্ধে যৌন বিদ্বেষমূলক মন্তব্য, ৪৮ ঘন্টা নিষিদ্ধ বিজেপি নেতা
নিউ দিল্লি:

তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্র'র(Mahua Moitra) বিরুদ্ধে যৌন বিদ্বেষমূলক মন্তব্য করার জন্য নদীয়া জেলার বিজেপি সভাপতি মহাদেব সরকারকে নির্বাচনী প্রচার থেকে ৪৮ ঘন্টার জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করল নির্বাচন কমিশন(Election Commision)। শুক্রবার বিকেল চারটে নাগাদ তাঁকে নিষিদ্ধ করল নির্বাচন কমিশন(Election Commision)। ২৮ এপ্রিল সন্ধে পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। জানাল নির্বাচন কমিশন(Election Commision)। তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী মহুয়া মৈত্র(Mahua Moitra) এই বিষয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করার পর সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনেই মহাদেব সরকারকে নির্বাচন কমিশন ৪৮ ঘন্টা সাসপেন্ড করেছে বলে জানা গিয়েছে। নির্বাচন কমিশন(Election Commision) মহাদেব সরকারের এই মন্তব্যের নিন্দা করে অত্যন্ত কড়া ভাষায়।

এখন গড় কিন্তু কবে প্রথম বহরমপুরে জেতে কংগ্রেস?

এই মন্তব্যের ফলে নির্বাচন কমিশনের আদর্শ আচরণ বিধির দ্বিতীয় অনুচ্ছেদটি লঙ্ঘন হয়েছে বলেও জানিয়েছে তারা। যেখানে স্পষ্ট বলা আছে- “নির্বাচনী প্রচারে কোনও প্রার্থী বা নেতা বা নেত্রীর সমালোচনা করতে হলে তা সীমাবদ্ধ রাখতে হবে তাঁদের অতীতের কাজ, রেকর্ড এবং নীতির মধ্যে। সেখানে কোনওভাবেই টেনে আনা যাবে না তাঁদের ব্যক্তিগত জীবনকে”।

কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মহুয়া মৈত্র(Mahua Moitra) অভিযোগ করেন যে, মহাদেব সরকার তাঁর বিরুদ্ধে অত্যন্ত ‘নোংরা' মন্তব্য করেছিলেন গত ২২ এপ্রিল। কিন্তু নির্বাচন কমিশন তাঁর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থাই নেয়নি।

মহুয়ার অভিযোগ প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশনকে ব্যবস্থা নিতে বলল সুপ্রিম কোর্ট

অন্যদিকে, তিনি এই মন্তব্য করেছেন, তা স্বীকার করলেও, সেটি যে নির্বাচন কমিশনের মডেল কোড অব কন্ডাক্ট লঙ্ঘন করেছে তা স্বীকার করতে রাজি নন মহাদেব সরকার।

আগামী ২৯ এপ্রিল রাজ্যে চতুর্থ দফায় কৃষ্ণনগর লোকসবা কেন্দ্রেও ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হবে।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)