This Article is From Feb 25, 2019

সুইসাইড নোটে মুখ্যমন্ত্রীকে দায়ী করলেন প্রাক্তন আইপিএস অফিসার

প্রাক্তন  আইপিএস অফিসার গৌরব দত্তর মৃত্যুর ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করার দাবি জানালেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়।

সুইসাইড নোটে মুখ্যমন্ত্রীকে দায়ী করলেন প্রাক্তন আইপিএস অফিসার

১৯৮৬ ব্যাচের  এই আইপিএস অফিসার গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর অবসর নেন।

হাইলাইটস

  • গত মঙ্গলবার বিধাননগরের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় গৌরব দত্তর দেহ
  • এক কন্সটেবলের স্ত্রীয়ের অভিযোগের ভিত্তিত ২০১০ সালে সাসপেন্ড হন তিনি
  • এই ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রীক্ব গ্রেফতারির দাবি জানালেন মুকুল রায়
কলকাতা:

প্রাক্তন  আইপিএস অফিসার গৌরব দত্তর মৃত্যুর ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করার দাবি জানালেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। কয়েক দিন আগে বিধাননগরে নিজের বাড়িতে  আত্মহত্যা  করেন গৌরব। সেখান থেকে  একটি সুইসাইড নোটও মেলে। তাতে  লেখা ছিল অবসরকালীন বকেয়া মিটিয়ে না দিয়ে তাঁকে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করেছেন মমতা।  এবার এ নিয়ে  রাজনৈতিক আক্রমণের পালা  শুরু হল। মুকুল বলেন,  ‘বাংলায় এই  প্রথম কোনও একজন (প্রাক্তন) আইপিএস অফিসার নিজের মৃত্যুর জন্য মুখ্যমন্ত্রী বা দলের নেতাকে দায়ী করলেন।' ইতিমধ্যে  সুসাইড নোটটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। তাতে টাকা  বাকি রাখা ছাড়া আরও একটি  বিষয়ের উল্লেখ আছে  সেটি গৌরবকে কম্পালসারি ওয়েটিঙে রাখা  সংক্রান্ত। দীর্ঘ দিন কম্পালসারি ওয়েটিঙে থাকার পর ১৯৮৬ ব্যাচের  এই আইপিএস অফিসার গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর অবসর নেন। তখন  থেকেই তাঁর ভাতা বকেয়া রয়েছে বলে দাবি করেন গৌরব।  

রাজ্য সরকারের তরফে এ ব্যাপারে  সরকারি ভাবে কিছুই বলা হয়নি। তবে  সূত্র বলছে গৌরব যে সমস্ত  বকেয়ার কথা জানিয়েছেন তার কোনওটাই তাঁর প্রাপ্য নয় কারণ তিনি কম্পালসারি ওয়েটিঙে ছিলেন।

 ৯ বছর আগে ২০১০ সালে সাসপেন্ড হন গৌরব। তাঁর  বিরুদ্ধে  ‘মারাত্মক'  অভিযোগ আনেন এক  পুলিশ কনস্টেবলের স্ত্রী। তিনি বলেন, শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনে রাজি না  হওয়ায় তাঁর স্বামীকে মারধর করেছেন গৌরব। সেবার ৯ মাসের জন্য সাসপেন্ড হন  তিনি। ২০১২ সালে আবার তাঁকে ঘিরে  বিতর্ক হয়। সেবার আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ ওঠে তাঁর  বিরুদ্ধে।