ভারতে ২৪ ঘণ্টায় ৬৪,৫৫৩ জনের শরীরে নতুন করে বাসা বাঁধলো করোনা, মৃত ১,০০৭

Coronavirus in India: স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, ভারতে মোট ২৪,৬১,১৯০ জনের উপর হামলা করেছে এই মারণ রোগ, কেড়েছে ৪৮,০৪৯ জনের প্রাণ

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় ৬৪,৫৫৩ জনের শরীরে নতুন করে বাসা বাঁধলো করোনা, মৃত ১,০০৭

হাইলাইটস

  • দেশে মহামারী রূপে দেখা দিয়েছে করোনা ভাইরাস
  • ২৪ লক্ষেরও বেশি মানুষ এপর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে
  • দৈনিক সংক্রমণের বিচারে সাম্প্রতিককালে বিশ্বের সব দেশকে ছাড়িয়ে গেছে ভারত
নয়া দিল্লি:

দেখতে দেখতে দেশে কোভিড-১৯ (COVID-19) এ আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছলো ২৪,৬১ লক্ষে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের শুক্রবারের পরিসংখ্যান বলছে ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সংক্রমিত (Coronavirus in India) হয়েছে ৬৪,৫৫৩ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১,০০৭ জনের। সব মিলিয়ে দেশে এপর্যন্ত মোট ৪৮,০৪৯ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা ভাইরাস (Coronavirus)। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, ভারতে মোট ২৪,৬১,১৯০ জনের উপর হামলা করেছে এই মারণ রোগ। গত ১০ দিন ধরে দৈনিক সংক্রমণের বিচারে বিশ্বের সব দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে পৌঁছে গেছে ভারত। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া তথ্য অনুসারে, ৪ থেকে ১৩ অগাস্ট পর্যন্ত এই দেশেই সবচেয়ে বেশি সংখ্যক নতুন করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তবে চিকিৎসা সহায়তায় বহু রোগীই সুস্থ হয়ে উঠছেন। ভারতে করোনা থেকে পুনরুদ্ধারের সাম্প্রতিক হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭০.১৭ শতাংশে। দেশে ১৭,৫১,৫৫৫ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

করোনা ভাইরাসের কারণে দেশে মৃত্যুর হার বর্তমানে কমে এসে ১.৯৫ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের লক্ষ্য এই হার ১ শতাংশেরও নিচে নিয়ে যাওয়া।

করোনা পরীক্ষার পর তার ফল ইতিবাচক হওয়ার হার বর্তমানে ৭.৬০% । এখনও পর্যন্ত দেশে সবচেয়ে বেশি করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ অগাস্ট। অর্থাৎ গত একদিনে ৮,৪৮,৭২৮ জনের শরীরের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। ভারতে এই মহামারীর দাপট শুরু থেকে ১৩ অগাস্ট পর্যন্ত মোট ২,৭৬,৯৪,৪১৬ জনের শরীরের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এদিকে দেশে প্রথম করোনা আক্রান্ত ধরা পড়ার পর থেকে ১৯৭ দিনের মধ্যে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ২৪ লক্ষ ছাড়িয়ে গেলো।

দেশের মধ্যে করোনা সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি দেখা গেছে মহারাষ্ট্রে এবং বিশেষ করে বাণিজ্য নগরী মুম্বইয়ে।বৃহস্পতিবার ওই রাজ্যটিতে ১১,৮১৩ টি নতুন সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে। শুধু মহারাষ্ট্রেই মোট করোনা আক্রান্ত ৫,৬০,১২৬ জন। 

মহারাষ্ট্রের পরেই বর্তমানে দ্বিতীয় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ রাজ্য হলো তামিলনাড়ু। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে ৫,৮৩৫ জন নতুন করোনা রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। একদিনে সেখানে ১১৯ জন রোগীর মারা যাওয়ার খবর মিলেছে। দক্ষিণের ওই রাজ্যের মধ্যে করোনা সংক্রমণের কেন্দ্র হিসাবে উঠে এসেছে চেঙ্গালপাট্টু, সেখানে প্রতিদিন ৪০০ জনেরও বেশি মানুষ নতুন করে এই ভাইরাসে সংক্রমিত হচ্ছেন।