This Article is From Jul 14, 2020

দেশে ৯ লক্ষ পেরিয়ে গেল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, তবে সুস্থতার হার ৬৩% এর বেশি

Coronavirus: গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৫৩ জনের প্রাণ কেড়েছে কোভিড- ১৯, সব মিলিয়ে মোট ২৩,৭২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে এই ভয়ঙ্কর সংক্রামক রোগে

দেশে ৯ লক্ষ পেরিয়ে গেল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, তবে সুস্থতার হার ৬৩% এর বেশি

Coronavirus Case in India: সংক্রমণের বিচারে বিশ্ব তালিকায় ৩ নম্বরে রয়েছে ভারত

হাইলাইটস

  • দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্রুতহারে বাড়ছে
  • মহারাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে
  • গোটা দেশের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গেও
নয়া দিল্লি:

দেখতে দেখতে ৯ লক্ষ পেরিয়ে গেল ভারতে করোনা ভাইরাসে (Coronavirus Case in India) আক্রান্তের সংখ্যা। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের মঙ্গলবারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী এদেশে ২৮,৪৯৮ জনের শরীরে নতুন করে বাসা বেঁধেছে করোনা ভাইরাস (Coronavirus)। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৫৩ জনের প্রাণ কেড়েছে কোভিড- ১৯। সব মিলিয়ে মোট ২৩,৭২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে এই ভয়ঙ্কর সংক্রামক রোগে। আশার কথা এটাই যে, সারা দেশে চিকিৎসা সহায়তায় ৫.৭১ লক্ষেরও বেশি মানুষ করোনাকে হারিয়ে সুস্থ জীবনে ফিরে এসেছে। এই সুস্থতার হার ৬৩% এরও বেশি। করোনা সংক্রমণের বিচারে রাজ্যগুলোর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। সেখানে শুধু সোমবারই ৬,৪৯৭ জন নতুন করে কোভিড- ১৯ (COVID-19) এর কবলে পড়েছেন এবং ১৯৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর ফলে সবমিলিয়ে ওই রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২,৬০,৯২৪ এ। সোমবার মধ্যরাত থেকেই পুনেতে ফের কড়া লকডাউন শুরু হয়েছে এবং ২৩ শে জুলাই পর্যন্ত চলবে এই কড়াকড়ি। কারণ দেখা যাচ্ছে পুনে এলাকায় ৫৬০ জন নতুন করোনা রোগীর সন্ধান মিলেছে, এর ফলে ওই শহরে মোট আক্রান্ত ২৯,৬০০ জন।

যুদ্ধ জয়ের ছবি, করোনার সঙ্গে লড়ে সফল কিডনি প্রতিস্থাপন কলকাতায়

সোমবার তামিলনাড়ুর কোভিড -১৯ আক্রান্তের সংখ্যাও বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১,৪২,৭৯৮ জনে। সেখানে গত একদিনে আরও ৪,৩৮২ জন করোনা পজিটিভ হিসাবে ধরা পড়েথে। এর মধ্যে চেন্নাইয়ের অবস্থা সবচেয়ে খারাপ, প্রতিদিনই দ্রুতহারে সেখানে সংক্রমণ বাড়ছে। দক্ষিণ তামিলনাড়ুর মাদুরাই করোনা ভাইরাসের একটি বড় হট স্পট হয়ে উঠেছে।

অমিতাভ ও তাঁর পরিবারের সুস্থতা কামনায় কলকাতার মন্দিরে মহামৃত্যুঞ্জয় যজ্ঞ

এদিকে কর্নাটকের মধ্যে বিশেষ করে বেঙ্গালুরুতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে মঙ্গলবার সন্ধে থেকে বেঙ্গালুরু শহর ও শহরতলী এলাকায় আগামী এক সপ্তাহের জন্যে কড়া লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। সোমবার কর্নাটকে নতুন করে ২,৭৩৮ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে এবং মারা গেছে ৭৩ জন। এর ফলে সেরাজ্যে সংক্রমণের সংখ্যা ৪০,০০০ পেরিয়ে গেছে। এখনও পর্যন্ত মোট ৪১,৫৮১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে সেখানে। রাজ্যে মোট মৃত করোনা রোগী ৭৫৭ জন।

অসমেও ধীরে ধীরে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সেরাজ্যে ১,০০১ টি নতুন করোনা আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে। এর মধ্যে ৫১৩ জন আবার গুয়াহাটির বাসিন্দা। অসমে এখনও পর্যন্ত ১৭,৮০৭ জন করোনার কবলে পড়েছেন। যদিও সেখানে ১১,৪১৬ জন সুস্থ হয়ে ওঠায় আপাতত সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ৬,৩৪৮ জন। শুধু গুয়াহাটিতে ৬,০০০ জনের শরীরে সংক্রমণের খবর মিলেছে।

এদিকে গোয়া সরকার রাজ্যের সমস্ত বেসরকারি হাসপাতালের ২০ শতাংশ বেড করোনা রোগীদের জন্য সংরক্ষণ করা বাধ্যতামূলক ঘোষণা করেছে।