"দলের কর্মীদের নিয়মানুবর্তীতা শেখাতে চেয়েছি" কাট মানি বিতর্কে বললেন মমতা

”আমাদের দল মানুষের কথাকে গুরুত্ব দেয় বলে এই নয় যে, যে কেউ আমাদের নামে বিনা প্রমাণে যা খুশি বলবে”:মমতা

রাজ্যে অপসংস্কৃতির আমদানি করার চেষ্টা করছে বিজেপি:মুখ্যমন্ত্রী

হাইলাইটস

  • মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বাংলায় ভিন্ন সংস্কৃতি আমদানি করতে চাইছে বিজেপি
  • প্রমাণ ছাড়া দলের নেতাদের বদনাম কালিমালিপ্ত অধিকার নেই কারও: মমতা
  • “কাট মানি” ইস্যুতে নেতাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন জায়গায় প্রতিবাদ হয়েছে
কলকাতা:

”কাট মানি”(Cut money)ইস্যুতে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) বুধবার বলেন, যদি তিনি তাঁর দলীয় কর্মীদের নিয়মনিষ্ঠ করতে চান তাহলে সেই প্রচেষ্টার মধ্যে কোনো ভুল নেই। কিন্তু তা বলে বিনা প্রমাণে তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে যা খুশি বলার এক্তিয়ার কারোর নেই বলে স্পষ্ট বার্তা দেন তৃণমূল নেত্রী।“আমি যা বলেছি তা আমি দলের আভ্যন্তরীণ বৈঠকে দলের কর্মীদের বলেছি, আমি যদি আমার দলের কর্মীদের নিয়মানুবর্তীতা শেখাতে চাই তার মধ্যে ভুল কোথায়? আমার দলের কর্মীরা সরকারি প্রকল্পের অপব্যবহার করছে কিনা তা জানতে চাওয়ার মধ্যে ভুল কোথায়?”, বিধানসভার অধিবেশন থেকে প্রশ্ন করেন ক্ষুব্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(CM)।প্রায় এক সপ্তাহ ধরে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় ”কাট মানি” ইস্যুতে প্রতিবাদ আন্দোলন চলছে।মানুষ তৃণমূল কর্মী ও নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের কাছ থেকে সরকারি প্রকল্পের নামে নেওয়া টাকা অর্থাত্ ”কাট মানি” (Cut money) ফেরত চাইছেন।

নিজের দলকে মানুষের দল বলে সম্বোধন করে মুখ্যমন্ত্রী(CM) বলেন,“যে কেউ বিনা প্রমাণে যা খুশি বলতে থাকবে তা মেনে নেওয়া যায় না”।

পাশাপাশি বিরোধী দল বিজেপির সমালোচনা করে তৃণমূল নেত্রী বলেন ওই দল বাংলায় অপসংস্কৃতির আমদানি করার চেষ্টা চালাচ্ছে।“বিজেপিকে(BJP) ভোট দেওয়ার পর ভাটপাড়ার অবস্থা কি দাঁড়িয়েছে তা মানুষ দেখতে পাচ্ছেন। আমি মনে করি আমাদের সবার একসঙ্গে হয়ে (তৃণমূল,কংগ্রেস,সিপিএম)বিজেপির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো উচিত।তবে এর মানে এই নয় যে আমরা রাজনৈতিক জোট গঠনের কথা বলছি, কিন্তু সাধারণ ইস্যুতে আমরা একসঙ্গে প্রতিবাদ করতেই পারি”,বলেন তৃণমূল নেত্রী।

তৃণমূলের একসময়ের ঘাঁটি বলে পরিচিতি ভাটপাড়া(Bhatpara) নির্বাচন পরবর্তী পরিস্থিতিতে বারবার উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।একের পর এক রাজনৈতিক হিংসায় জড়িয়ে পড়েছে যুযুধান দুই দল তৃণমূল(TMC) ও বিজেপি(BJP)।একসময় তৃণমূল কংগ্রেসে থাকা অর্জুন সিং দলবদল করে বিজেপিতে যাওয়ার পর গেরুয়া দলের টিকিটে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করেন।তারপরেই আরও অবনতি হয়েছে ভাটপাড়ার বলে অভিযোগ।প্রসঙ্গত, ভাটপাড়া ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যেই পড়ে।

“যাঁরা গুজব ছড়াতে চাইছেন বা ছড়াচ্ছেন এবং গুরুতর রাজনৈতিক হিংসা বাধাতে চাইছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে রাজ্য প্রশাসন কড়া ব্যবস্থা নেবে”,হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(CM Mamata Banerjee)।