রাজীব কুমারের সন্ধানে তল্লাশি সিবিআইয়ের, শুক্রবার হাজিরার নির্দেশ

Saradah Chit Fund Scam: রাজীব কুমারের সন্ধান পেতে সাহায্য চেয়ে রাজ্য পুলিশের ডিজি, মুখ্যসচিব এবং স্বরাষ্ট্রসচিবকে চিঠি দিয়েছে সিবিআই

রাজীব কুমারের সন্ধানে তল্লাশি সিবিআইয়ের, শুক্রবার হাজিরার নির্দেশ

শুক্রবার সকাল ১১টায় হাজিরা দিতে বলা হয়েছে রাজীব কুমারকে (ফাইল)

কলকাতা:

রাজীব কুমারের (Rajeev Kumar) সন্ধানে কলকাতার বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালাল সিবিআই (CBI) , পাশাপাশি তাঁকে শুক্রবার সকাল ১১টায় হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সারদাকাণ্ডে  (Saradah Scam) সিবিআইয়ের চূড়ান্ত চার্জশিট জমা দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় নথি লুকানোর অভিযোগ রয়েছে রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে, বেশ কয়েকবার তাঁকে নোটিশ পাঠালেও, হাজির হননি তিনি। পাশাপাশি তিনি কোথায় রয়েছেন, তারও সন্ধান করতে পারছে  না তদন্তকারী সংস্থা। বৃহস্পতিবার আলিপুরে এই আইপিএস আধিকারিকের বাড়ি এবং ইএম বাইপাসের একটি পাঁচতারা হোটেলেও রাজীব কুমারের সন্ধানে তল্লাশি চালান সিবিআইয়ের তদন্তকারীরা। তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানার দাবিতে, এদিন আদালতের দ্বারস্থ হয় সিবিআই।

ডিজিপির কাছে রাজীব কুমারের সঙ্গে যোগাযোগের ফোন নম্বর চাইল সিবিআই

রাজীব কুমারের সন্ধান পেতে সাহায্য চেয়ে রাজ্য পুলিশের ডিজি, মুখ্যসচিব এবং স্বরাষ্ট্রসচিবকে চিঠি দিয়েছে সিবিআই। ডিজির তরফে সিবিআইকে জানানো হয়েছে, ৯ সেপ্টেম্বর থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর ছুটিতে রয়েছেন রাজীব কুমার। গত সপ্তাহে শুক্রবার তাঁর, গ্রেফতারি থেকে সুরক্ষা প্রত্যাহার করে কলকাতা হাইকোর্ট, তারপর তাঁকে একাধিকবার নোটিশ পাঠালেও হাজির হননি কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার।

আগাম জামিন পেলেন না কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার রাজ্য পুলিশের ডিজির থেকে রাজীব কুমারের কনট্যাক্ট ডিটেইল চেয়েছে সিবিআই। সোমবার সিবিআইকে পাঠানো চিঠিতে, ডিজি উল্লেখ করেন, রাজীব কুমারের বাড়িতে তাঁকে পাঠানো নোটিশ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে, তবে কোনও উত্তর আসেনি। চিঠিতে রাজ্য পুলিশের ডিজি বলেন, আইনজীবীর মাধ্যমে রাজীব কুমার তাঁকে জানিয়েছেন, ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ছুটিতে যাবেন তিনি এবং তাঁর জন্য আইনি সুরক্ষা গ্রহণ করবেন।

বেশী হারে ফেরৎ-এর প্রলোভন দেখিয়ে, সারদা সংস্থার বিরুদ্ধে বাজার থেকে টাকা অবৈধভাবে টাকা তোলার অভিযোগ ওঠে, এই কেলেঙ্কারিতে প্রায় ২৫০০ কোটি টাকা তছরূপের অভিযোগ রয়েছে।

২০১৪-এ সারদাসহ অন্যান্য চিটফান্ড কেলেঙ্কারির তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। তার আগে, চিটফান্ডগুলির তদন্তে বিশেষতদন্তকারী দল বা সিট গঠন করেছিল রাজ্য সরকার। সেই সিটের সদস্য ছিলেন রাজীব কুমার।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)