ডিজিপির কাছে রাজীব কুমারের সঙ্গে যোগাযোগের ফোন নম্বর চাইল সিবিআই

Saradha Scam Case: গত শুক্রবারই কলকাতা হাইকোর্ট প্রাক্তন পুলিশ কর্তাকে রাজীব কুমারের গ্রেফতারি থেকে দেওয়া সুরক্ষা প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

ডিজিপির কাছে রাজীব কুমারের সঙ্গে যোগাযোগের ফোন নম্বর চাইল সিবিআই

Saradha Scam Case: রাজীব কুমারকে হাজিরার জন্যে সিবিআই নোটিস পাঠালেও এখনও পর্যন্ত তা অগ্রাহ্য করেছেন তিনি। (ফাইল চিত্র)

কলকাতা:

রাজীব কুমারকে (Rajeev Kumar) বাগে পেতে মরিয়া কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআই। একটি সূত্র মারফৎ খবর এবার রাজ্যের ডিরেক্টর জেনারেল অফ পুলিশকে কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের যোগাযোগ সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য সরবরাহ করতে বলল তদন্ত সংস্থাটি । এই বিষয়ে একটি চিঠি পশ্চিমবঙ্গের শীর্ষ পুলিশকে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে, যেখানে রাজীব কুমারের সঙ্গে যোগাযোগ করা যেতে পারে এমন ফোন নম্বর চাওয়া হয়েছে। ক্রমাগতই সারদা মামলার (Saradha Scam Case) পরিপ্রেক্ষিতে হওয়া তদন্তে সিবিআইয়ের সামনে হাজিরা এড়াচ্ছেন রাজীব কুমার। হাজিরার জন্যে সিবিআইয়ের (CBI) তরফ থেকে কলকাতা পুলিশের প্রাক্তন কমিশনারকে নোটিসও দেওয়া হয়েছে, তবুও গরহাজির রাজীব।  সিবিআই সূত্র মারফৎ জানা গেছে, রাজীব কুমারকে সন্ধানের জন্য সিবিআই একটি বিশেষ দল গঠন করেছে।

আগাম জামিন পেলেন না কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার

গত শুক্রবারই কলকাতা হাইকোর্ট প্রাক্তন পুলিশ কর্তাকে গ্রেফতারি থেকে দেওয়া সুরক্ষা প্রত্যাহার করে নিয়েছে। এরপর সিবিআই রাজীব কুমারকে নোটিস দেওয়া সত্ত্বেও তিনি তদন্ত সংস্থার সামনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য উপস্থিত হননি ।

এরপর বারাসত জেলা ও দায়েরা আদালতেও আগাম জামিন পাননি রাজীব কুমার। বারাসত দায়েরা বিচারক এস রশিধি জানান, যেহেতু আলিপুর আদালতে চিটফান্ড মামলা চলছে, ফলে রাজীব কুমারকে আগাম জামিন দেওয়ার তাঁদের কোনও অধিকার নেই। সারদা কেলেঙ্কারির তদন্তে সহযোগিতার জন্য হাজিরার দিতে বলে রাজীব কুমারকে নোটিস পাঠায় সিবিআই । তারপরেই, আগাম জামিনের আবেদন জানিয়ে বারাসাত আদালতের দ্বারস্থ হন তিনি। এর আগে, রাজীব কুমারের আবেদন শুনতে রাজি হননি বিশেষ বিচারক সঞ্জীব তালুকদার, তিনি জানিয়ে দেন, আগাম জামিনের আবেদন শোনার তাঁর কোনও এক্তিয়ার নেই।

রাজীব কুমারের খোঁজে বিশেষ দল তৈরি করল সিবিআই: সূত্র

সাংসদ ও বিধায়কদের বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলার বিচারের দায়িত্বে থাকা বিশেষ আদালত জানায়, তারা একটি ট্রায়াল কোর্ট, ফলে তারা জামিনের আবেদনের শুনানি করতে পারে না। পাশাপাশি জানানো হয়, রাজীব কুমার, বারাসাত জেলা দায়েরা আদালতে আগাম জামিনের আবেদন করতে পারেন।

এর আগে সোমবার পশ্চিমবঙ্গ ডিজিপির পক্ষ থেকে একটি চিঠিতে সিবিআইকে জানানো হয় যে রাজীব কুমারের সরকারি বাসভবনে নোটিস পাঠানো হয়েছে। যদিও এখনও পর্যন্ত তাঁর কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি, উত্তরের অপেক্ষায় রয়েছেন তাঁরা, জানিয়েছে সূত্র।

ওই চিঠিতে ডিজিপি একথাও বলেন যে রাজীব কুমার এর আগে তাঁর আইনজীবীর মাধ্যমে তাঁকে জানিয়েছিলেন যে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনি ছুটিতে আছেন। চিঠিতে আরও বলা হয়েছে যে কুমার আইনি পদক্ষেপের ব্যাপারগুলিই অনুসন্ধান করছেন।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)