গণপিটুনি রুখতে বিল আনছে রাজ্য সরকার

রাজ্যে গণপ্রহার (lynching) আটকাতে এবার কড়া পদক্ষেপ নিতে চলেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার । আসছে নয়া আইন।

গণপিটুনি রুখতে বিল আনছে রাজ্য সরকার

গণপিটুনি ঠেকাতে এবার কড়া বিল আনছে রাজ্য সরকার।

কলকাতা:

রাজ্যে গণপ্রহার (lynching) আটকাতে এবার কড়া পদক্ষেপ নিতে চলেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার । আসছে নয়া আইন। জানা গিয়েছে, গণপ্রহার ঠেকাতে চলতি মাসের ৩০ তারিখ বিধানসভায় বিল পেশ করা হবে। মঙ্গলবার শাসকদল তৃণমূলের এক শীর্ষ নেতা বলেন, ‘গণপ্রহার আটক বিলের উদ্দেশ্য দুর্বল ব্যক্তিদের সাংবিধানিক অধিকার রক্ষা করা। একই সঙ্গে গণপ্রহারের ঘটনা রোধ করা। আইনের মাধ্যমে এই অপরাধে জড়িতদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তাব থাকছে।' জানা গিয়েছে, বিলে গণপিটুনির ক্ষেত্রে কড়া শাস্তির কথা থাকছে। গণপ্রহারে মৃত্যু হলে, অপরাধীদের বিরুদ্ধে সশ্রম যাবজ্জীবন ও ১ লক্ষ থেকে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে। গণপ্রহারে আহত হলে যে বা যারা করবে তাদের ৩ বছরের জেল এবং ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে।

প্যারা-টিচারদের পুলিশি হেনস্থা, বিধানসভা থেকে ওয়াক আউট বাম-কংগ্রেসের

সূত্রের খবর, প্রস্তাবিত গণপ্রহার বিরোধী বিলে রাজ্য পুলিশের মহানির্দেশক কোঅর্ডিনেটর বা সমন্বয়সাধকের কাজ করবেন। রাজ্যে তিনি নোডাল অফিসারের ভূমিকায় থাকবেন ও গণপ্রহারের ঘটনা ঠেকাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন। জেলা পুলিশ সুপারের আওতায় ও কমিশনারেটগুলিতে এমন সমস্যা মোকাবিলার জন্য পৃথক নোডাল অফিসার থাকবেন। পাশাপাশি, জেলায় ও কমিশনারেটে তৈরি করা হচ্ছে টাস্ক ফোর্স। যারা এই গণপিটুনির বিষয়ে নজরদারি চালাবে।

সম্প্রতি রাজ্যে ছেলেধরা গুজবকে কেন্দ্র করে বা চোর সন্দেহে গণপিটুনির বিভিন্ন ঘটনা সামনে এসেছে। গণপ্রহারে মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেছে। তারপরই রাজ্যে গণপিটুনি রুখতে উদ্যোগী তৃণমূল সরকার।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News