আমরা কোনওদিন বলিনি ফাইনাল সেমিস্টার পরীক্ষা নেবো না: পার্থ চট্টোপাধ্যায়

শুক্রবার তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী

আমরা কোনওদিন বলিনি ফাইনাল সেমিস্টার পরীক্ষা নেবো না: পার্থ চট্টোপাধ্যায়

ফাইল ছবি।

কলকাতা:

রাজ্য সরকার কোনওদিন বলেনি তারা ফাইনাল সেমিস্টার আয়োজনের পক্ষপাতী নয়। শুক্রবার এভাবে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের প্রেক্ষিতে অবস্থান স্পষ্ট করলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী। ইউজিসির সুপারিশ মেনে দেশের সব কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়কে স্নাতকস্তরের ফাইনাল সেমিস্টার নিতে নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। শীর্ষ আদালতের বিচারপতি অশোক ভূষণ বেঞ্চের মন্তব্য, "পরীক্ষা না নিয়ে সার্টিফিকেট দেওয়া যায় না। তাই আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কোনও রাজ্য পরীক্ষা নিতে অসমর্থ হলে, তারা ইউজিসি বলে নতুন দিনক্ষণ চূড়ান্ত করুক।" সেই প্রেক্ষিতে এদিন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, "আমাদের রাজ্য বলেছিল, তখনই পরীক্ষা নিতে পারবো যখন করোনা সঙ্কট একটু নিয়ন্ত্রণে আসবে।" তাঁর দাবি, "রাজ্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সহ-উপাচার্য ও কলেজের অধ্যক্ষের সঙ্গে আমরা কথা বলছি। তার আগে সুপ্রিম কোর্টের রায় খতিয়ে দেখতে চাই।"

এদিকে, শুক্রবার তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী। ভার্চুয়াল সেই জনসভার মঞ্চ থেকেও কেন্দ্রের এই পরীক্ষা বিধি নিয়ে তোপ দাগলেন মুখ্যমন্ত্রী। পুজোর আগে কীভাবে ঝুলে থাকা সেমিস্টার পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব, তা দেখতে শিক্ষামন্ত্রীকে দায়িত্ব দেন মুখ্যমন্ত্রী।

শুক্রবার সকালে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে, চলতি বছরের মধ্যেই কলেজগুলোকে তাদের চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা আয়োজন করতে হবে। তবে শীর্ষ আদালত একথাও বলেছে, করোনা সঙ্কটের কারণে রাজ্য চাইলে পরীক্ষা গ্রহণের তারিখ ৩০ সেপ্টেম্বরের পরে পিছিয়ে দেওয়ার জন্য ইউজিসিকে অনুরোধ করতে পারে। আদালত জোর দিয়ে বলেছে যে, "রাজ্য কিছুতেই ছাত্রছাত্রীদের চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা ছাড়া পরবর্তী বছরে উত্তীর্ণ করতে পারে না।" মূল কথা হ'ল সব পরীক্ষার্থীকেই চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা দিতে হবে; রাজ্যগুলো কিছুদিন তা স্থগিত রাখতে পারে তবে তা সম্পূর্ণ রূপে বাতিল করতে পারে না।

মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী আদিত্য ঠাকরের যুব সেনা সহ একাধিক রাজ্যের তরফে আবেদন করা হয়েছিলো, কোভিড -১৯ এর কারণে পরীক্ষা বাতিল করা হোক। বর্তমান সংকটের কারণে সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাওয়ায় শিক্ষার্থীরা যেসব সমস্যার মুখোমুখি হয়েছিল তাও উল্লেখ করা হয় সুপ্রিম কোর্টে করা ওই আবেদনে। তাদের যুক্তি ছিলো যে ছাত্রছাত্রীরা পাঁচটি সেমিস্টারে যে নম্বর পেয়েছে তার একটি গড় করে চূড়ান্ত পরীক্ষা ছাড়াই ফল ঘোষণা করা হোক।

Newsbeep

কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট শুক্রবার সেই আবেদন নাকচ করে দিয়ে জানিয়েছে যে "অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নই যথেষ্ট নয়।"

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন বা ইউজিসি বলেছিলো যে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব কলেজগুলোকে চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা নিতে হবে। তারা এই যুক্তি দেয় যে "ছাত্রছাত্রীদের পড়াশুনোর ভবিষ্যৎ রক্ষায় এই পরীক্ষাগুলো নেওয়া আবশ্যিক এবং পরীক্ষা ছাড়া কোনও ডিগ্রি দেওয়া যায় না।"