This Article is From Jun 27, 2020

তরুণ প্রতিভাদের পাশে দাঁড়াতে ফাউন্ডেশন গড়তে চলেছে সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবার

প্রয়াত অভিনেতা পৈতৃক ভিটে পাটনার রাজীব নগরে স্থাপন করা হবে সুশান্ত সিং রাজপুত ফাউন্ডেশন

তরুণ প্রতিভাদের পাশে দাঁড়াতে ফাউন্ডেশন গড়তে চলেছে সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবার

সুশান্ত সিং রাজপুতের ইনস্টাগ্রাম থেকে নেওয়া একটা ছবি। (সৌজন্য sushantsinghrajput)

হাইলাইটস

  • "ওর শৈশবের শহরে তৈরি করা হবে স্মারক সংগ্রহশালা", জানাল সুশান্তের পরিবার
  • "সেখানে থাকবে ওর ব্যবহার ও সংগ্রহ করা সামগ্রি", উল্লেখ বিবৃতিতে
  • তরুণ প্রতিভাদের বিকাশে তৈরি হবে ফাউন্ডেশন। জানিয়েছে রাজপুত পরিবার
মুম্বই:

তরুণ প্রতিভাদের পাশে দাঁড়াতে ফাউন্ডেশন গড়তে চলেছে সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবার (Sushant Singh's family statement)। শনিবার বিবৃতি দিয়ে একথা জানানো হয়েছে। প্রয়াত অভিনেতা পৈতৃক ভিটে পটনার রাজীব নগরে স্থাপন করা হবে সুশান্ত সিং রাজপুত ফাউন্ডেশন (SSR foundation in Patna)। সিনেমা, ক্রীড়া আর বিজ্ঞান- এই তিন ক্ষেত্রের উঠতি প্রতিভাবানদের প্রতিষ্ঠিত করতে এই ফাউন্ডেশন কাজ করবে। এমনটাই ওই বিবৃতিতে উল্লেখ। সিনেমা, ক্রীড়া আর বিজ্ঞান, এই তিনটি ক্ষেত্রই সব থেকে প্রিয় ছিল সুশান্তের। এমনটাই পরিবার সূত্রে দাবি। তাঁর মৃত্যুর প্রায় দু'সপ্তাহ বাদে প্রকাশ করা এই পারিবারিক বিবৃতিতে উল্লেখ, "শুধু ফাউন্ডেশন নয়। সুশান্তের ব্যবহার করা সামগ্রিগুলো দিয়ে একটা স্মারক সংগ্রহশালা তৈরি করা হবে রাজীব নগরে (Sushant Singh memorial)। সেখানে তাঁর খুব কাছের টেলিস্কোপটাও (Telescope) থাকবে। গল্পের বই এবং এমএস  ধোনির শ্যুটিংয়ের সময় সংগ্রহ করা কিছু ক্রীড়া সামগ্রিও রাখা হবে সেই স্মারক সংগ্রহশালায়।"
পড়ুন সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবারের বিবৃতি:

"আমাদের কাছে সুশান্ত সিং রাজপুত ছিলেন ফুলের বাগিচা। অত্যন্ত মুক্ত-আত্মা, বাগ্মী এবং উজ্জ্বল একটা ব্যক্তিত্ব। অত্যন্ত উৎসাহপ্রবণ ছিলেন সুশান্ত সিং। বন্ধনহীন স্বপ্ন দেখতেন আর সিংহ হৃদয় নিয়ে ও সেই স্বপ্নপূরণের জন্য ছুটতেন। রাজপুত পরিবারের কাছে অনুপ্রেরণা ও গর্বের আরও এক নাম ছিল সুশান্ত সিং রাজপুত। ওর টেলিস্কোপ ছিল জগত। যার মধ্যে দিয়ে তারাদের সঙ্গে কথা বলতেন সুশান্ত। আমরা এখনও নিজেদের প্রস্তুত করতে পারিনি এটা ভেবে, যে ফোনের ওপার থেকে ওর সেই সরল হাসি আর শুনতে পারব না। ওর চোখের সেই গভীরতা দেখতে পারব না। বিজ্ঞান চর্চা নিয়ে ওর উৎসাহ আর চাক্ষুস করতে পারব না। ওর মৃত্যু পরিবারে এক গভীর শূন্যস্থান তৈরি করল, যা কোনওদিন পূরণ হওয়ার নয়। আপনাদের ধন্যবাদ আমাদের এই বাগানকে ভালোবাসা দিয়ে সতেজ রাখার জন্য।"

"ওর কীর্তি ও স্মৃতিকে সম্মান জানাতে পরিবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সুশান্ত সিং রাজপুত ফাউন্ডেশন তৈরি করবে। তরুণ প্রতিভার বিকাশে কাজ করবে এই ফাউন্ডেশন। ওর খুব কাছের সিনেমা, ক্রীড়া ও বিজ্ঞানক্ষেত্রের প্রতিবাদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে এই ফাউন্ডেশন।"

"পাশাপাশি ওর শৈশবের শহরে রাজীব নগরে তৈরি করা হবে স্মারক সংগ্রহশালা। ওর সংগ্রহ ও ব্যবহার করা জিনিস রাখা হবে সেই সংগ্রহশালায়। থাকবে বই, সেই টেলিস্কোপ-সহ অন্য সামগ্রি। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি ওর কীর্তিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সুশান্ত সিংয়ের ইনস্টাগ্রাম, ফেসবুক ও টুইটার পেজ আমরা চালু রাখব। সবশেষে আবার ধন্যবাদ জানাতে চাই। ওর পাশে এবং ওর অবর্তমানে আমাদের পাশে থাকার জন্য।"

এদিকে, পরিবার সূত্রে খবর ১৪ জুনের দুর্ঘটনার পর সহকর্মী ও বন্ধু হিসেবে একমাত্র অঙ্কিতা লোখাণ্ডে ও কৃতী শ্যানন সুশান্তের সিংয়ের পরিবারের সঙ্গে পাটনার বাড়ি এসে দেখা করে গিয়েছে। তাঁর বাবার দাবি, "হয়তো রিয়া চক্রবর্তী কাজে ব্যস্ত, তাই সময় হয়নি খোঁজ নেওয়ার।" 

(আপনার পরিচিতির মধ্যে কেউ মানসিক অবসাদগ্রস্ত হলে নিকটবর্তী মানসিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যোগাযোগ করুন)

হেল্পলাইনস: AASRA: 91-22-27546669 (24 hours) Sneha Foundation: 91-44-24640050 (24 hours) Vandrevala Foundation for Mental Health: 1860-2662-345 and 1800-2333-330 (24 hours) iCall: 022-25521111 (Available from Monday to Saturday: 8:00am to 10:00pm) Connecting NGO: 18002094353 (Available from 12 pm - 8 pm)