কোভিড-১৯ আক্রান্ত রাম জন্মভূমি ট্রাস্টের প্রধান নৃত্য গোপাল দাস! ভূমিপুজোয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মঞ্চে ছিলেন তিনি

মঞ্চে ছিলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেল এবং বিজেপির আদর্শিক পরামর্শদাতা, রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) প্রধান মোহন ভাগবত।

কোভিড-১৯ আক্রান্ত রাম জন্মভূমি ট্রাস্টের প্রধান নৃত্য গোপাল দাস! ভূমিপুজোয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মঞ্চে ছিলেন তিনি

রাম জন্মভূমি ট্রাস্টের প্রধান নৃত্য গোপাল দাস করোনাভাইরাস পজিটিভ! তিনি গত সপ্তাহেই অযোধ্যাতে মন্দিরের ভূমিপুজোর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে একই মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। গত ৫ অগাস্ট উত্তর প্রদেশের অযোধ্যায় মন্দিরের ভূমিপুজোর বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে মঞ্চে উপস্থিত পাঁচ জন ব্যক্তির মধ্যে মহন্ত নৃত্য গোপাল দাস ছিলেন অন্যতম। মঞ্চে থাকা অন্যরা হলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেল এবং বিজেপির আদর্শিক পরামর্শদাতা, রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) প্রধান মোহন ভাগবত।

অনুষ্ঠানের কিছুদিন আগেই, রাম জন্মভূমি চত্ত্বরে দায়িত্বে থাকা একজন পুরোহিত প্রদীপ দাস এবং ১৪ জন পুলিশকর্মীর দেহেও করোনাভাইরাস পজিটিভ ধরা পড়ে।

গত বুধবার বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মোদি অযোধ্যাতে রাম মন্দিরের জন্য প্রথম ইঁট স্থাপন করেন। ক্ষমতাসীন বিজেপির মূল প্রতিশ্রুতিগুলির মধ্যে অন্যতম ছিল রামের মন্দির নির্মাণ। সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ করে মন্দিরের “ভূমি পূজন” বা ভূমিপুজোর অনুষ্ঠানে অংশ নিতে ২৯  বছর পরে অযোধ্যা শহরে আসেন নরেন্দ্র মোদি।

বিজেপি বহু বছর ধরে বিতর্কিত জমিতে রাম মন্দিরের স্থাপনার জন্য দাবি জানিয়ে এসেছে। ১৯৯২ সালে ওই স্থানে অবস্থিত বাবরি মসজিদটি গুঁড়িয়ে দেয় উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা। তাঁদের দাবি অনুযায়ী, মসজিদটি নাকি একটি মন্দিরের ধ্বংসাবশেষের উপরে নির্মিত হয়েছিল যা আদতে হিন্দুদের দেবতা রামের জন্মস্থান। গত বছর সুপ্রিম কোর্ট বিতর্কিত ২.৭৭ একর জায়গাটিতে রামমন্দির নির্মাণের রায় দেয়।