This Article is From May 18, 2020

"সবাই নিরাপদ থাকুন!" আম্ফান পর্যালোচনা বৈঠক শেষে টুইট প্রধানমন্ত্রীর

এদিকে, আগামী ২১ মে পর্যন্ত মৎস্যজীবীদের গভীর সমুদ্রে যেতে নিসেশ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চলছে উপকূল এলাকায় উদ্ধারকাজ

আম্ফান প্রস্তুতি পর্যালোচনা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহও।

নয়া দিল্লি:

ঘূর্ণিঝড় (Cyclone Amphan) থেকে যাতে সকলে নিরাপদ থাকে, সেই প্রার্থনা করলাম। সোমবার টুইট করে জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Modi tweets)। বঙ্গোপসাগরে তৈরি অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় ঘুম কেড়েছে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর। বুধবার সকালের মধ্যে বাংলা-ওড়িশা উপকূলে আছড়ে পড়ার কোথা আম্ফানের। সেই ডেডলাইন মাথায় রেখে কেন্দ্রীয় স্তরে চলছে চূড়ান্ত প্রস্তুতি। সেই প্রস্তুতি পর্যালোচনা বৈঠকে সোমবার যোগ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী । ছিলেন ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌবা। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা পিকে সিনহা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর (NDRF) আধিকারিকরাও। বৈঠক শেষে টুইট করে প্রধানমন্ত্রী লেখেন, "সাইক্লোন আম্ফানের প্রস্তুতি বৈঠক পর্যালোচনা করলাম। পরিকল্পনামাফিক চলছে উদ্ধারকাজ। আমি সবার নিরাপত্তার জন্য প্রার্থনা করেছি। কেন্দ্রীয় তরফে সব ধরনের সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হল।"

এদিকে, আগামী ২১ মে পর্যন্ত মৎস্যজীবীদের গভীর সমুদ্রে যেতে নিসেশ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চলছে উপকূল এলাকায় উদ্ধারকাজ। 

দেখুন সেই টুইট: 

জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যে শক্তি বাড়িয়ে ফেলেছে ঘূর্ণিঝড় আমফান আর কিছু ঘণ্টার মধ্যেই সে পরিণত হচ্ছে সুপার সাইক্লোনে। মারাত্মক শক্তিশালী ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে এখন। আগামী ১২ ঘণ্টায় এটি সুপার সাইক্লোনে পরিণত হবে। এর নিজস্ব ঘূর্ণাবর্তের গতিবেগ ২৩০ কিলোমিটারে পৌঁছে যাবে আজই। মধ্য বঙ্গোপসাগরে এর গতিবেগ ২৫০ থেকে ২৬৫ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা পর্যন্ত হতে পারে। এই মারাত্মক ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় আমফান এখন দিঘা থেকে ৯৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিমে ও পারাদ্বীপ থেকে ৭৯০ কিলোমিটার এবং বাংলাদেশের খেপুপাড়া থেকে ১০৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থান করছে। ২০ তারিখই প্রবল শক্তি নিয়ে স্থলভূমিতে দিঘা এবং বাংলাদেশের উপকূল অঞ্চলে আছড়ে পড়বে আমফান।

কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের ৭ জেলা, নদিয়া মুর্শিদাবাদে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস। ভারী বৃষ্টি হতে পারে উত্তরবঙ্গের মালদা ও দুই দিনাজপুরে। মঙ্গলবার কলকাতা সহ ৭ জেলায় ৭০ থেকে ১১০ মিলিমিটার বৃষ্টি হতে পারে। সঙ্গে ৪৫ থেকে ৬৫ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া সন্ধ্যের দিকে এই ঝড়ের গতিবেগ আরও বাড়বে,জানাচ্ছে আবহাওয়া দফতর।

২০ শে মে বুধবার কলকাতা, হাওড়া, হুগলি উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরে ২০০ মিলিমিটার বা তার বেশি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস। বুধবার ভোররাতে ঝড়ের গতিবেগ ১০০কিলোমিটার  প্রতি ঘণ্টায় পৌঁছবে। ক্রমশ বাড়বে ঝড়ের গতিবেগ। পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি কলকাতায় ঝড়ের গতিবেগ ১২০ থেকে ১৪০ কিলোমিটার হতে পারে। কোথাও কোথাও ঝড়ের বেগ ১৫৫ কিলোমিটার হতে পারে। উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় বুধবার বেলা গড়াতেই  ঝড়ের গতিবেগ বেড়ে ১৫৫ থেকে ১৬৫ কিলোমিটার এমনকী ১৮৫ কিলোমিটার পৌঁছতে পারে।

With inputs from PTI