আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় সুপ্রিম কোর্টে জামিনের আবেদন চিদাম্বরমের

INX Media case: তিহার জেলে বন্দি এই কংগ্রেস নেতার জামিনের আবেদন বুধবার দিল্লি হাইকোর্ট প্রত্যাখ্যান করে আদালত বলে যে পি চিদাম্বরম মুক্তি পেলে তিনি সাক্ষীদের প্রভাবিত করতে পারেন

আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় সুপ্রিম কোর্টে জামিনের আবেদন চিদাম্বরমের

৫ অগাস্ট থেকে দিল্লির তিহার জেলে বন্দি রয়েছেন P Chidambaram

নয়া দিল্লি:

আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় সুপ্রিম কোর্টে জামিনের আবেদন করলেন পি চিদাম্বরম, শীর্ষ আদালতের (Supreme Court) তরফে তাঁকে জানানো হয়েছে যে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এই শুনানির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন । তিহার জেলে বন্দি এই কংগ্রেস নেতার (P Chidambaram) জামিনের আবেদন বুধবার দিল্লি হাইকোর্ট প্রত্যাখ্যান করে। আদালত বলেছিল যে পি চিদাম্বরম মুক্তি পেলে তিনি সাক্ষীদের প্রভাবিত করতে পারেন। আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় (INX Media case) কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের পর গত ৫ সেপ্টেম্বর থেকে দিল্লির তিহার জেলে রয়েছেন দেশের প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

পি চিদাম্বরমের হয়ে সওয়াল করেন প্রবীণ আইনজীবী ও কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল। তিনি বিচারপতি এনভি রমনার নেতৃত্বে গঠিত বেঞ্চের সামনে এই মামলার শুনানিটি জরুরি তালিকাভুক্ত করার অনুরোধ জানান।

তিন বিচারপতির বেঞ্চ জানিয়েছে, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরমের হয়ে আইনজীবী সিব্বলের অনুরোধের বিষয়টি তালিকাভুক্তির জন্য প্রধান বিচারপতি গগৈয়ের কাছে প্রেরণ করা হবে।

পি চিদাম্বরমের জামিন নয়, সাক্ষীদের প্রভাবিত করতে পারেন, বলল দিল্লি হাইকোর্ট

এদিকে সিবিআই যখন ওই কংগ্রেস নেতার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত করছে, তখনই এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) এই মামলায় তাঁর বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপের অভিযোগের অনুসন্ধান করছে।

পি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে তিনি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন বিদেশি বিনিয়োগ প্রচার বোর্ডে (এফআইপিবি) ৩০৫ কোটি টাকা দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে ।  ২০০৭ সালে আইএনএক্স মিডিয়ার জন্যে যখন ওই বিপুল পরিমাণ বিদেশি বিনিয়োগ পাস হয় তিনি তখন দেশের অর্থমন্ত্রী ছিলেন, অভিযোগ তাঁর অনুমতিতেই ৩০৫ কোটি টাকা ঢোকে আইএনএক্স মিডিয়ার ঘরে। ওই অভিযোগও উঠেছে যে তাঁর পুত্র কার্তি চিদাম্বরমের অনুরোধেই ওই কাজ করেন পি চিদাম্বরম এবং বিনিময়ে কার্তি মোটা অঙ্কের ঘুষ নেন।

আইএনএক্স মামলায় প্রাক্তন-নীতি আয়োগ প্রধান সহ তিনজনের বিরুদ্ধে সিবিআইকে মামলা করার অনুমতি

বর্তমানে তিহার জেলে বন্দি থাকা পি চিদাম্বরমের হয়ে দিল্লি হাইকোর্টে তাঁর জামিনের আবেদন করেন আইনজীবী। তবে সেই আবেদন খারিজ করে দিল্লি হাইকোর্ট বলে যদিও পি চিদাম্বরমের পক্ষে সাক্ষ্যপ্রমাণ নষ্ট করার কোনও সম্ভাবনা নেই। "তবে তদন্ত যেহেতু উচ্চ পর্যায়ে রয়েছে তাই পি চিদাম্বরম একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি হওয়ায় তাঁর পক্ষে সাক্ষীদের প্রভাবিত করার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায় না"।

দেখুন ভিডিও:

More News