"পাকিস্তানের সঙ্গে কথা বলতেই পারি, কিন্তু টেররিস্তানের সঙ্গে কথা নয়": ভারত

S Jaishankar বলেন যে এটা কাশ্মীরের থেকেও বড় ইস্যু, এবং পাকিস্তানকে মেনে নিতে হবে বর্তমান যুগে সন্ত্রাসবাদকে নীতি হিসাবে ব্যবহার করে দেশ চালানো অসম্ভব।

Jammu and Kashmir: সংবিধানের যে সব ধারাগুলি জম্মু ও কাশ্মীরকে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা দিয়েছিল সেগুলোর প্রসঙ্গে কথা বলেন এস জয়শঙ্কর।

নিউ ইয়র্ক:

পাকিস্তানের সঙ্গে কথা বলতে কোনও সমস্যা নেই, কিন্তু "টেররিস্তান"-এর (Pakistan Terroristan) সঙ্গে কথা বলতে ইচ্ছুক নই, নিউ ইয়র্কে আন্তর্জাতিক মঞ্চে দাঁড়িয়ে স্পষ্টভাবেই জানালেন কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। ইসলামাবাদ কাশ্মীর ইস্যু (Jammu and Kashmir) মোকাবিলায় নিজেদের দেশে রীতিমতো সন্ত্রাসবাদের আঁতুরঘর তৈরি করে ফেলেছে, বললেন তিনি (S Jaishankar)। এস জয়শঙ্কর নিউইয়র্কের এশিয়া সোসাইটির সাংস্কৃতিক সংগঠনের আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত দর্শকদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখতে গিয়েই ওই কথা বলেন তিনি। ভারত যখন জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা রদ করে সেখানকার বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করল এবং রাজ্যটিকে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ এই দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার ঘোষণা করল তখনই ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নিজেদের প্রতিবাদ জানায় পাকিস্তান। শুধু তাই নয়, পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কও হ্রাস করে এবং ভারতীয় হাই কমিশনারকেও তাঁদের দেশ থেকে ফেরত পাঠায়।

পাঞ্জাবের মাটিতে অস্ত্র ফেলেছে পাক ড্রোন, জানাল সূত্র

ভারতের কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্কর জোর দিয়ে বলেন যে পাকিস্তানের সঙ্গে কথা বলতে ভারতের কোনও সমস্যা নেই। "তবে আমাদের টেররিস্তানের সঙ্গে কথা বলতে সমস্যা হচ্ছে এবং আমাদের দাবি হল তাঁরা অন্য কারও দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে যেন কথা না বলে", বলেন তিনি।

বিদেশমন্ত্রী একথাও খুব জোর দিয়ে বলেন যে, ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করার ফলে ভারতের বাহ্যিক সীমানায় কোনও প্রভাব পড়বে না।

"আমরা আমাদের সীমানার মধ্যে থেকেই কিছু পরিবর্তন করার চেষ্টা করছি। কিন্তু পাকিস্তান এতে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে, তাঁরা তাঁদের পাশে চিনকেও পেয়েছে। আমি মনে করি,কাশ্মীর ইস্যু মোকাবিলা করার জন্যে সন্ত্রাসবাদের কারখানা খুলে ফেলেছে পাকিস্তান।  আমার মতে এটা কাশ্মীরের চেয়েও আসলে বড় সমস্যা, আমি মনে করি তাঁরা ভারতের ক্ষতি করতেই সন্ত্রাসবাদে মদত দিচ্ছে"বলেন জয়শঙ্কর ।

কাশ্মীরে ঝামেলা পাকানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ায় রীতিমতো রেগে রয়েছে পাকিস্তান এই কথা উল্লেখ করে কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্কর বলেন যে, এটা কাশ্মীরের ইস্যু নয় বরং তার চেয়েও বড় ইস্যু এবং পাকিস্তানকে মেনে নিতে হবে যে "যে মডেল তাঁরা নিজেরাই তৈরি করেছেন, তা আর থাকবে না। পাকিস্তানকে মেনে নিতে হবে বর্তমান যুগে সন্ত্রাসবাদকে নীতি হিসাবে ব্যবহার করে দেশ চালানো অসম্ভব"।

সন্ত্রাসবাদের ভাল-খারাপ বা কম-বেশি হয় না: বার্তা প্রধানমন্ত্রী মোদির

ক্রমাগত সন্ত্রাসবাদকে মদত দিয়ে চলেছে পাকিস্তান এই কথা আরও একবার উল্লেখ করে বিদেশমন্ত্রী বলেন, 
"জঙ্গিরা তো মাটির নিচে লুকিয়ে কাজ করছে না। সেদেশে এই কাজগুলো প্রকাশ্য দিবালোকেই হয়। জঙ্গিদের শিবিরগুলি কোথায় তা ভাল করেই জানে পাকিস্তান সরকার, আপনিও গুগল করুন, আপনিও খুঁজে পাবেন"।

দেখুন ভিডিও

More News