This Article is From Jul 17, 2019

সল্টলেকে পুরনিগমের মামলায় অস্বস্তিতে তৃণমূল

সম্প্রতি বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের সঙ্গে প্রকাশ্যে বৈঠক করেছেন বিধানগর পুরনিগমের মেয়র তথা তৃণমূল নেতা সব্যসাচী দত্ত(Sabyasachi Dutta) ।

সল্টলেকে পুরনিগমের মামলায় অস্বস্তিতে তৃণমূল

হাইকোর্টের রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্ত।

কলকাতা:

বিধাননগর পুরনিগমে (Bidhannagar Municipal Corporation) বৃহস্পতিবার আস্থা ভোট করা যাবে না, বলে রায় দিল কলকাতা হাইকোর্ট। “আইন অনুযায়ী নোটিশ না পাঠানোয়” আস্থা ভোট বাতিল করে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। এদিনের রায়ে, আদালত জানায়, সব্যসাচী দত্তের (Sabyasachi Dutta) বিরুদ্ধে ৯ জুলাই যে অনাস্থার নোটিশ পাঠানো হয়েছিল, তা আইন সম্মত নয়, কারণ তা পদ্ধতি মেনে করা হয়নি। ৪৮ ঘন্টার মধ্যে তাঁকে নতুন করে নোটিশ পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত, এবং ঘোড়া কেনাবেচা আটকাতে মাত্র দুদিনের সময় দেওয়া হয়। হাইকোর্টের রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্ত (Sabyasachi Dutta) । সম্প্রতি বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের সঙ্গে প্রকাশ্যে বৈঠক করেছেন বিধানগর পুরনিগমের মেয়র তথা তৃণমূল নেতা সব্যসাচী দত্ত।

মেয়রকে নোটিশ পাঠানোর পদ্ধতি নিয়ে হলফনামা চাইল হাইকোর্ট

বিধানগরের মেয়র সব্যসাচী দত্তের বাড়িতে লুচি মাংস খেতে গিয়েছিলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা ছড়ায়। যদিও পুরো বিষয়টিকে সৌজন্য সাক্ষাৎ বলে মন্তব্য করেন দুজনেই। তৃণমূলের তরফে এনিয়ে প্রশ্ন তোলা হয় এবং দল ছেড়ে তাঁকে এই ধরণের সৌজন্য পালন করতে বলা হয়। যদিও দল ছাড়া নিয়ে কোনও উচ্চবাচ্চা করেননি সব্যসাচী দত্ত(Sabyasachi Dutta) ।

মঙ্গলবারই আস্থা ভোটকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা তৈরি হয় উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁয়। বিজেপি-তৃণণমূল-পুলিশ সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয় এলাকা।

বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের সঙ্গে সব্যসাচী দত্তের (Sabyasachi Dutta) ঘনিষ্ঠতা জোড়াফুলে কাঁটা ফুটিয়েছে। পাশাপাশি তাঁর পদ্মবাগানে তাঁর দ্রুত অভিষেক নিয়েও জল্পনা ছড়িয়েছে। যদিও সব্যসাচী দত্তকে বহিষ্কার বা সাসপেন্ড করার মতো কোনও পদক্ষেপ করেনি তৃণমূল কংগ্রেস।

অনাস্থা প্রস্তাবের নোটিশ খারিজের আর্জি জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ সব্যসাচী দত্ত

৯ জুলাই, ৩৫ জন তৃণমূল কাউন্সিলর সব্যসাচী দত্তের(Sabyasachi Dutta) বিরুদ্ধে অনাস্থ আনেন এবং ১৮ জুলাই আস্থা ভোটের দিন ঠিক করেন।

এর আগে বিধানগর পুরনিগমের (Bidhannagar Municipal Corporation) মেয়র সব্যসাচী দত্তকে(Sabyasachi Dutta) পদচ্যূত করতে চেয়ে, নোটিশ পাঠানোর পদ্ধতি নিয়ে হলফনামা তলব করে কলকাতা হাইকোর্ট। পুরনিগমের চেয়রপার্সনকে ওই হলফনামা দিতে বলা হয়েছে। বিধানগর পুরনিগমের(Bidhannagar Municipal Corporation)  মেয়র তথা রাজারহাট-নিউটাউনের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্তকে নোটিশ পাঠান পুর কমিশনার, সেই নোটিশকে চ্যালেঞ্জ করে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন তিনি। সব্যসাচী দত্তের(Sabyasachi Dutta) দাবি, বিশেষ বৈঠকের জন্য তাঁকে যে নোটিশ পাঠানো হয়েছে, তা বেআইনি। সেই কারণে নোটিশটি খারিজ করার  আবেদন জানান সব্যসাচী দত্ত।