Assam NRC: চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ শনিবার, ভাগ্য নির্ধারণ ৪১ লক্ষ অসমবাসীর

শনিবার সকাল ১০ টায় অনলাইনে প্রকাশিত হতে চলেছে চূড়ান্ত অসম নাগরিক তালিকা। প্রথম তালিকা প্রকাশের পর এক বছরেরও বেশি সময় নিয়ে প্রকাশিত হতে চলেছে এই তালিকা।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
Assam NRC: চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ শনিবার, ভাগ্য নির্ধারণ ৪১ লক্ষ অসমবাসীর

Assam NRC: শনিবার প্রকাশিত হবে চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা


গুয়াহাটি: 

হাইলাইটস

  1. শনিবার সকাল ১০ টায় অনলাইনে প্রকাশিত হতে চলেছে চূড়ান্ত অসম নাগরিক তালিকা
  2. তালিয়া প্রকাশিত হতে একবছরের বেশি সময় লেগে গেল
  3. গুজবে কান দেবেন না, বহু দ্বন্দ্ব আছে : অসম পুলিশ

শনিবার সকাল ১০ টায় অনলাইনে প্রকাশিত হতে চলেছে চূড়ান্ত অসম নাগরিক তালিকা (Assam NRC)। প্রথম তালিকা প্রকাশের পর এক বছরেরও বেশি সময় নিয়ে প্রকাশিত হতে চলেছে এই তালিকা। যাতে কোনও অ-ভারতীয় এই তালিকাভুক্ত (Final Citizens' List ) না হন তার জন্যেই এই সময় লেগেছে বলে জানিয়েছে অসম সরকার। প্রসঙ্গত, এই তালিকার বাইরে রয়েছেন ৪১ লক্ষেরও বেশি মানুষ। তাঁদের অবস্থান কী হবে ভবিষ্যতে? এই নিয়ে উত্তেজিত অসমবাসী।

‘৩১শে অগস্টের মধ্যেই চাই', এনআরসি তালিকা প্রকাশের সময়সীমা নিয়ে অনড় সুপ্রিম কোর্ট

দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা তুলে আলাদা দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ঘোষণা করে একটি বিরাট পদক্ষেপ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। আগামী কাল এনআরসি-র চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করে দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ করতে চলেছে মোদি সরকার।

 NDTV-কে রাষ্ট্র মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শনিবার সকাল ১০টা থেকে অনলাইনে এই তালিকা দেখা যাবে। যাঁরা নেট নেই তাঁরা রাজ্য সরকারের সেবা কেন্দ্রে গিয়ে এই তালিকা দেখতে পারবেন।প্রসঙ্গত, নাগরিক বিল প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ১৯৫১ সালে। কংগ্রেস জমানায়। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চের পর থেকে যেসমস্ত বাংলাদেশি নাগরিক বেআইনি ভাবে ভারতে এসে বসবাস করছেন অসমে তাঁদের চিহ্নিত করতেই সেই তালিকা সংশোধনের নয়া নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। 

066962i8

Assam NRC: তালিকা প্রস্তুতির আগে প্রশানের কড়া নজরদারি চলছে অসমে

চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের সময় যাতে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য দু-দিন আগে থেকেই ২০ হাজার বাড়তি সেনাবাহিনি মোতায়েন করা হয়েছে। কোনও জায়গায় একসঙ্গে চারজন মানুষের অবস্থান নিষিদ্ধ করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। কারণ, এর আগে এনআরসি নিয়ে গুয়াহাটির বহু অ়ঞ্চলে হিংসার বলি হয়েছেন বহু মানুষ। বিক্ষোভের আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে জনজীবন। 

EXCLUSIVE: অসমে তৈরি নাগরিকপঞ্জির ওপর ভরসা নেই খোদ বিজেপি-র!

অসম প্রশাসনের পক্ষ থেকে টুইটে সমস্ত অধিবাসীর কাছে আবেদন জানানো হয়েছে, এনআরসি নিয়ে কোনও গুজব না ছড়ানোর। একই সঙ্গে আর্জি জানানো হয়েছে, কেউ যেন গুজবে কান না দেন। এতে ক্ষতি হবে রাজ্য এবং রাজ্যবাসীর।

দেখুন সেই টুইট:

একই সঙ্গে প্রশানের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তালিকায় নাম না থাকা মানেই তাঁরা বিদেশি নন। যে সমস্ত অধিবাসীদের নাম চূড়ান্ত তালিকায় থাকবে না তাঁদের বিদেশ ট্রাইব্যুনালে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করার সুযোগ পাবেন। কেন্দ্রের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে সেই সময়সীমা বাড়িয়ে ৬০ দিন থেকে করা হয়েছে ১২০ দিন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই এক হাজারটি ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়েছে। এখানে নাম নথিভুক্ত না হলে সেই ব্যক্তি দ্বারস্থ হতে পারেন হাইকোর্ট এবং সুপ্রিম কোর্টের। মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কোনোভাবেই তালিকাভুক্ত না হওয়া ব্যক্তিকে শরণার্থী শিবিরে পাঠানো হবে না। একই সঙ্গে আরও জানানো হয়েছে, জেলাস্তর থেকে আইনি সাহায্য পাবেন এই সমস্ত ব্যক্তিরা। 

এদিকে এনআরসি তালিকা থেকে বৃহৎ সংখ্যক হিন্দু নাগরিকের নাম বাদ পড়ার ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছেন অসম বিজেপি নেতারা। এই নিয়ে গত সপ্তাহে রাজ্যর মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল বৈঠক করেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে। এরপরেই তিনি জানান, প্রয়োজনে পুনঃসংশোধিত হয়ে যেসময় বহিরাগতের নাম তালিকায় উঠেছে তাঁদের সরিয়ে নাম তোলা প্রকৃত হিন্দু অসমবাসীর।

NRC Assam: খসড়া তালিকা থেকে বাদ বহু বাঙালি হিন্দু, উদ্বিগ্ন বিজেপি

যদিও বিষয়টি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সারা অসম বাঙালি ঐক্য মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক শান্তনু মুখোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, "আমরা খসড়ায় যা দেখেছি তা কার্যকরী হলে বাঙালি হিন্দুরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হবেন। এর জন্য দায়ী থাকবে সরকার।"



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................