‘জনতা কার্ফু’ চলাকালীন শাহিনবাগে সংঘর্ষ, ছোঁড়া হল পেট্রোল বোমা

পেট্রোল বোমা ছোঁড়ার প্রসঙ্গে পুলিশের বক্তব্য, যে পেট্রোল বোমা ছুঁড়েছে সে জামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে ৭ নম্বর গেটের কাছেও বোমা ছুঁড়েছিল।

‘জনতা কার্ফু’ চলাকালীন শাহিনবাগে সংঘর্ষ, ছোঁড়া হল পেট্রোল বোমা

Coronavirus: শাহিনবাগে (shaheen Bagh) সংঘর্ষ রবিবার সকালে।

হাইলাইটস

  • ‘জনতা কার্ফু’ চলাকালীন দিল্লির শাহিনবাগে সংঘর্ষ দুই গোষ্ঠীর মধ্যে
  • ছোঁড়া হল পেট্রোল বোমাও
  • তবে কেউ হতাহত হননি
নয়াদিল্লি:

করোনা ভাইরাস (Coronavirus) সংক্রমণ রুখতে দেশজুড়ে ‘জনতা কার্ফু' চলাকালীন দিল্লির শাহিনবাগে (Shaheen Bagh) সিএএ (CAA) বিরোধী প্রতিবাদ চলার সময় দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। প্রায় আধঘণ্টা ধরে চলে সংঘর্ষ। শাহিনবাগের ধর্নার পাশেই পুলিশ ব্যারিকেডে কেউ পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে। বোমার বিস্ফোরণে কেউ হতাহত হননি। দুই গোষ্ঠীর মধ্যে এক গোষ্ঠীর দাবি ছিল, প্রধানমন্ত্রী আর্জি মেনে কার্ফু পালন করতে হবে। অন্য গোষ্ঠী তা চায়নি। এই মতান্তরকে কেন্দ্র করেই শুরু হয় সংঘর্ষ। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। পেট্রোল বোমা ছোঁড়ার প্রসঙ্গে পুলিশের বক্তব্য, যে পেট্রোল বোমা ছুঁড়েছে সে জামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে ৭ নম্বর গেটের কাছেও বোমা ছুঁড়েছিল। তবে সেখানেও কেউ আহত হয়নি।

ভারতে করোনায় মৃত বেড়ে ৬, মুম্বই ও বিহারে মৃত্যু দু'জনের

জানা গিয়েছে, পেট্রোল বোমা নিক্ষেপকারী ব্যক্তি বাইকে চড়ে এসেছিল।

শনিবার ‘ইন্ডিয়া ইসলামিক সেন্টার'-এ বিক্ষোভকারীদের নিয়ে পুলিশের বৈঠক হয়। সেখানেও দু'পক্ষের মধ্যে ঝগড়া হয়। একদল চেয়েছিল শাহিনবাগ খুলে দেওয়া হোক। অন্য দল তাতে রাজি ছি‌ল না। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

করোনা মোকাবিলায় রাতারাতি ১৫০ শয্যাবিশিষ্ট অস্থায়ী হাসপাতাল রাজ্যে, টুইট ডেরেক ও'ব্রায়েনের

পুলিশের আপত্তি না শুনে রবিবারও ‘জনতা কার্ফু'-র মধ্যে শাহিনবাগে ৫ থেকে ৬ জন মহিলা বিক্ষোভে অংশ নেন। তবে বাকি কোনও বিক্ষোভকারীকে রবিবার শাহিনবাগে দেখা যায়নি।