কোভিডপর্বে কর্মীদের পরিবারের স্বাস্থ্য ও সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে উদ্যোগী অস্টিন প্লাইউড

সমগ্র অস্টিন পরিবারের জন্য এক স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রা নিশ্চিত করার উদ্দেশে নিয়মিত কাজ করে চলেছে অস্টিন প্লাইউড।

কোভিডপর্বে কর্মীদের পরিবারের স্বাস্থ্য ও সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে উদ্যোগী অস্টিন প্লাইউড
কলকাতা:

কোভিড মধ্যবর্তী সময় এবং কোভিড পরবর্তী সময়ে স্বাস্থ্য হতে চলেছে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনা ও আলোচনার বিষয়। কোভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে কর্মচারী ও তাঁদের পরিবারের জন্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে বিভিন্ন পরিকল্পনাই করেছে নানা সংস্থা। এবার এই কোভিডপর্বে স্বাস্থ্য ও সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে ডিলার, স্থপতি, ঠিকাদার এবং কর্মচারীদের বর্ধিত পরিবারের সাহায্যের জন্য বিশেষ পদক্ষেপ অস্টিন প্লাইউড সংস্থার। অস্টিন প্লাইউডের পরিচালক নিশান্ত আগরওয়াল চিরকালই সংস্থার কাজে উদ্যম এবং আবেগের মিশ্রণে বিশ্বাসী। তিনি বলেন, “আমরা সবসময়ই বিশ্বাস করেছি অস্টিন আসলে একটি বড় পরিবার হিসাবেই গড়ে উঠেছে এবং যতটা পরিবার গড়ে তোলার জন্য কঠোর পরিশ্রম করতে হয়, আমাদের পরিবারের যত্ন নেওয়াও ততটাই গুরুত্বপূর্ণ। এই অনুষ্ঠানটি এমন একটি উদ্যোগ যেখানে আমরা এক সুখী এবং স্বাস্থ্যকর পরিবার নিশ্চিত করতে চাই”।

বক্তাদের এই প্যানেলে ছিলেন পূর্ব ভারতের অন্যতম বিখ্যাত স্বাস্থ্য ও পুষ্টি বিষয়ক পরামর্শদাতা হেনা নাফিস, অন্যতম সেরা ফিটনেস ব্র্যান্ড- রাশ ফিটনেস ক্লাবের অপারেশন ডিরেক্টর নীরজ সুরানা। শুধু তাই নয় নীরজ নিজে একজন ফিটনেস প্রশিক্ষক ও পরামর্শকও। পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন কে১১ আকাডেমি অফ ফিটনেস অ্যান্ড সায়েন্সের প্রশিক্ষক এবং ফিটনেস বিশেষজ্ঞ যশ আগরওয়াল। বিশেষত এই কঠিন সময়ে শারীরিক সুস্থতার গুরুত্ব সম্পর্কেই কথা বলেন আলোচকরা। সুপরিচিত পুষ্টিবিদ, স্বাস্থ্য, সুস্বাস্থ্য এবং ওজন নিয়ন্ত্রণের পরামর্শক শিখা আগরওয়ালও সুস্থ ভারসাম্যযুক্ত ডায়েটের গুরুত্বের উপরেই জোর দেন। শুধু ঠিকঠাক খাবারই নয় এই সময়ে মনের এবং শরীরের সুস্থতার প্রয়োজনীয়তার কথাও তুলে ধরেন যোগ বিশেষজ্ঞ এবং প্রশিক্ষক স্নেহা ঘোষ।

অস্টিন প্লাইউডের লক্ষ্য স্বাস্থ্য এবং সুস্থতার বার্তা ছড়িয়ে দেওয়া এবং সেই কারণেই এমন অনুপ্রেরণামূলক অনুষ্ঠানের উদ্যোগ। সমগ্র অস্টিন পরিবারের জন্য এক স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রা নিশ্চিত করার উদ্দেশে নিয়মিত কাজ করে চলেছে অস্টিন প্লাইউড।