রাজ্যের বিদ্যালয়গুলির পাঠ্যসূচিতে এবার জায়গা পাচ্ছে করোনা ভাইরাস

Chapter On Coronavirus: প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পাঠ্যসূচিতে করোনা সংক্রমণ, সতর্কতা ও প্রতিকার সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় অন্তর্ভুক্ত করার কথা ভাবা হচ্ছে

রাজ্যের বিদ্যালয়গুলির পাঠ্যসূচিতে এবার জায়গা পাচ্ছে করোনা ভাইরাস

West Bengal: ছাত্র-ছাত্রীদের মাধ্যমেই করোনা সম্পর্কে গণসচেতনতা গড়ে উঠবে, মনে করছেন শিক্ষাবিদরা

হাইলাইটস

  • রাজ্যের স্কুলপাঠ্যে করোনা ভাইরাসের অধ্যায় রাখার ভাবনা
  • শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নির্দেশেই তৎপরতা শুরু
  • ২০২১ সালের শিক্ষাবর্ষ থেকেই পাঠ্যসূচিতে করোনা সম্পর্কিত বিষয় রাখার ভাবনা
কলকাতা:

কোভিড -১৯ সম্পর্কে রাজ্যের (West Bengal) পড়ুয়াদের সচেতন করার লক্ষ্যে পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষা দফতর ২০২১ সাল থেকে বিদ্যালয়ের পাঠ্যক্রমে করোনা ভাইরাস (Coronavirus) সম্পর্কিত একটি অধ্যায় (Chapter On Coronavirus) চালু করার কথা ভাবছে, জানিয়েছেন এক সরকারি আধিকারিক। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee) নিজে মনে করেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সবচেয়ে আগে প্রয়োজন মানুষকে এই রোগ থেকে সতর্ক করা এবং যথাযথ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণে উদ্যোগী করে তোলা। তাই পড়ার বইয়ে করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত নানা তথ্য থাকা উচিত। রাজ্য সরকারি স্কুলগুলোর সিলেবাস কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেন, "আমরা সমস্ত সদস্য ও বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করছি।" প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পাঠ্যসূচিতে করোনা সংক্রমণ, সতর্কতা ও প্রতিকার সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় অন্তর্ভুক্ত করার কথা ভাবা হচ্ছে। 

বাড়ছে আতঙ্ক! একদিনের মধ্যে দেশে ৫০৭ জনের প্রাণ কাড়লো করোনা ভাইরাস

অভীক মজুমদার আরও জানিয়েছেন, “ছাত্র-ছাত্রীদের মাধ্যমেই গণসচেতনতা গড়ে ওঠে। বাচ্চারাই অভিভাবকদের সাবধান করতে পারে। করোনা সতর্কতা সিলেবাসে রাখা নিয়ে তাই প্রাথমিক আলোচনা হয়েছে। প্রত্যেক ক্লাসের পাঠ্যবইতে এটি থাকা দরকার। আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশ কার্যকর করার চেষ্টা করা হচ্ছে।” 

আজ Doctors Day, করোনা যোদ্ধাদের প্রধানমন্ত্রী মোদির কুর্ণিশ, টুইট করলেন বিশেষ ভিডিও

"কী কী থাকবে এই পাঠ্যসূচিতে তা নিয়ে আলোচনা করা হবে বিভিন্ন শিক্ষক এবং শিক্ষাবিদদের সঙ্গে। তবে তা ছাড়াও পাঠ্যসূচির সঠিক বিষয়বস্তু নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আমরা চিকিৎসক, ভাইরোলজিস্ট, মহামারী বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকেও মতামত নেওয়ার কথা ভাবছি", একথাও বলেন তিনি।

দেশে লাগাতার বেড়ে চলেছে করোনা ভাইরাসের দাপট। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫০৭ জনের প্রাণ কেড়েছে এই মারণ ভাইরাস। ফলে সব মিলিয়ে ভারতে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ১৭,৪০০ তে পৌঁঁছলো। দেশে এখনও পর্যন্ত মোট ৫,৮৫,৪৯৩ জন মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মঙ্গলবার থেকে বুধবার সকালের মধ্যে নতুন করে কোভিড- ১৯ বাসা বেঁধেছে ১৮,৬৫৩ জনের দেহে।