বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য হিসেবে অধ্যাপক গৌতম চন্দ্রকে নিয়োগের সিদ্ধান্ত রাজ্যপালের

এদিকে উচ্চ শিক্ষা দফতর আশিস পাণিগ্রাহীকে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ করেছে বলে এক সরকারি সূত্র জানিয়েছে।

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য হিসেবে অধ্যাপক গৌতম চন্দ্রকে নিয়োগের সিদ্ধান্ত রাজ্যপালের

সোমবার বগৌতম চন্দ্রকে নিয়োগ করার কথা জানানো রাজ্যপালের তরফে।

রাজ্যপাল ও রাজ্যের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য (Chancellor of State Universities) জগদীপ ধনখড় (Jagdeep Dhankhar) বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের (Burdwan University) সহ-উপাচার্য (Pro-Vice Chancellor) হিসেবে নিয়োগ করেছেন অধ্যাপক গৌতম চন্দ্রকে। ১ জুন, সোমবার বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য হিসেবে গৌতম চন্দ্রকে নিয়োগ করার কথা জানানো হয় রাজ ভবন থেকে। রাজ ভবন থেকে জানানো হয়, বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ১৯৮১-র ৯এ ধারার (১) উপধারা মেনে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য হিসেবে অধ্যাপক গৌতম চন্দ্রকে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য হিসেবে গৌতম চন্দ্রকে নিয়োগ করা হবে চার বছর অথবা তাঁর বয়স ৬৫ হওয়া পর্যন্ত কিংবা পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত। গৌতম চন্দ্র বর্তমানে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের প্রধান।

রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এনিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি। যদিও এর আগে তিনি বারবার রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালগুলির অভ্যন্তরীণ বিষয়ে রাজ্যপালের অনধিকারচর্চা এবং উচ্চ শিক্ষা দফতরের সঙ্গে আলোচনা না করেই সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিষয়ে অভিযোগ তুলেছি‌লেন।

রাজ্যপাল এই ধরনের অভিযোগের জবাবে বরাবরই জানিয়েছেন, তিনি রাজনৈতিক হস্তক্ষেপকে এড়িয়ে সাংবিধানিক ক্ষমতা প্রয়োগ করে বিশ্ববিদ্যালয়গুলির ভালর জন্যই এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এদিকে উচ্চ শিক্ষা দফতর সোমবার রাতে কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যার অধ্যাপক আশিস পাণিগ্রাহীকে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ করেছে বলে এক সরকারি সূত্র জানিয়েছে।

তবে সেই সূত্র সহ-উপাচার্য হিসেবে গৌতম চন্দ্রকে রাজ্যপালের নিয়োগ করা প্রসঙ্গে কোনও মন্তব্য করতে চাননি।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)