উত্তেজনা প্রশমনে PM মোদির পরিকল্পনা শুনতে চান US প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

মঙ্গলবার US প্রেসিডেন্ট Donald Trump আবারও কাশ্মীর নিয়ে "উত্তেজক" পরিস্থিতির মধ্যস্থতার প্রস্তাব দেন।

G7 শীর্ষ সম্মেলনের সময় ফ্রান্সে PM নরেন্দ্র মোদি ও ডোনাল্ড ট্রাম্প বৈঠক করবেন। (ফাইল চিত্র)

হাইলাইটস

  • "খুব কাছ থেকে" আমেরিকা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে , হোয়াইট হাউস
  • এই মাসের শুরুতেই, ভারত জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদাকে বাতিল করেছে
  • প্রধানমন্ত্রী মোদি ও ট্রাম্প ফ্রান্সে G7 শীর্ষ সম্মেলনে মুখোমুখি হবেন
ওয়াশিংটন:

এই সপ্তাহের শেষেই ফ্রান্সে প্রধানমন্ত্রী Narendra Modi এবং Donald Trump মুখোমুখি হবেন। জানা গেছে, সম্ভবত সেই সাক্ষাতের সময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট  প্রধানমন্ত্রী মোদির কাছ থেকে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদ এবং রাজ্যটিকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার সিদ্ধান্তের পর তৈরি হওয়া "আঞ্চলিক উত্তেজনা" হ্রাস করার ব্যাপারে কি পরিকল্পনা করছেন তিনি তা জানতে চাইতে পারেন। বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসের এক আধিকারিক বলেছেন, জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে India Pakistan মধ্যে তৈরি হওয়া সাম্প্রতিক উত্তেজনার পরিস্থিতিকেও নিবিড় ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ওয়াশিংটন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক আধিকারিক বলেন," মার্কিন প্রেসিডেন্ট সম্ভবত প্রধানমন্ত্রী মোদির কাছ থেকে শুনবেন যে তিনি কীভাবে আঞ্চলিক উত্তেজনা হ্রাস করতে এবং কাশ্মীরে মানবাধিকার রক্ষা করতে বিশ্বের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দেশ হিসাবে বিশেষ ভূমিকা নেওয়ার পরিকল্পনা করছেন"।

কাশ্মীর নিয়ে আবারও মধ্যস্থতার কথা মার্কিন প্রেসিডেন্ট Donald Trump-র

দুই দেশই যদি সহমত হয় তবে ভারত ও পাকিস্তানকে "সহায়তা করতে প্রস্তুত" ট্রাম্প, বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউস মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই ইচ্ছার কথা ফের জানিয়েছে। চলতি সপ্তাহের শেষেই ফ্রান্সে জি সেভেন শীর্ষ সম্মেলনের সময় মুখোমুখি হবেন প্রধানমন্ত্রী মোদি এবং ট্রাম্প, সেই সময়েই তাঁরা একটি বৈঠকও করবেন।

"মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কাশ্মীরের পরিস্থিতি খুব নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। আমরা দুই দেশের মধ্যে বাকবিতণ্ডা বন্ধ করে  শান্ত ও সংযমী থাকার আহ্বান জানাচ্ছি," ট্রাম্প প্রশাসনের ওই আধিকারিক জানান এ কথা।

ওই আধিকারিক মতে, ডোনাল্ড ট্রাম্প কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে "অত্যন্ত আগ্রহী"। তিনি (ট্রাম্প) এ কথাও ইঙ্গিত করেছেন যে উভয় পক্ষই একমত হলে তাদের মধ্যে উত্তেজনা হ্রাসে সহায়তা করতে প্রস্তুত। তবে আমরা জানি যে ভারত কোনও তৃতীয় পক্ষের মধ্যস্থতার জন্যে আবেদন করেনি" ।

কাশ্মীর সম্পর্কে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মতামত আর পাঁচটা ভারতীয়ের মতোই: জাভেদ আখতার

তিনি পাকিস্তানকে দুই দেশের সীমানা পেরিয়ে সন্ত্রাসবাদীদের অনুপ্রবেশ বন্ধ করতে এবং অতীতে ভারতের অঞ্চলগুলিতে কড়া আক্রমণ চালানোর  ব্যাপারে নিন্দা করে তা বন্ধ করার জন্যও পাকিস্তানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন", বলেন ওই আধিকারিক।

এদিকে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমমানুয়েল ম্যাক্রোঁ হোয়াইট হাউসের আধিকারিকদের এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে বলেছেন যে ভারত ও পাকিস্তানের উচিত কাশ্মীরের সমস্যা দ্বিপাক্ষিকভাবে সমাধান করা এবং কোনও তৃতীয় পক্ষকে ওই অঞ্চলে সহিংসতা বৃদ্ধিতে "হস্তক্ষেপ বা উস্কানি" দেওয়া উচিত নয়।

More News