সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু রহস্য: বাবার ফোনের পরেই সিবিআই তদন্তের দাবি বিহার সরকারের

“পরিবার যেহেতু সম্মতি দিয়েছে তাই আমরা বিহারে যে এফআইআর হয়েছে তা নিয়ে সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করছি,” এনডিটিভিকে জানিয়েছেন নীতীশ কুমার।

সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু রহস্য: বাবার ফোনের পরেই সিবিআই তদন্তের দাবি বিহার সরকারের

নীতীশ কুমারের সহযোগী লোক জনশক্তি পার্টির চিরাগ পাসওয়ান সকালেই মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন

Patna:

ফোন করে পদক্ষেপ করার জন্য সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা চাপ দেওয়ার পরেই আজ অভিনেতার মৃত্যুর বিষয়ে সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। “পরিবার যেহেতু সম্মতি দিয়েছে তাই আমরা বিহারে যে এফআইআর হয়েছে তা নিয়ে সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করছি,” এনডিটিভিকে জানিয়েছেন নীতীশ কুমার। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে এর আগে মুম্বই পুলিশের তদন্তের পাশাপাশি সিবিআই তদন্তের বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছিলেন। কে কে সিং আজ সকালেই মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ফোনে কথা বলেন। গতকাল সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর শেয়ার করা একটি ভিডিওতে কে কে সিং বলেছিলেন: “২৫ ফেব্রুয়ারি আমি বান্দ্রা পুলিশকে জানিয়েছিলাম যে আমার ছেলের জীবন সংকটে রয়েছে। ও ১৪ জুন মারা গিয়েছে এবং আমি তাদের আমার অভিযোগের তালিকায় থাকা মানুষদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করতে বলেছিলাম। না। ৪০ দিন পরেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। তাই আমি পটনায় একটি এফআইআর করেছি এবং পটনা পুলিশ তদন্তে জড়িত। "

বিহারের ক্ষমতাসীন জোটে নীতীশ কুমারের সহযোগী লোক জনশক্তি পার্টির চিরাগ পাসওয়ান সকালেই মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন। ১০ মিনিটের কথোপকথনে তিনি সিবিআই তদন্তের দাবি জানান। চিরাগ পাসওয়ান সুশান্ত সিং রাজপুতের মতো “বিহারের উজ্জ্বল, মেধাবী সন্তানের” মৃত্যুর মামলায় নীতীশ কুমারের নিষ্ক্রিয়তার সমালোচনায় সোচ্চারও হয়েছেন।

হিন্দি চলচ্চিত্রের ৩৪ বছর বয়সী এই উঠতি তারকা ১৪ জুন মারা যান। মুম্বই পুলিশ জানিয়েছে, এটি আত্মহত্যা এবং চলচ্চিত্র জগতের প্রতিদ্বন্দ্বিতা সুশান্তের হতাশার পিছনে কারণ কিনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। অভিনেতার পরিবার সুশান্তের অ্যাকাউন্ট থেকে অর্থ স্থানান্তর করার অভিযোগ এনে তাঁর বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার পরে বিহার পুলিশ সমান্তরাল তদন্ত শুরু করে।

রবিবার মুম্বইয়ে আসা বিহারের এক আধিকারিককে ‘জোর করে' কোয়ারান্টাইন করার পরে পটনা ও মুম্বই পুলিশের মধ্যে দ্বন্দ্ব তীব্র হয়।

সোমবার মুম্বই পুলিশ জানিয়েছে যে চিকিৎসকদের কাছ থেকে জানা গিয়েছে যে সুশান্ত বাই পোলার ডিসঅর্ডার অসুস্থতার জন্য চিকিত্সাধীন ছিলেন। মুম্বই পুলিশ প্রধানও নিশ্চিত করেছেন যে জীবনের শেষ কয়েকদিনে, সুশান্ত সিং “বেদনাবিহীন মৃত্যু” এবং দিশা সালিয়ান - তাঁর প্রাক্তন ম্যানেজার যিনি ৮ জুন বহুতল থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন, সেই বিষয়ে গুগলে সার্চ করেন। সুশান্ত মৃত্যুর কয়েক ঘন্টা আগে নিজের নামও গুগলে সার্চ করেছিলেন।

বিহারে বিরোধী দল এবং ক্ষমতাসীন জোট দু'পক্ষই সিবিআই তদন্তের আহ্বান জানানোয় মামলাটি রাজনৈতিক মোড় নিয়েছে। গতকাল বিহার বিধানসভায় সুশান্ত সিংয়ের খুড়তুতো ভাই তথা বিজেপির বিধায়ক নীরজ বাবলু অভিনেতার মৃত্যুকে “খুন” বলে অভিযোগ করে সিবিআই তদন্তের দাবি করেছিলেন। বিরোধী নেতা তেজশ্বী যাদব এর সমর্থন করেছিলেন।

চিরাগ পাসওয়ানের দলের সদস্য নাগরিক কর্পোরেশন নূতন সিংও সুশান্ত সিংয়ের সঙ্গে সম্পর্কিত। সূত্রের খবর, আগামীকাল সুপ্রিম কোর্ট রিয়া চক্রবর্তীর আবেদনের শুনানি করার আগে মামলাটি মুম্বইয়ে স্থানান্তরিত করার জন্য তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে সিবিআই তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন।