"রাহুলের সঙ্গে কোনও বৈঠক নেই", শচীন পাইলটের দাবি, উদ্বেগ বাড়ল কংগ্রেসের

তাহলে কি কংগ্রেসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন এখন পাইলটের ভবিতব্য? এই প্রশ্ন উসকে দিচ্ছে রাজনৈতিক মহল

বিজেপিতে তিনি যোগ দিচ্ছেন না। জল্পনা ওড়ালেন পাইলট।

নয়াদিল্লি:

রাজস্থান কংগ্রেসের (Rajasthan Congress) উদ্বেগ আরও বাড়ালেন শচীন পাইলট। এনডিটিভিকে তিনি জানালেন, সোমবার সন্ধ্যায় রাহুল গান্ধির সঙ্গে তাঁর কোনও সাক্ষাতের সূচি নেই। এতেই আরও বাড়ল জল্পনা। তাহলে কি কংগ্রেসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন এখন পাইলটের ভবিতব্য? এই প্রশ্ন উসকে দিচ্ছে রাজনৈতিক মহল। কেন্দ্রীয় তরফে রাজস্থানের উপ-মুখ্যমন্ত্রীর গোঁসা কমাতে সদলবলে জয়পুর পৌঁছেছেন অজয় মাকেন। হাই কমান্ডের থেকে বার্তা গিয়েছে, দরজা খোলা। আসুন কথা বলি আর একসঙ্গে কাজ করি। কিন্তু তারপরেও সিদ্ধান্তে অটল শচীন পাইলট। রাহুল গান্ধির সঙ্গে বৈঠকের সম্ভাবনা উড়িয়ে সেই জল্পনা উসকে দিলেন তিনি। যদিও গান্ধি পরিবার সূত্রের খবর, রাহুল আর শচিনের সম্পর্ক মজবুত আছে। দু'জনেই পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।"

কংগ্রেসের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে বিদ্রোহে ঘোষণাকারী রাজস্থানের উপ-মুখ্যমন্ত্রী শচীন পাইলট NDTV-কে জানিয়েছেন, তিনি "বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন না"।

রবিবার থেকেই এই জল্পনা জোরদার হয় যে, তিনি কংগ্রেস শিবির ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে যাচ্ছেন। এমনকী সোমবার বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডার সঙ্গে বৈঠক করতে পারেন কংগ্রেসের ওই তরুণ তুর্কী, এই খবরও ছড়ায়। জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার মতোই বিক্ষুব্ধ শচীন পাইলটও, রবিবার দিনভর এই জল্পনা নিয়ে বিভিন্ন মহলে আলোচনা চলে। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় বৈঠকে বসছে রাজস্থান কংগ্রেস। সেই জল্পনাই আরও জোরদার হয় যখন ৩০ জন বিধায়কের সমর্থন তাঁর সঙ্গে আছে এই দাবি করা শচীন পাইলট জানিয়ে দেন যে, তিনি কংগ্রেসের এই বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন না। যদিও দলের তরফ থেকে সব বিধায়কদের ওই বৈঠকে হাজির হওয়ার জন্যে হুইপ জারি করা হয়।

এদিকে শচীন পাইলটের বিদ্রোহে দল গোছাতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে রাজস্থান কংগ্রেস। জয়পুরে অশোক গেহলটের বাসভবনে এক বৈঠকের পর গভীর রাতে রাজস্থানের কংগ্রেস মুখপাত্র অবিনাশ পান্ডে জানান, "সোনিয়া গান্ধি এবং রাহুল গান্ধিকে উদ্দেশ্য করে লেখা একটি চিঠিতে দলের মোট ১০৯ বিধায়ক মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটের নেতৃত্বে রাজস্থান সরকারের প্রতি তাঁদের আস্থা ও সমর্থনের কথা জানিয়ে স্বাক্ষর করেছেন। পাশাপাশি আরও কয়েকজন বিধায়ক মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন এবং তাঁরা একথাও জানিয়েছেন যে তাঁরাও সমর্থন জানিয়ে ওই চিঠিতে স্বাক্ষর করবেন"।

২০০ আসন বিশিষ্ট রাজস্থান বিধানসভায় নির্বাচনের পর কংগ্রেসের ঝুলিতে আসে ১০৭টি আসন, সরকার গড়ার সময় ১২ জন নির্দল বিধায়কের সমর্থনও যায় কংগ্রেসের পক্ষেই। এছাড়াও রাষ্ট্রীয় লোকদল, সিপিএম, এবং ভারতীয় ট্রাইব্যাল পার্টি অশোক গেহলটকে সমর্থন জানায়। এদিকে রাজস্থান মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছেন, দলের বিধায়কদের নাকি শিবির বদলের জন্য মাথা পিছু ১৫ কোটি টাকার প্রস্তাব দিয়েছে বিজেপি।