দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতির মোকাবিলায় অর্থনীতিবিদদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে বৈঠকের আগে অর্থনীতিবিদ ও বিশেষজ্ঞদের পৃথক দুটি দলে ভাগ করে দিল নীতি আয়োগ

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

বৈঠকের আগে বিশেষজ্ঞ ও বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদরা মোদির সামনে কিছু বিষয় তুলে ধরবেন


নিউ দিল্লি: 

দেশের সামগ্রিক বৃদ্ধি শ্লথ হয়ে যাওয়ায় এবার দেশের সেরা অর্থনীতিবিদদের (top economists) সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির  (Prime Minister Modi) বিশেষ বৈঠক। বৃহত্তর অর্থনৈতিক পরিস্থিতির মোকাবিলার (growing concern) লক্ষ্যেই অর্থনীতিবিদদের থেকে পরামর্শ নিতেই বৈঠক প্রধানমন্ত্রীর(Modi)। মনে করা হচ্ছে. দেশের গড় বৃদ্ধি কিভাবে তরান্বিত করা যায় ও কিভাবে কর্মসংস্থান বাড়িয়ে বেকার সমস্যা দূর করা যায় তা নিয়েই বৈঠকে আলোচনার সম্ভাবনা।সূত্রের খবর, দেশের অভিজ্ঞ অর্থনীতিবিদদের সঙ্গে মোদির এই বৈঠকের আসল কারণ কিভাবে দেশের সামগ্রিক বৃদ্ধিতে গতি আনা যায় তার সমাধান সূত্র খুঁজে বের করা। আগামী ৫ জুলাই বেশ করা হবে দেশের সাধারণ বাজেট (General Budget)।সংসদে এই বাজেট পেশ করবেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ (Nirmala Sitharaman)। তার আগে আগেই দেশের সাম্প্রতিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি মোকাবিলাতেই এই বৈঠক বলে মনে করা হচ্ছে।

জানা গেছে, বৈঠক শুরুর আগেই নীতি আয়োগের (NITI Aayog ) পক্ষ থেকে বেকার সমস্যা, কৃষিক্ষেত্র ও অর্থনৈতিক সহ দেশের গঠনমূলক সামগ্রিক পরিস্থিতির মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের আগে অর্থনীতিবিদ (economists) ও বিশেষজ্ঞদের (sectoral experts) পৃথক দুটি দলে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে।দুটি দলকেই বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে ওই সমস্যা গুলি সমাধান করে দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন কিভাবে করা সম্ভব সেই সমাধানের আশায় যেন তাঁরা নির্দিষ্ট লক্ষ্যে কাজ করতে পারে। দেশ ও দশের স্বার্থে ও উন্নয়নের গতি বৃদ্ধিতে(growth sentiment)ঠিক কোন পথে সরকার পদক্ষেপ করলে ওই সমস্যা গুলির সমাধান করা সম্ভব হবে সে বিষয়ে ঐ অর্থনীতিবিদ ও বিশেষজ্ঞ দলের কাছে পরামর্শ চাওয়া হবে বলে সূত্রের খবর।

আজকের বৈঠকে অর্থনীতিবিদ ও বিশেষজ্ঞরা (The economists and experts) এর আগে দেশের উন্নয়নের ক্ষেত্রে কি কি সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে এবং কি কি সমস্যা প্রতিবন্ধক হিসাবে সামনে এসেছে সে বিষয়গুলি তুলে ধরে আলোচনা করবেন। পাশাপাশি আগামী দিনগুলিতে কিভাবে দেশের বৃদ্ধিতে গতি আনা যায় সে বিষয়েও তাঁরা পথ বাতলে দেবেন বলে জানা গেছে।

গত ৩১ মে, প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নরেন্দ্র মোদীর (Pm Modi)দ্বিতীয়বার শপথ গ্রহণের পরের দিনই সরকার ঘোষণা করে ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে গত ৩ মাসে দেশের ত্রৈমাসিক বৃদ্ধির হার নিম্নমুখী হয়ে দাঁড়িয়েছে ৫.৮ শতাংশে।শ্লথ হয়েছে দেশের সামগ্রিক বৃদ্ধি। ২০১৮-র শেষ ৩ মাসে ৬.৬ শতাংশ থেকে বৃদ্ধির হার কমে ৫.৮ শতাংশে দাঁড়ায়।

এর ফলে বিশ্বের দ্রুত উন্নয়নশীল দেশগুলির তালিকা থেকেও বাদ পড়ে যায় ভারতের (India)নাম।গত দু বছরে এই প্রথম দেশের সামগ্রিক বৃদ্ধির হারে চিনের থেকেও পিছিয়ে পড়ে ভারত। যেখানে গত ৩ মাসে চিনের (China) সামগ্রিক বৃদ্ধি হয়েছে ৬.৪ শতাংশ।

গত মাসে পরিসংখ্যান মন্ত্রকের (The Statistics Ministry) থেকে জানানো হয়, গত ৪৫ বছরে দেশে সর্বাপেক্ষা নিম্নমুখী কর্মসংস্থানের হার, ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষে কর্মসংস্থান হয়েছে মাত্র ৬.১ শতাংশ। বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড (Business Standard) সংবাদপত্রের দাবি অনুযায়ী ১৯৭২-৭৩ সালের পর এই প্রথম কর্মসংস্থানের হারে এ দেশের এত খারাপ অবস্থা।

গত শনিবার নীতি আয়োগের (NITI Aayog) সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী মোদী(PM Modi) ২০২৪ এর মধ্যে ভারতের সামনে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে ৫ ট্রিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা রেখেছেন।এটা যথেষ্ট চ্যালেঞ্জিং হলেও চেষ্টা করলে অর্জন করা সম্ভব বলেই দাবি করা হয়েছে।নীতি আয়োগের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর (PM Modi) ঐ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সহ কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলির লেফটেন্যান্ট গভর্নর সহ উচ্চপদস্থ সরকারি আধিকারিকরাও।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................