‘‘ক্ষমতায় ফিরবই’’: নাম না করে বিজেপিকে বিঁধে জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

দেশের ‘‘আসন্ন সঙ্কট’’-এর বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য দেশবাসীকে আহ্বান জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘‘ক্ষমতায় ফিরবই’’: নাম না করে বিজেপিকে বিঁধে জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

বিজেপির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

২০২১ সালে তাঁর দলই রাজ্যের ক্ষমতা ধরে রাখবে বলে দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Chief Minister Mamata Banerjee)। টানা তৃতীয় বার রাজ্যের ক্ষমতায় আসার আত্মবিশ্বাস ব্যক্ত করে তিনি (Mamata Banerjee) দাবি করলেন, যারা মনে করছে ২০২১ সালের নির্বাচনে তাঁকে ছুঁড়ে ফেলে দিতে পারবে, তারা নিজেদের অপকর্মের জন্য ভোটারদের ক্রোধের শিকার হবে। নাম না করে বললেও মুখ্যমন্ত্রীর আক্রমণের কেন্দ্রবিন্দুতে যে গেরুয়া শিবির (BJP), তা বুঝে নিতে অসুবিধা হয় না। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলে চমকে দিয়েছে বিজেপি। তারপর থেকেই তাদের দাবি আরও মজবুত হয়েছে যে, তারা তৃণমূলকে সরিয়ে রাজ্যের ক্ষমতায় আসছে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক অনুষ্ঠানে এসে বসেন, ‘‘যারা বলছে ২০২১ সালে আমাদের সরকারকে মুছে ফেলবে, তারা নিজেদের অপকর্মের কথা বলার অধিকার হারিয়েছে। তারা ভোটারদের ক্রোধের শিকার হবে। আমি আবারও ফিরে আসব এবং ২০২১ সালে আপনাদের সঙ্গে কথা বলব।''

ইউজিসির সংশোধিত পে স্কেল কার্যকর করতে চলেছে রাজ্য সরকার

মুখ্যমন্ত্রীর ইঙ্গিত ছিল বিজেপির ‘‘আগামী বিধানসভা নির্বাচন‌ে তৃণমূল কংগ্রেসকে মুছে ফেলা''র স্লোগানের দিকে। সেই দাবিকে নস্যাৎ করে ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তনের আত্মবিশ্বাস ছিল এদিন মুখ্যমন্ত্রীর ভাষণে।

সদ্যসমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনে হরিয়ানা ও মহারাষ্ট্রে একক ভাবে ক্ষমতায় আসতে পারেনি বিজেপি। বরং বিরোধীরা আগের থেকে ভাল ফল করেছে। এরপরই মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে উঠে এল এই দাবি।

জম্মু ও কাশ্মীর থেকে রাজ্যের ১৩১ শ্রমিককে ঘরে ফিরতে সাহায্য করছেন মুখ্যমন্ত্রী

তিনি বিজেপির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে জানালেন, ‘‘যারা ইতিহাস বদলানোর চেষ্টা করে তাদের আমরা নিন্দা করি।''

তিনি আরও দাবি করেন, ‘‘মানুষের গোপনীয়তা ভঙ্গ করার যে কোনও প্রয়াসের আমরা বিরোধিতা করব। ব্যাঙ্ক বন্ধ করার পদক্ষেপের বিরুদ্ধেও আমরা লড়ব।''

দেশের ‘‘আসন্ন সঙ্কট''-এর বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য দেশবাসীকে আহ্বানও জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, ভারতীয় সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মীদের উপরে নজর রাখছে গোপন শত্রুরা। ইজরায়েলের স্পাইওয়্যার পেগাসাসের সাহায্যে এই কাণ্ড করছে তারা।

২০১৯ সালের লোকসভায় ৪২ আসনের মধ্যে ১৮টিতে জয়ী হয় বিজেপি। তৃণমূ‌ল কংগ্রেস পায় ২২টি আসন। শাসক দলের থেকে চার আসনে পিছিয়ে থাকা গেরুয়া শিবির তারপর থেকেই দাবি করা শুরু করেছে, ২০২১ সালে তারাই ক্ষমতায় আসতে চলেছে।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News