অস্ত্র মিছিলের বিরোধিতায় তৃণমূল! কিন্তু রাজ্যে রামনবমীর মিছিল করবে তৃণমূল ও বিজেপি দু’দলই

Lok Sabha Elections 2019: ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, বিজেপি নির্বাচনের সময় শান্তির পরিবেশ খারাপ করার চেষ্টা করছে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
অস্ত্র মিছিলের বিরোধিতায় তৃণমূল! কিন্তু রাজ্যে রামনবমীর মিছিল করবে তৃণমূল ও বিজেপি দু’দলই

১৩ ও ১৪ এপ্রিল এই রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির রাম নবমীর মিছিল বেরোনর কথা।


কলকাতা: 

লোকসভা নির্বাচনের আবহেই পশ্চিমবঙ্গে রামনবমী মিছিল (West Bengal Ram Navami rallies) বের করবে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিরোধী দল বিজেপি। সারা রাজ্যে রামনবমীর মিছিলে বের করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তাঁরা। ১৩ ও ১৪ এপ্রিল এই রাজ্যে রাম নবমীর মিছিল বেরোনর কথা।

ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, বিজেপি নির্বাচনের সময় শান্তির পরিবেশ খারাপ করার চেষ্টা করছে। তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “প্রত্যেকেরই নিজের ধর্ম অনুসরণ করার অনুমতি রয়েছে। কিন্তু বিজেপি যা করার চেষ্টা করছে, তা হল রাজ্যের শান্তি বিঘ্নিত করা এবং নির্বাচনের সময় সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা তৈরি করা। আমরা রাজ্যে এসব করার অনুমতি দেব না।" 

জালিয়ানওয়ালা বাগ হত্যাকাণ্ডের জন্য আমরা দুঃখিত: ব্রিটেনের রাষ্ট্রদূত

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, “আমরা রাম নবমীর সময় কোনো হিংসা চাই না। কিন্তু যদি সশস্ত্র মানুষরা মহরমের মিছিল করতে পারেন তাহলে কেন রাম নবমী মিছিলের জন্য নিয়ম ভিন্ন হবে? এটা আমাদের ধর্মের অংশ এবং ধর্ম পালন করা থেকে কেউ আমাদের থামাতে পারবেন না।"

অন্যদিকে, বিভিন্ন জেলায় তৃণমূল নেতৃত্বও রাম নবমীর জন্য মিছিলের পরিকল্পনা করেছে।

অস্ত্র নিয়ে মিছিলের আবহ ফের তৈরি হচ্ছে এ রাজ্যে। গত বছরই রাম নবমীর মিছিলে হিংসায় (violence over Ram Navami rallies) বেশ কয়েকজন নিহত হন এবং আহতও বেশ কিছু মানুষ। বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (VHP) ১৪ এপ্রিল রাম নবমী উদযাপন করার জন্য দক্ষিণবঙ্গে প্রায় ৭০০ টি সমাবেশ করার পরিকল্পনা করেছিল। তবে, পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ অস্ত্র নিয়ে ওই মিছিলের অনুমতি দেয়নি। 

নির্বাচনের মাসেই নরেন্দ্র মোদিকে সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান দিচ্ছে রাশিয়া!

এই বছর, বিশ্বহিন্দু পরিষদ (Viswa Hindu Parishad) জানিয়েছে রাম নবমীর আয়োজনে কোনও অস্ত্র রইবে না। ভিএইচপির সাংগঠনিক সাধারণ সম্পাদক (পূর্বাঞ্চলীয়) শচীন্দ্রনাথ সিনহা পিটিআইকে বলেন, “আমরা সমাবেশের জন্য অনুমতি পেয়েছি। আমরা পুলিশের নির্দেশ মেনেই চলব এবং রাম নবমী মিছিলের সময় অস্ত্র ব্যবহার করব না।”

তিনি জানান, ভিএইচপি দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে ৭০০ টি ছোট, মাঝারি ও বড় সমাবেশ করবে এবং নির্বাচনের কারণেই উত্তরবঙ্গে কম সংখ্যক মিছিল সংগঠিত হবে। ১৮ এবং ২৩ এপ্রিল লোকসভা নির্বাচনের দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ে উত্তরবঙ্গের নির্বাচনী এলাকায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। দক্ষিণ বঙ্গে ভোট আরও চারটি দফায় অনুষ্ঠিত হবে।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................