পুলিশ কমিশনার-কুনাল ঘোষকে জিজ্ঞাসাবাদ সিবিআইয়ের

সারদা চিটফান্ড কেলেঙ্কারির তদন্তে কলকাতা পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার এবং তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ কুনাল ঘোষকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে সিবিআই।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
পুলিশ কমিশনার-কুনাল ঘোষকে জিজ্ঞাসাবাদ সিবিআইয়ের

সুপ্রিম  কোর্টের  নির্দেশে পরশু দিন-ই শিলঙে পৌঁছে যান রাজীব


শিলং: 

হাইলাইটস

  1. আজ আবার সিবিআই জেরার মুখে পড়বেন কলকাতা পুলিশের কমিশনার
  2. গতকাল শিলঙে সাড়ে আট ঘণ্টা ধরে সিবিআইয়ের প্রশ্নের উত্তর দেন রাজীব
  3. রাজীবের সঙ্গে কুণালকে মুখোমুখি বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে সিবিআই

সারদাকাণ্ডে তথ্যপ্রমাণ নষ্ট করার অভিযোগে শনিবার কলকাতা পুলিশ কমিশনারকে ৯ ঘন্টা জেরা করেন ৩ জন সিবিআই আধিকারিক।সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে সারদাকাণ্ডের তদন্তের দায়িত্ব সিবিআইয়ের হাতে যাওয়ার আগে এই মামলায় সিট গঠন করেছিল রাজ্য সরকার, সেই সিটের দায়িত্বে ছিলেন রাজীব কুমার। সকাল ১০ টায় পৌঁছে ওকল্যান্ডে সিবিআইয়ের অফিসে ঢোকার আগে সংলগ্ন একটি মণ্ডপে সরস্বতী পুজোয় পুষ্পাঞ্জলি দেয়ার ইচ্ছেপ্রকাশ করেন কুনাল ঘোষ। সিবিআই অফিসে ঢোকার আগে, সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “আমার বলার কিছু নেই। আমায় এখানে আসতে বলা হয়েছে। তদন্তকারী সংস্থার সঙ্গে আমি সবরকমভাবে সহযোগিতা করেছি। তাই আমি এসেছি”।

রাজীরের পর কুণালকেও শিলঙে জিজ্ঞাসাবাদ করবে সিবিআই, রবিবার হাজির হতে হবে প্রাক্তন সাংসদকে

সারদা চিটফান্ড কাণ্ডে ২০১৩ সালে গ্রেফতার হন তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ কুনাল ঘোষ।২০১৬ সালে জামিনে মুক্ত হন তিনি। তাঁকে রাজীব কুমারের মুখোমুখি বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে সিবিআই।

মঙ্গলবার রাজীব কুমারকে সুপ্রিম কোর্ট তদন্তকারীদের সঙ্গে সবরকম সহযোগিতার নির্দেশ দেয়। “অপ্রয়োজনীয় কোনও রকম বিতর্ক এড়াতে” জিজ্ঞাসাবাদের স্থান হিসাবে শিলং কে বাছা হয়। পাশাপাশি সুপ্রিম কোর্ট সিবিআইকে জানিয়ে দেয়, গ্রেফতার করা যাবে না রাজীব কুমারকে।

৩ ফেব্রুয়ারি  কলকাতায় রাজীব কুমারের বাড়িতে হানা দেয় সিবিআই। তবে সেখানে তাঁদের আটক করে থানায়  নিয়ে যায়  কলকাতা  পুলিশ।এরপরেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

কলকাতা পুলিশের হানা দেওয়া সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক অস্বীকার নাগেশ্বর রাও-এর

রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই হানার প্রতিবাদে সেদিন রাতেই কলকাতায় মেট্রো চ্যানেলে “সংবিধান রক্ষা” র দাবিতে ধরনায় বসেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র  মোদী ও বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ এ রাজ্যে অভ্যুথ্থান ঘটাতে চাইছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

তৃতীয় দিনে পড়ল মমতার ‘সত্যাগ্রহ', এরই মধ্যে আজ সিবিআইয়ের মামলা শুনবে সুপ্রিম কোর্ট, ১০টি তথ্য

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে গতকাল  সকাল ১১টা নাগাদ এই জিজ্ঞাসাবাদ  শুরু হয়। চলে  সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা পর্যন্ত। রাজীবের আইনজীবী এবং মেঘালয়ের তৃণমূল আহ্বায়ক  বিশ্বজিৎ দেব জানান আদালতের নির্দেশে  রাজীব এসেছেন এবং  সিবিআইকে সব ধরনের সাহায্যও করছেন  তিনি।

কুণালের মৌখিক অভিযোগের পাশাপাশি ঘটনা সম্পর্কে লেখা ৯১ পাতার চিঠির উপরও ভরসা রাখছে  সিবিআই। চিঠিতে  মুকুল রায়ের কথাও লিখেছেন কুণাল।  একদা  তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড এখন বিজেপিতে।  শিলংঙে গিয়ে সিবিআইয়ের আধিকারিকদের সঙ্গে  দেখা করে তথ্যও দিতে হবে  তাঁকে। সেই মতো চলছে জেরা পর্ব।  কাল  সুপ্রিম কোর্টে  মামলার শুনানি হবে। গত রবিবারের ঘটনার পর সোমবার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়  সিবিআই। আদালতে তারা বলে দুটি  চিটফান্ডের তদন্তে যে তথ্য রাজীব কুমারের নেতৃত্বাধীন সিট দিয়েছে তা সম্পূর্ণ নয়।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................