হিন্দুত্ববাদী নেতা খুনে গ্রেফতার ৫, তবে এখনও অধরা সিসিটিভি ফুটেজের ২ সন্দেহভাজন

Uttar Pradesh: কমলেশ তিওয়ারিকে শুক্রবার লখনউয়ের নাকা অঞ্চলে Murder করা হয়, সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে ধরা পড়ে ৩ সন্দেহভাজনের ছবি

Kamlesh Tiwari Murder Case: সিসিটিভি ফুটেজে দুই ব্যক্তি ও এক মহিলা সহ মোট তিন সন্দেহভাজনের ছবি ধরা পড়েছে

লখনউ:

উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) একটি রাজনৈতিক দলের নেতা কমলেশ তিওয়ারি খুনে গ্রেফতার করা হয় ৫ জনকে।  শুক্রবার নিজের বাড়ির সামনেই খুন (Murder) হন ওই হিন্দুত্ববাদী নেতা । সেই খুনেরই তদন্তে নেমে ওই নেতার (Kamlesh Tiwari) বাড়ির বাইরে থেকে লখনউ পুলিশ একটি সিসিটিভি ফুটেজ উদ্ধার করে। ফুটেজে দু'জন পুরুষ এবং এক মহিলা সহ তিন সন্দেহভাজনের ছবি ধরা পড়ে বলে খবর। কিন্তু সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়া ২ সন্দেহভাজন এখনও পুলিশের নাগালের বাইরে রয়েছে। উত্তরপ্রদেশের ডিজিপি ওপি সিং জানিয়েছেন, দুই রাজ্যের পুলিশ বাহিনীর মধ্যে যৌথ অভিযানের ফলে গুজরাট থেকে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। অন্য দু'জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের বিজনৌর জেলা থেকে। ওই দুই মুসলিম ধর্মগুরুর নামে আগেই মৃত কমলেশ তিওয়ারীর স্ত্রী এফআইআর করেন। অপর দুই অভিযুক্ত, যারা এই হামলা চালিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে, তারা এখনও অধরা।

জানা গেছে, সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায় একটি হলুদ ব্যাগে মিষ্টির বাক্স নিয়ে আসছেন ২ পুরুষ ও ১ মহিলা সন্দেহভাজন, যা দেখে পুলিশ প্রাথমিকভাবে মনে করছে যে, ওই মিষ্টির বাক্সের মধ্যেই লুকানো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করা হয় হিন্দুত্ববাদী নেতা কমলেশ তিওয়ারিকে। ওই সন্দেহভাজনরা তিওয়ারির বাড়িতে দীপাবলির উপহার দেওয়ার অছিলায় প্রবেশ করে। পুরুষদের মধ্যে একজন জাফরান রঙের কুর্তা এবং অন্যজন লাল রঙের পোশাক পরেছিলেন, অন্যদিকে মহিলাটি লাল কুর্তা এবং সাদা দুপট্টা পরেছিলেন বলে ফুটেজে দেখা গেছে । ওই সিসিটিভি ফুটেজে এও দেখা গেছে যে, ওই মিষ্টির বাক্সটি গুজরাটের সুরাট থেকে আনা হয়েছে। এই বিষয়ে (Kamlesh Tiwari Murder Case) আরও তদন্ত চলছে।

৫ মিনিটে ৩টে খুন, মুর্শিদাবাদে হত্যার পিছনে অর্থ

এদিকে কমলেশ তিওয়ারির স্ত্রী কিরণ তিওয়ারি মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সঙ্গে দেখা করার দাবি জানিয়েছেন । পাশাপাশি তিওয়ারির ছেলেদের জন্য সরকারি চাকরির দাবিও করেন তিনি।

জিয়াগঞ্জে খুন হওয়া শিক্ষকের আত্মীয়দের সমস্ত আইনি সহায়তা দেবে সরকার: মুখ্যমন্ত্রী মমতা

সংবাদসংস্থা এএনআই কমলেশ তিওয়ারির স্ত্রীর বয়ানকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, "আমি আমার বাচ্চাদের নিয়ে এই জায়গায় আত্মহত্যা করব।" তিনি আরও দাবি করেন যে তাঁর স্বামী প্রতিদিন হুমকি ফোন কল পেতেন কিন্তু সরকার সময় মতো তাঁকে সুরক্ষা দিতে ব্যর্থ হওয়াতেই এই ঘটনা ঘটেছে।

কমলেশ তিওয়ারি (৪৩) শুক্রবার বিকেলে লখনউয়ের নাকা অঞ্চলে নিজের বাড়ির সামনে নিহত হন। তাঁর গলা কেটে দেওয়া হয় এবং একাধিকবার তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয় । তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময়েই পথের মধ্যে মারা যান তিনি। শুক্রবার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল উদ্ধার করেছে।

gb6ednu

Kamlesh Tiwari murder case: উত্তরপ্রদেশ পুলিশ হত্যাকারীদের সন্ধানে সিট গঠন করেছে 

কমলেশ তিওয়ারি, যিনি ২০১৭ সালে হিন্দু সমাজ পার্টি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, তাঁর নিরাপত্তার জন্যে স্থানীয় থানা থেকে সশস্ত্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা হিসাবে দুই বন্দুকধারী এবং একজন গার্ড নিয়োগ করা হয়েছিল। তবে তাঁর হত্যার দিন, বন্দুকধারীরা অনুপস্থিত ছিলেন। পুলিশ বলছে, তাঁর বাসভবনের প্রহরী সন্দেহভাজনদের গেটে থামিয়েছিল এবং কিন্তু তিওয়ারির কথা মতো তাঁদের তল্লাশি করার আগেই বাড়ির ভিতরে প্রবেশের অনুমতি দেয়। পুলিশের কথা অনুযায়ী, এর থেকেই স্পষ্ট যে, সন্দেহভাজন ব্যক্তিরা কমলেশ তিওয়ারির পরিচিত ছিল।

দেখুন ১৮.১০.২০১৯-এর সেরা খবর:

More News