এক সপ্তাহের মধ্যেই জম্মু কাশ্মীরে অতিরিক্ত ২৫,০০০ সেনা মোতায়েন করল কেন্দ্রীয় সরকার

প্রসঙ্গত, বুধবার জম্মু ও কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক স্পষ্টতই ৩৫-এ ধারা অপসারণের জল্পনা প্রত্যাখ্যান করেছিলেন

সূত্রের খবর অনুসারে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই সেনা মোতায়েনের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে

শ্রীনগর:

গত সপ্তাহে জম্মু ও কাশ্মীরে (Jammu-Kashmir) ১০ হাজার অতিরিক্ত নিরাপত্তা বাহিনী (Paramilitary) মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। এবার আরও ২৫,০০০ সেনা (Paramilitary) মোতায়েন করতে চলেছে সরকার। সরকারি সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার ভোর থেকেই সেনা জওয়ানরা কাশ্মীর উপত্যকায় (Jammu Kashmir) পৌঁছতে শুরু করেছে এবং আজ সকাল থেকে তাদের রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় মোতায়েন করার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। জম্মু ও কাশ্মীরে (Jammu Kashmir) এত বড় সংখ্যক সেনা মোতায়েনের পর বিভিন্ন ধরণের জল্পনা দানা বাঁধতে শুরু করেছে। গত সপ্তাহে সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল, উপত্যকায় (Jammu Kashmir) সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান আরও জোরদার করতে সুরক্ষা বাহিনীর ১০০ কোম্পানি সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, বুধবার জম্মু ও কাশ্মীরের (Jammu Kashmir) রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক স্পষ্টতই ৩৫-এ ধারা অপসারণের জল্পনা প্রত্যাখ্যান করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন যে এরকম কোনও পরিকল্পনা নেই।

জল সংরক্ষণে নাগরিক সমাজকে ভুমিকা গ্রহণের আহ্বান মুখ্যমন্ত্রীর

এদিকে অমরনাথ (Amarnath) যাত্রাও ৪ অগস্ট পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। সরকার বলছে যে খারাপ আবহাওয়ার কারণে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে, আবহাওয়া পরিবর্তন সম্পর্কিত কোনও বড় ধরনের পরিবর্তনের ঘোষণা করা হয়নি। আধিকারিক সূত্রগুলি আরও বলেছে, অমরনাথ যাত্রার সুরক্ষায় নিযুক্ত কিছু সেনাকে আইন-শৃঙ্খলার কথা মাথায় রেখে স্থানান্তরিত হচ্ছে। প্রসঙ্গত, অমরনাথ যাত্রার সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে প্রায় ৪০ হাজার লোক মোতায়েন করা হয়েছে। সূত্র আরও বলেছে যে, উপত্যকায় মোতায়েন করা সমস্ত নিরাপত্তা বাহিনীকে অবিলম্বে যে কোনও পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে।

ইস্টবেঙ্গলকে নিয়ে তথাগত রায়ের মন্তব্যের সমালোচনায় মুখর মুখ্যমন্ত্রী

অন্যদিকে, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত সুরক্ষা ব্যবস্থা পর্যালোচনা করতে বৃহস্পতিবার শ্রীনগরে পৌঁছেছেন। সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জানিয়েছেন, সেনাপ্রধান আগামী দুই দিন কাশ্মীরেই থাকবেন। প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে কেন্দ্রীয় সরকার উপত্যকায় ১০ হাজার অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করেছিল। জম্মু ও কাশ্মীরের দুই দিনের সফর সেরে জাতীয় সুরক্ষা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল (Ajit Doval) ফিরে আসার পরেই  এই অতিরিক্ত সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।