মহাত্মা গান্ধীকে নিয়ে ব্যঙ্গপূর্ণ পোস্ট করে ট্রোলড আইএএস অফিসার

NDTV-কে তিনি বলেন, ‘‘আমি কখনওই মহাত্মা গান্ধীকে অপমান করিনি।’’

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

তিনি জানিয়েছেন, তিনি মহাত্মা গান্ধীকে প্রচণ্ড শ্রদ্ধা করেন।


নয়াদিল্লি: 

মহাত্মা গান্ধীর (Mahatma Gandhi) জন্মদিন পালন কেন করা হয়? টুইটারে এমন প্রশ্ন তুলে বিপাকে মহারাষ্ট্রের এক আইপিএস অফিসার । তাঁকে চাকরি থেকে বরখাস্তের দাবি করা হয়েছে ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি বা এনসিপির পক্ষে। ওই আধিকারিকের দাবি, তাঁর টুইটটি তিনি ব্যঙ্গাত্মক সুরে লিখেছিলেন। কিন্তু সেটিকে আক্ষরিক অর্থে ধরার ফলেই ভুল বোঝা হচ্ছে। নিধি চৌধুরী (Nidhi Choudhari)  নামের ওই আধিকারিক টুইটারে ১৭ মে হ্যাশট্যাগ গডসে দিয়ে পোস্টটিতে প্রশ্ন তুলেছিলেন, মহাত্মা গান্ধীর(Mahatma Gandhi) জন্মের  সার্ধশতবর্ষ পালন নিয়ে। দাবি করেছিলেন, গান্ধীর মূর্তিগুলি সরিয়ে ফেলা হোক এবং তাঁর ছবিগুলিও দেওয়াল থেকে নামিয়ে রাখা হোক। সরিয়ে ফেলা হোক নোট থেকেও। শরদ পাওয়ারের ন্যাশনালিস্ট পার্টির দাবি, বৃহন্মুম্বইয়ের ওই আধিকারিককে (Nidhi Choudhari) জরিমানা করা উচিত। ‘‘আমরা দাবি করছি আইএএস আধিকারিক নিধি চৌধুরীকে দ্রুত বরখাস্ত করা হোক। তিনি মহাত্মা গান্ধীকে(Mahatma Gandhi) নিয়ে হানিকর টুইট করেছেন। তিনি নাথুরাম গডসেকে মহিমান্বিত করেছেন। এটা সহ্য করা উচিত নয়।'' এনসিপি নেতা জিতেন্দ্র আওয়াদ এই কথা বলেন বলে সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে জানা যাচ্ছে।

#StopHindiImposition কেন্দ্রের নতুন শিক্ষানীতির খসড়ার বিরুদ্ধে শুরু প্রতিবাদ

এই বিতর্কের পরে ওই আধিকারিক(Nidhi Choudhari) পোস্টটি মুছে দেন। তিনি জানিয়েছেন, তিনি মহাত্মা গান্ধীকে প্রচণ্ড শ্রদ্ধা করেন।  NDTV-কে তিনি বলেন, ‘‘আমি কখনওই মহাত্মা গান্ধীকে অপমান করিনি। ওঁরা এটা বুঝলেন না যে আমি টুইটটা লিখেছি ব্যঙ্গাত্মক ভঙ্গিতে!'' তিনি আরও বলেন, ‘‘আমি এই জন্য গডসেকে ধন্যবাদ দিয়েছি যে মহাত্মা গান্ধীকে এই সময়টা দেখতে হয়নি... লোকজন মহাত্মা গান্ধীকে নিয়ে সমালোচনামূলক ও ভুল কথা লিখে চলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। মহাত্মা গান্ধীকে(Mahatma Gandhi) নিয়ে লেখা নেগেটিভ পোস্ট এবছরের জানুয়ারি থেকেই বেশি দেখা যাচ্ছে। আর তাই আমি এই টুইটটা লিখেছি।''

২০২০ মার্চের মধ্যে ৮৪টি বিমানবন্দরে বসবে বডি স্ক্যানার, নির্দেশ কেন্দ্রের

গডসেকে নিয়ে বিতর্ক শুরু হয় যখন মালেগাঁও বিস্ফোরণ কাণ্ডের অভিযুক্ত প্রজ্ঞা সিংহ ঠাকুরকে বিজেপি ভোপালে কংগ্রেসের দিগ্বিজয় সিংহের বিপরীতে দাঁড় করালে। প্রার্থীর সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে যোগকে কেন্দ্র করে দিগ্বিজয় ‘হিন্দু সন্ত্রাসবাদ' শব্দটি ব্যবহার করলে বিজেপি সেটির নিন্দা করে।

কংগ্রেস তখন পাল্টা বলতে শুরু করে, এটা পরিষ্কার কেন বিজেপি ‘গডসের উত্তরাধিকারী'। অভিনেতা-রাজনীতিবিদ কমল হাসান বলেন, ‘‘স্বাধীন ভারতের প্রথম চরমপন্থী গডসে একজন হিন্দু ছিলেন।''

বিজেপির প্রজ্ঞা ঠাকুর বলেছিলেন, নাথুরাম গডসে একজন ‘‘দেশভক্ত ছিলেন এবং দেশভক্ত থাকবেন।'' এই বিতর্কিত মন্তব্যের জন‌্য তাঁর দলকে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। প্রজ্ঞাকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................