This Article is From Jan 24, 2019

নিজের অটোয় গর্ভবতীদের বিনামূল্যে হাসপাতালে পৌঁছে দিচ্ছেন কর্ণাটকের অটো ড্রাইভার

মল্লিকার্জুনের কথায়, “আমার গর্ভবতী বোনকে পাঁচ বছর আগে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় খুবই সমস্যায় পড়ি। আমাদের এখানে কোনও অ্যাম্বুলেন্স ছিল না। তাই আমি নিজেই এই কাজ শুরু করি।"

নিজের অটোয় গর্ভবতীদের বিনামূল্যে হাসপাতালে পৌঁছে দিচ্ছেন কর্ণাটকের অটো ড্রাইভার

তাঁর দাবি, ১০০ জনেরও বেশি গর্ভবতী মহিলাকে বিনামূল্যে সেবা দিয়ে সাহায্য করেছেন তিনি

বেঙ্গালুরু:

গর্ভাবস্থার জরুরি সময়ে গর্ভবতী মহিলাদের চটজলদি হাসপাতালে পৌঁছে দিতে সাত দিন ২৪ ঘণ্টা বিনামূল্যে পরিষেবা দিচ্ছেন একজন অটো ড্রাইভার। কর্ণাটকের এই অটো ড্রাইভার ২৪ ঘণ্টাই বিনামূল্যে গত পাঁচ বছর ধরে এই কাজ করে চলেছেন নিরবিচ্ছিন্নভাবে।

নিজের রাজ্যের গর্ভবতী মহিলাদের জরুরি সময়ে সাহায্যের জন্য গত পাঁচ বছর ধরেই মল্লিকার্জুন একেবারে বিনামূল্যে সড়ক যানবাহন সরবরাহ করছেন। তাঁর দাবি, ১০০ জনেরও বেশি গর্ভবতী মহিলাকে বিনামূল্যে সেবা দিয়ে সাহায্য করেছেন তিনি।

বের করে দিল হাসপাতাল! রাস্তায় সন্তান প্রসব করলেন মহিলা

মল্লিকার্জুনের সব মিলিয়ে রয়েছে মোট চারটি অটো। প্রতিটি অটোয় তিনি স্পষ্টভাবে তাঁর মোবাইল নম্বর এবং গর্ভবতী মহিলাকে হাসপাতালে পৌঁছানোর প্রয়োজনে এই ২৪/৭ বিনামূল্য পরিষেবা সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে উল্লেখও করেছেন।

কিন্তু কেন এই বিশেষ পরিষেবা? এএনআইকে মল্লিকার্জুন বিশেষ একটি ঘটনার কথা জানান। এই ঘটনাই তাঁকে বিশেষ কাজে উদ্বুদ্ধ করে। মল্লিকার্জুনের কথায়, “আমার গর্ভবতী বোনকে পাঁচ বছর আগে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় খুবই সমস্যায় পড়ি। আমাদের এখানে কোনও অ্যাম্বুলেন্স ছিল না। তাই আমি নিজেই এই কাজ শুরু করি। আমার অটোর পেছনে আমার মোবাইল নম্বর লেখা আছে। মানুষের যখন অটো দরকার তখন আমাকে ডাকেন।” কর্ণাটকের কালবুর্গি শহরের শান্তিনগরে বাসিন্দা মল্লিকার্জুন জানান মহিলাদের বিশেষ সময়ে অন্য যানবাহন না পেয়ে কী মারাত্মক কষ্টের মধ্য দিয়ে যেতে হয় তা চাক্ষুষ দেখেছেন বলেই আজ সাধ্যমতো বাকিদের এই পরিস্থিতি থেকে সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছেন।

সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রকাশ্যে এল বাঘ চোরাশিকারের ভয়াবহ দৃশ্য



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)