করোনা ভাইরাসকে “বিজ্ঞাপিত বিপর্যয়” ঘোষণা করল ভারত, দেওয়া হবে ক্ষতিপূরণ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের চিঠিতে, করোনা ভাইরাসে (Coronavirus) আক্রান্ত হয়ে মৃতদের পরিবারকে ৪ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে

করোনা ভাইরাসকে “বিজ্ঞাপিত বিপর্যয়” ঘোষণা করল ভারত, দেওয়া হবে ক্ষতিপূরণ

ভারতে এখনও পর্যন্ত ৮০জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের নিশ্চিত খবর পাওয়া গিয়েছে, মৃত্যু হয়েছে দুজনের।

কলকাতা:

করোনা ভাইরাস (Novel Coronavirus) ছড়িয়ে পড়াকে বিজ্ঞাপিত বিপর্যয় ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় সরকার, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত এবং আক্রান্তদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ এবং এটিকে “একসময়ের প্রকৃতির মার” বলে বর্ণনা করা হয়েছে। প্রত্যেক রাজ্যের বিপর্যয় মোকাবিলা তহবিল থেকে থেকে এর জন্য অর্থ সংগ্রহ করা হবে। একদিন আগেই, কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে নেওয়া পদক্ষেপগুলি সংবাদমাধ্যমে জানানো হয়, এবং সাধারণ মানুষকে আতঙ্কিত না হয়ে, এই মারণ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া “স্বাস্থ্যক্ষেত্রের জরুরি অবস্থা নয়” বলে জানানো হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের চিঠিতে, করোনা ভাইরাসে (Coronavirus) আক্রান্ত হয়ে মৃতদের পরিবারকে ৪ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। যে সমস্ত করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি হাসপাতালে ভর্তি, তাঁদের চিকিৎসার খরচ নির্দিষ্ট করে দিয়েছে রাজ্য সরকার।

সরকারের বিস্তারিত পদক্ষেপগুলির মধ্যে রয়েছে, অস্থায়ী থাকার ব্যবস্থা, খাদ্য, পানীয় জল, বস্ত্র এবং ওষুধের জোগান, সেখানে আক্রান্তদের কোয়ারান্টাইনে রাখা হয়েছে

রাজ্যের বিপর্যয় মোকাবিলা তহবিলও ব্যবহার করা হবে, অতিরিক্ত পরীক্ষা কেন্দ্রে খরচ হবে ওই অর্থ, এবং পুলিশ, স্বাস্থ্য পরিষেবা, পুরসভা কর্তৃপক্ষ এবং সেইসঙ্গে তাপমাত্রা পরীক্ষা করার যন্ত্র এবং অন্যান্য  সরকারি হাসপাতালের বাকি পরীক্ষার জন্য ব্যয় করা হবে।

সরকারের  তরফে জানানো হয়েছ, এই সমস্ত খরচ রাজ্যের তহবিল থেকে কেবলমাত্র তোলা হবে এবং জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা তহবিল থেকে নয়। মোট খরচ বার্ষিক বরাদ্দের ১০  শতাংশের বেশি হওয়া চলবে না।

ভারতে এখনও পর্যন্ত ৮০জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের নিশ্চিত খবর পাওয়া গিয়েছে, মৃত্যু হয়েছে দুজনের। শুক্রবার রাতে দিল্লিতে ৬৮ বছরের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়, বৃহস্পতিবার কর্নাটকের ৭৬ বছর বয়সী মৃত বৃদ্ধের শরীরে করোনা ভাইরাস মেলে।

qhg4jblgএখনও পর্যন্ত ৫,০০০ জনের মৃত্যু হয়েছে  এবং ১.৩ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত

শুক্রবার স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানায়, স্পর্শের মাধ্যমে আরও ৪,০০০ সম্ভাব্য ঘটনা চিহ্নিত করা হয়েছে এবং খুঁজে বার করা হয়েছে।তাদের তরফে আরও জানানো হয়েছে, ৩৭টি  আন্তর্জাতিক সীমান্তের মধ্যে ১৮টি  বন্ধ রাখা হয়েছে আন্তর্জাতিক চলাচলের ক্ষেত্রে।

টনৈতিক আধিকারিক, রাষ্ট্রসংঘ, আন্তর্জতিক সংগঠন, চাকরি এবং প্রজেক্ট ছাড়া বাকিদের ভিসা বাতিল করেছে ভারত, ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত এই বাতিল বজায় থাকবে।

কেরল, দিল্লি সহ বিভিন্ন  রাজ্যে শপিং মল, সিনেমা  হল, স্কুল, কলেজের মতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে এবং বড় জমায়েত, আইপিএল ম্যাচ স্থগিত রাখা হয়েছে।

শনিবার ইনফোসিস জানিয়েছে, তাদের বেঙ্গালুরু অফিস সাময়িক বন্ধ রাখতে পারে তারা এবং সন্দেহজনক একজন করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ায় অফিস চত্ত্বর ভালভাবে পরিষ্কার করা হবে।

গত বছরের জিসেম্বরে চিনের উহানের একটি বাজারে প্রথম করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে, এখনও পর্যন্ত ৫,০০০ জনের মৃত্যু হয়েছে  এবং ১.৩ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত।

করোনা ভাইরাসকে বিশ্বব্যাপি মহামারী ঘোষণা করেছে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা, যার অর্থ, বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে এই মারণ ভাইরাস, এবং বহু মানুষ আক্রান্ত।