প্রত্যেকে যাতে কোভিড টিকা পায় তার ব্যবস্থা করা উচিত সরকারের: রাহুল গান্ধি

Covid-19 Vaccine: এই ভ্য়াকসিন সব মানুষের ধরাছোঁয়ার মধ্যে পৌঁছনোর জন্য প্রয়োজনে মোদি সরকারকে কৌশলগত পরিকল্পনা নেওয়ারও পরামর্শ দিয়েছেন সনিয়া পুত্র

প্রত্যেকে যাতে কোভিড টিকা পায় তার ব্যবস্থা করা উচিত সরকারের: রাহুল গান্ধি

Rahul Gandhi: কোভিড ভ্যাক্সিন নিয়ে এবার টুইট করলেন কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি (ফাইল চিত্র)

হাইলাইটস

  • দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সরকারকে লাগাতার আক্রমণ করছেন রাহুল গান্ধি
  • এবার অবশ্য কোভিড টিকা নিয়ে মুখ খুললেন তিনি
  • দেশের সর্বস্তরের মানুষ যেন এই টিকা পায়, তার জন্য জোরদার সওয়াল রাহুলের
নয়া দিল্লি:

করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) সঙ্গে লড়তে রাশিয়া ইতিমধ্যেই একটি টিকা (Covid-19 Vaccine) তৈরি করে ফেলেছে, ভারতেও কোভ্যাক্সিনের মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চলছে। এরইমধ্যে করোনার এই টিকা নিয়ে সরব হলেন কংগ্রেস সাংসদ তথা ওই দলের প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধি। শুক্রবার কোভিড-১৯-এর টিকা সম্পর্কে একটি টুইট করেন তিনি (Rahul Gandhi)। নিজের টুইটে রাহুল গান্ধি দাবি করেছেন যে কোভিড -১৯ ভ্যাকসিন তৈরি করা দেশগুলির মধ্যে ভারত অন্যতম হতে চললেও এই ভ্য়াকসিন যাতে সর্বস্তরের মানুষের ধরাছোঁয়ার মধ্যে পৌঁছয় তার জন্যও ব্যবস্থা নিতে হবে কেন্দ্রের মোদি সরকারকে (Modi Government)। প্রয়োজনে এর জন্য কৌশলগত পরিকল্পনা করারও পরামর্শ দিয়েছেন সনিয়া পুত্র।

রাহুল টুইটে লেখেন, "ভারত কোভিড -১৯ ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী দেশগুলির মধ্যে অন্যতম হতে চলেছে। তবে এই ভ্যাকসিন যাতে দেশের সমস্ত মানুষের কাছে পৌঁছয় তার জন্য ন্যায়সঙ্গত কৌশল নেওয়া প্রয়োজন এবং এটি সমবণ্টন করার উপরেও জোর দেওয়া উচিত।"

এর আগে বৃহস্পতিবার রাহুলা গান্ধি দেশে করোনা সংক্রমণের একটি রেখাচিত্র ভাগ করে মোদি সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সমালোচনা করে তিনি লেখেন, "এই অবস্থাকে যদি প্রধানমন্ত্রী স্থিতিশীল অবস্থা বলে বর্ণনা করেন তবে খারাপ পরিস্থিতি আর কাকে বলা হবে?"

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের শুক্রবারের পরিসংখ্যান বলছে ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছে ৬৪,৫৫৩ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১,০০৭ জনের। সব মিলিয়ে দেশে এপর্যন্ত মোট ৪৮,০৪৯ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা ভাইরাস। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, ভারতে মোট ২৪,৬১,১৯০ জনের উপর হামলা করেছে এই মারণ রোগ। গত ১০ দিন ধরে দৈনিক সংক্রমণের বিচারে বিশ্বের সব দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে পৌঁছে গেছে ভারত। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া তথ্য অনুসারে, ৪ থেকে ১৩ অগাস্ট পর্যন্ত এই দেশেই সবচেয়ে বেশি সংখ্যক নতুন করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে।