নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস, শীঘ্রই পরিণত হবে আইনে

রাজ্যসভায় বিলটি নিয়ে বিতর্ক চলে, সেই সময় বিতর্কিত বিলটির প্রতিবাদে উত্তপ্ত হয়ে ওঠা অসম ও ত্রিপুরায় সেনা নামায় কেন্দ্রীয় সরকার

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস, শীঘ্রই পরিণত হবে আইনে

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে বিলটি নিয়ে অগ্রণী ভূমিকা নেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ

রাজ্যসভায় (Rajya Sabha) পাস হয়ে গেল নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (Citizenship Amendment Bill) । বিলের পক্ষে ভোট পড়ল ১১৭টি এবং বিপক্ষে পড়েছে ৯২টি ভোট। দুদিন আগেই বিলটি পাস হয়েছে লোকসভায়। বুধবার বিলটি রাজ্যসভায় পেশ করা হয়, সেখানে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে প্রয়োজন ১০৫টি ভোট। এদিন বিলটি পেশ করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) । বিলটির বিরোধিতা করে বিরোধী দল ও দক্ষিণপন্থী দলগুলির অভিযোগ, এই বিল মুসলিম প্রতি পক্ষপাতমূলক এবং সংবিধানের ১৪ নম্বর ধারা বিরোধী, সেখানে সবার সাম্যতার কথা বলা হয়েছে। সোমবার বিলটি লোকসভায় পাস হয় বিলটি, বিলের পক্ষে পড়ে ৩৩৪টি ভোট এবং বিপক্ষে ১০৬টি।  

নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে উত্তপ্ত অসমে জারি কারফিউ, মোতায়েন সেনা

রাজ্যসভায় বিলটি পেশ করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, দেশের মুসলিমদের ভয় পাওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই, কারণ, “তাঁরা দেশের নাগরিক ছিলেন এবং থাকবেন”। “ভুল তথ্য ছড়ানোর পদক্ষেপ” বলে অভিযোগ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দাবি, এই বিলটি শুধুমাত্র প্রতিবেশী দেশের সংখ্যালঘুদের জন্য, ভারতের মুসলিমদের নিয়ে “কোনও পদক্ষেপ নেই”।

বিলটি নিয়ে আবেগপূর্ণ আবেদন জানিয়ে কংগ্রেস নেতা আনন্দ শর্মা বলেন, এটি “ভারতের সংবিধামের আত্মাকে আঘাত করবে”। তাঁর কথায়, “আমার মনে হয়, এই বিলটি ভারতের সংবিধানের ভিত্তিতে আঘাত। এটি ভারতের সংবিধানের আত্মাকে আঘাত করবে। এটি সংবিধানের প্রস্তাবনার বিরুদ্ধে”। 

Citizenship Bill Protests: ত্রিপুরায় সেনা মোতায়েন, ৫,০০০ সেনা উত্তরপূর্বে

রাজ্যসভাকে সতর্কবার্তা দিয়ে তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন বলেন, “গণতন্ত্র থেকে একনায়কতন্ত্রের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে” ভারত। তাঁর ভাষণে, নাজি জার্মানির ছবি তুলে ধরেন, সেটিকে নাগরিকত্ব বিল এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর সঙ্গে তুলনা করে বলেন, কনসেন্ট্রেশন ক্যাম্পের সঙ্গে উত্তর-পূর্বের ডিটেনশন ক্যাম্পের “অদ্ভুত মিল” রয়েছে।

নাগরিকত্ব বিল নিয়ে বক্তব্য রাখেন বিজেপি নেতা জেপি নাড্ডা, বিরোধীদের তোলা পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ খারিজ করে দেন তিনি। তাঁর কথায়, “এটা পুরোপুরিই ভুল”। তিনি বলেন, “পুরোপুরিভাবেই পাকিস্তান, আফগানিস্তান এবং বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের জন্য”।

দীর্ঘ আইনি লড়াই শেষে, জামিনে মুক্তির পর, কংগ্রেস সাংসদ পি চিদাম্বরম কেন্দ্রের দিকে একাধিক প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, তার মধ্যে রয়েছে বিলে কেন ভারতের তিনটি প্রতিবেশী দেশের উল্লেখ রয়েছে এবং কেন শ্রীলঙ্কার হিন্দুদের মতো অন্যান্য ধর্ম এবং সংখ্যালঘুদের বাদ দেওয়া হয়েছে।

"মুসলিমদের দুশ্চিন্তার কারণ নেই": নাগরিকত্ব বিল প্রসঙ্গে রাজ্যসভায় অমিত শাহ

যখন রাজ্যসভায় বিলটি নিয়ে বিতর্ক চলছিল, বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ, বিক্ষোভ থামাতে ত্রিপুরা ও অসমে সেনা নামানো হয়। সূত্রের খবর., ত্রিপুরার কাঞ্চনপুর ও মানু এলাকায় দুই কোম্পানি বাহিনী পাঠানো হয়েছে, আরও দুই কোম্পানি পাঠানো হয়েছে অসমের বঙ্গাইগাঁও এবং ডিব্রুগড়ে।

রাজ্যের ১০টি জেলায় মোবাইল-ইন্টারনেট এবং ডেটা পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছে অসম সরকার, রাজ্যের অন্যতম গুয়াহাটিতে কারফিউ জারি করা হয়েছে।

সোমবার লোকসভায় বিলটির পক্ষে বলতে গিয়ে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে প্রতিবাদ, বিক্ষোভ প্রত্যাহারের আবেদন জানান অমিত শাহ, যাতে এলাকার পরিচিতি অক্ষুন্ন থাকে, সে ব্যাপারে পদক্ষেপের আশ্বাস দেন তিনি। বিক্ষোভকারীদের উদ্বেগ, বিলে উল্লেখ করা শরণার্থীরা সেখানকার বাসিন্দাদের পরিচিত এবং জীবন জীবিকা বিপন্ন করতে পারে।

Citizenship Bill Live Updates: দেশভাগ না হলে এই বিলের প্রয়োজন পড়ত না, বললেন অমিত শাহ

এদিন, বিজেপি সাংসদদের উদ্দ্যেশে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বলেন, “কয়েকটি দল” নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে পাকিস্তানের ভাষায় কথা বলছে। তাঁর কথায়, “স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল, ধর্মীয় নিপীড়ন থেকে পালিয়ে বাঁচা মানুষদের স্বস্তি দেবে এই বিল”।

আজকের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি দেখতে ক্লিক করুন: 

বিল এবং কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ শানান কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি, এটিকে “উত্তর-পূর্বের রাজ্যের ওপর অপরাধমূলক হামলা” বলে মন্তব্য করেন তিনি এবং এলাকাটিকে “জাতিগত সাফাই” করার পদক্ষেপ বলেও মন্তব্য করেন রাহুল গান্ধি। উত্তর-পূর্বের মানুষের প্রতি তাঁৎ সমবেদনা ছিল এবং থাকবে বলেও জানান লোকসভার কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধি।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com