মুখ্যমন্ত্রীত্বের মুখ ঘোষণা ছাড়াই বাংলায় বিধানসভা নির্বাচনে লড়বে বিজেপি: কৈলাশ বিজয়বর্গীয়

West Bengal Elections: "আমরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে নির্বাচনে লড়বো এবং জয় হাসিল করবো", বলেন পোড়খাওয়া ওই বিজেপি নেতা

মুখ্যমন্ত্রীত্বের মুখ ঘোষণা ছাড়াই বাংলায় বিধানসভা নির্বাচনে লড়বে বিজেপি: কৈলাশ বিজয়বর্গীয়

West Bengal Assembly Elections: ২২০-২৩০ টি আসন জেতাই আমাদের লক্ষ্য়, বললেন কৈলাশ বিজয়বর্গীয়

কলকাতা:

বাংলায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উন্নয়নের মন্ত্রকেই হাতিয়ার করবে বিজেপি, জোর গলায় জানালেন গেরুয়া (BJP) দলের পোড়খাওয়া নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীয়। না, আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের (West Bengal Elections) আগে কোনও মুখ্য়মন্ত্রী (Chief Minister) পদপ্রার্থীর নাম ঘোষণা করবে না দল, জানিয়ে দিলেন তিনি (Kailash Vijayvargiya)। নির্বাচনে জিতে যদি পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতায় আসতে পারে ভারতী জনতা পার্টি, তখনই তারা মুখ্য়মন্ত্রীর নাম ঘোষণা করবেন, তার আগে নয়। এনিয়ে জল্পনা জিইয়ে রাখতে চান তাঁরা। সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে কৈলাশ বিজয়বর্গীয় জানিয়েছেন, "এখনও পর্যন্ত যা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তা হলো, আমরা কাউকেই আমাদের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসাবে সামনে আনবো না। আমরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বেই লড়াই করব এবং এই নির্বাচনে জয়ী হবো। একবার ক্ষমতায় আসলে তারপর, কেন্দ্রীয় দলের সঙ্গে পরামর্শ করে তবে বিধানসভা দলের নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য় একজনকে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে বেছে নেওয়া হবে।"

মুখ্য়মন্ত্রী হিসাবে দল কারোও কথা ভেবেছে কিনা সেবিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন যে, "সময়ের কাছে এর উত্তর আছে"।

বিজয়বর্গীয় বলেন, "এই মুহুর্তে, আমাদের লক্ষ্য হলো ২৯৪-সদস্যের বিধানসভায় ২২০-২৩০ টি আসন জয় করা। আমরা জানি যে, গত লোকসভা নির্বাচনের মতোই এবারেও আমরা লক্ষ্য অর্জন করতে পারবো। মুখ্য়মন্ত্রী হিসাবে আগে থেকে কারও নাম ঘোষণা না করায় কোনও সমস্য়া হবে না।" 

Newsbeep

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি, ২০১৬ সালেও বিজেপি কোনও মুখ্যমন্ত্রীর মুখ ঘোষণা ছাড়াই বিধানসভা ভোটে লড়াই করেছিলো। তবে গত চার বছরে গঙ্গা দিয়ে অনেক জল গড়িয়ে গেছে। এখন গেরুয়া দল বাংলার শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী, সিপিআই (এম) এবং কংগ্রেস এখন বিরোধিতার ক্ষেত্রে অনেকটাই পিছনে পড়ে গেছে।

গত বছর থেকেই বাংলার রাজনীতিতে রীতিমতো সাড়া জাগিয়েছে বিজেপি। গত লোকসভা নির্বাচনে তারা রাজ্যের ৪২ টি লোকসভা আসনের মধ্যে ১৮ টি পায়, যা কিনা ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের আসন সংখ্য়ার থেকে মাত্র ৪টি আসন কম। ফলে মনে করা হচ্ছে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে ঘাসফুলের দলকে কড়া চ্য়ালেঞ্জের মুখে ফেলে দেবে পদ্মবাহিনী।