Viral: মায়ের সঙ্গে খেলছে পান্ডা শাবক, দেখুন মন ভাল করা ভিডিও

ভিডিওটি পোস্ট হওয়ার পর থেকে এখনও পর্যন্ত ২৮,০০০ বার দেখা হয়েছে ভিডিওটি। পেয়েছে ৪,০০০-এর উপরে লাইক। সেই সঙ্গে অজস্র কমেন্ট। কমেন্ট জুড়ে মুগ্ধতা।

Viral: মায়ের সঙ্গে খেলছে পান্ডা শাবক, দেখুন মন ভাল করা ভিডিও

খেলায় মত্ত লাল পান্ডারা।

মায়ের সঙ্গে সন্তানের সম্পর্কের মধুরতা চিরকালীন। এবং তা কেবল মানুষ নয়, সমস্ত প্রাণীকুলের ভিতরেই বহমান। আরও একবার তা মনে করিয়ে দিল এক ভিডিও। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওয় এক পান্ডা শাবককে তার মায়ের সঙ্গে খেলা করতে দেখা গিয়েছে। জার্মানির বার্লিন চিড়িয়াখানা ভিডিওটি শেয়ার করেছে। ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে, পিট নামের ছোট্ট পান্ডা শাবকটি তার মা মেং মেং-এর সঙ্গে খেলা করছে। পাশেই তার যমজ ভাই একটি গাছে উঠে মহানন্দে ঘুম লাগিয়েছে। বুধবার ফেসবুকে ভিডিওটি মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই তা শোরগোল ফেলেছে নেট দুনিয়ায়। গত বছরের আগস্টে পিট ও পল নামের ওই দুই পান্ডা শাবক জন্মগ্রহণ করে বার্লিন চিড়িয়াখানায়। তারা দু'জন ও তাদের মা মেং মেং হয়ে উঠেছে এই চিড়িয়াখানার অন্যতম আকর্ষণ। প্রসঙ্গত, বর্তমানে জার্মানিতে তারাই একমাত্র জায়ান্ট পান্ডা।

ভিডিওটি পোস্ট করার সময় চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, পিট কখনও তার মায়ের কোলছাড়া হয় না। এমনকী, মা'কে স্নান করতেও দিতে চায় না সে। ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে, পান্ডা শাবকটি তার মায়ের গায়ে জল ছিটিয়ে দিচ্ছে খাঁচার মধ্যে রাখা এক স্নানাধার থেকে। তা উল্টে দিচ্ছে। আর গড়াগড়ি খাচ্ছে ঘাসের উপরে। তারপর মায়ের সঙ্গে গাছেও চড়ছে।

দেখে নিন ভিডিওটি:

বুধবার ভিডিওটি পোস্ট হওয়ার পর থেকে এখনও পর্যন্ত ২৮,০০০ বার দেখা হয়েছে ভিডিওটি। পেয়েছে ৪,০০০-এর উপরে লাইক। সেই সঙ্গে অজস্র কমেন্ট। কমেন্ট জুড়ে মুগ্ধতা। একজন লিখেছেন, ‘‘কী দারুণ ভিডিও! খুব ভাল লাগল দেখতে।'' আর একজন লেখেন, ‘‘মা ও সন্তানকে খেলা করতে দেখাটা খুব ভাল ব্যাপার।''
কয়েক দিন আগে পলের ভাই পিটকে কয়েকদিন আগেই দেখা গিয়েছিল তাদের ছোট্ট স্নানাধারে জল ছিটাতে। সেই ভিডিও-ও নেটিজেনদের খুব পছন্দ হয়েছিল। 

বার্লিন চিড়িয়াখাড়া সূত্রে জানা যাচ্ছে, দুই ভাইয়েরই ওজন ১৯ কেজি। তারা এরই মধ্যে বড় হয়ে গিয়েছে। তাজা বাঁশ চিবিয়ে খেতে শুরু করেছে। আরও দু'বছর তাদের এখানেই রাখা হবে। তারপর পাঠিয়ে দেওয়া হবে চিনে। 
আপনার কেমন লাগল ভিডিওটি দেখে? আমাদের জানান কমেন্ট বিভাগে।

Click for more trending news