বাসন মাজতে গিয়ে সাক্ষাৎ মৃত্যুর মুখোমুখি! ছবি দেখে শিউরে উঠছে নেট দুনিয়া

ছবিতে দেখা যাচ্ছে কেমন করে সিঙ্কের ছিদ্রের আড়াল থেকে উঁকি দিচ্ছে মূর্তিমান মৃত্যু। নেটিজেনরা শিউরে উঠেছেন সাপটিকে দেখে।

বাসন মাজতে গিয়ে সাক্ষাৎ মৃত্যুর মুখোমুখি! ছবি দেখে শিউরে উঠছে নেট দুনিয়া

‘ইস্টার্ন ব্রাউন’ সাপটি বিশ্বের সবথেকে বেশি বিষধর সাপের তালিকায় দ্বিতীয়।

একথা সকলেই জানেন বাসন মাজার মধ্যে কোনও রোমাঞ্চ নেই। অস্ট্রে‌লিয়ার (Australia) এক বাসিন্দাও সেরকমই জানতেন। কিন্তু আচমকাই তাঁর মত বদলে গেল। তিনি দেখতে পেলেন সিঙ্কের যে জলনিকাশি ছিদ্র, তার আড়াল থেকে উঁকি দিচ্ছে ভয়ঙ্কর সাপ (Deadly Snake)! কুইন্সল্যান্ডের বাসিন্দা মাইকেল হিলার্ড ‘৯ নিউজ'-কে জানিয়েছেন, তাঁর হাত ওই ভয়ানক সাপের নাগাল থেকে মাত্র কয়েক ইঞ্চি দূরে ছিল। তিনি বলছেন, ‘‘ব্যাপারটা ছিল রীতিমতো চমকপ্রদ। আমার হাতটা ওখানে পৌঁছে যেতেই আঁতকে উঠে দেখি, আরে ওটা কী!''
এরপর নিজেকে সামলে তিনি বুঝতে পারেন ওটা একটা ‘ইস্টার্ন ব্রাউন' সাপ। তিনি সঙ্গে সঙ্গে ফোন করেন এক সাপ সংগ্রাহককে। এবং তিনি নিশ্চিত করে বলেন, হ্যা, ওই সাপটি ‘ইস্টার্ন ব্রাউন'-ই।

মাইকেল জানাচ্ছেন, ‘‘আমি শিউরে উঠেছিলাম, কেননা সাপটা সত্যিই ভয়ানক ছিল। ঈশ্বরকে ধন্যবাদ ওটা আমাকে কামড়ায়নি।''

‘ইস্টার্ন ব্রাউন' সাপটি বিশ্বের সবথেকে বেশি বিষধর সাপের তালিকায় দ্বিতীয়। ছোট ছোট স্তন্যপায়ী প্রাণীদের এরা বিষের ছোবলে মেরে ফেলার পাশাপাশি চেপে ধরেও খতম করে দিতে পারে। অস্ট্রেলিয়ায় এই সাপের কামড়েই সবথেকে বেশি মানুষের মৃত্যু ঘটে।

‘ব্রিসবেন নর্থ স্নেক ক্যাচার্স'-এর পক্ষ থেকে মঙ্গলবার ফেসবুকে ওই সাপটির দু'টি ছবি শেয়ার করে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে কেমন করে সিঙ্কের ছিদ্রের আড়াল থেকে উঁকি দিচ্ছে মূর্তিমান মৃত্যু। নেটিজেনরা শিউরে উঠেছেন সাপটিকে দেখে।
  

অনেকেই অদ্ভুত সব মন্তব্য করেছেন ছবিগুলি দেখে। একজন লেখেন, ‘‘আমি মরে গেলেও আর আমার বাসন ধুতে যাচ্ছি না সিঙ্কের পাশে।''

আর একজন লেখেন, ‘‘আমি সিঙ্কের সমস্ত ফুটো আজই বন্ধ করে দেব। '' 

Click for more trending news