এখনও উদ্ধার করা যায়নি ৩২০ ফুট গভীর গর্তে আটকা পড়া শ্রমিকদের, মেঘালয়ে যাচ্ছে বায়ুসেনা

প্রায় তিন সপ্তাহ হয়ে গেল, মেঘালয়ের পূর্ব জয়ন্তিয়া পাহাড়ের ভিতর এখনও আটকা পড়ে আছেন ১৫ জন কয়লা খাদান শ্রমিক। কিন্তু এতদিনেও উচ্চ ক্ষমতাশীল পাম্পটিকে আনা গেল না৷

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

উচ্চ-ক্ষমতাশালী পাম্প আসার পর গর্তে নামবেন উদ্ধারকারীরা।


সান (পূর্ব জয়ন্তিয়া পাহাড়): 

প্রায় তিন সপ্তাহ হয়ে গেল, মেঘালয়ের পূর্ব জয়ন্তিয়া পাহাড়ের ভিতর এখনও আটকা পড়ে আছেন ১৫ জন কয়লা খাদান শ্রমিক। কিন্তু এতদিনেও উচ্চ ক্ষমতাশীল পাম্পটিকে আনা গেল না৷ সোমবার দিনই উদ্ধারকার্য স্থগিত হয়ে যায়। যে গর্তে আটকা পড়ে আছেন অতজন শ্রমিক, সেই গর্ত থেকে জল বের করার কাজ সারতে হচ্ছিল যে পাম্পটি দিয়ে, তা আর জল বের করতে পারছিল না। ৩২০ ফুট গভীর গর্ত থেকে আটকা পড়া মানুষদের উদ্ধার করার জন্য জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর প্রায় ৭০ জন কর্মী দিনরাত এক করে কাজ করে চলেছেন। এছাড়া, ঘটনাস্থলে রয়েছেল কোল ইন্ডিয়ার বিশেষজ্ঞ দলও। গত ১৩ ডিসেম্বর ওই খাদানটি বিপর্যয়ের সম্মুখীন হওয়ার প্রায় একদিন বাদে শুরু হয়েছিল উদ্ধারকাজ।

রথযাত্রা নয়, বিজেপির লক্ষ্য 'দাঙ্গাযাত্রা' করা, বললেন মমতা

বায়ুসেনা ১০'টি উচ্চ ক্ষমতাশালী পাম্প পাঠিয়েছিল উদ্ধারকার্যে সাহায্যের জন্য। ভুবনেশ্বর থেকে গুয়াহাটি পর্যন্ত যাওয়ার পর তা সড়কপথে পৌঁছায় পূর্ব জয়ন্তিয়া পাহাড়ে। সূত্র জানিয়েছে, আরও বহু গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশ বিমানবন্দর থেকে সড়কপথে ২২০ কিলোমিটার পেরিয়ে আজ এসে পৌঁছাবে ঘটনাস্থলে।

আগুন লাগার ঘটনায় মেট্রো কর্তৃপক্ষকে দায়ী করল রাজ্য সরকার

বায়ুসেনার ১৫ জন অফিসারের একটি দলও আসছে বিশাখাপতনম থেকে। আগামী ১২ ঘন্টার মধ্যে তাঁদের পৌঁছে যাওয়ার কথা ঘটনাস্থলে।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................