"সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরতে চাই", বললেন মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায়

West Bengal: সামনেই পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচন, তার আগে তথাগত রায়ের বাংলার সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরে আসার ইচ্ছা বেশ ইঙ্গিতবহ বলেই মনে করা হচ্ছে

Tathagata Roy: মেঘালয়ের রাজ্যপাল পশ্চিমবঙ্গে সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন

হাইলাইটস

  • রাজ্য রাজনীতিকে ফিরতে চাইছেন তথাগত রায়
  • বর্তমানে মেঘালয়ের রাজ্যপালের দায়িত্বভার সামলাচ্ছেন তিনি
  • রাজ্যপালের কার্যকালের মেয়াদ শেষ হলেই তিনি বাংলার রাজনীতেত আসতে চান
কলকাতা:

পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal) বিধানসভা নির্বাচনের আর মাত্র কয়েক মাস বাকি, ঠিক এই সময়েই ফের একবার বাংলায় সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করলেন মেঘালয়ের রাজ্যপাল (Meghalaya Governor) তথা বিজেপির প্রাক্তন নেতা তথাগত রায়। তাঁর (Tathagata Roy) মতে, মেঘালয়ের রাজ্যপাল পদে তাঁর নির্ধারিত মেয়াদ শেষ হওয়ার পরপরই তিনি রাজনীতিতে কোমর বেঁধে নেমে পড়তে চান। ৭৪ বছর বয়সী এই তথাগত রায়কে বরাবরই স্পষ্টভাষী হিসাবেই চেনে রাজনৈতিক মহল। এমনকী একসময় বিজেপির হয়ে রাজনীতিতে দিন রাত এক করে দেওয়া এই তথাগতই পরবর্তীতে রাজ্য বিজেপির কিছু "অযৌক্তিক" মন্তব্যের বিরুদ্ধ মত পোষণ করেছেন। এমনকী তিনি এমনও মনে করেন যে "রাজ্যের জনগণের সঙ্গে সুবিচার করা হয়নি"। সেই তথাগত রায়, সম্প্রতি জানিয়েছেন যে, বিজেপি নেতৃত্ব রাজি হলে পশ্চিমবঙ্গে ফের সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরে আসতে চান তিনি।

বাংলাদেশে আটকে পড়া মানুষদের ফিরতে দিন, রাজ্যকে অনুরোধ কেন্দ্রের

"গভর্নর হিসাবে আমার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরে, আমি সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরে আসতে চাই এবং পশ্চিমবঙ্গবাসীর সেবা করতে চাই। আমি আমার রাজ্য-রাজনীতিতে ফিরে আসার ব্যাপারে দলের সঙ্গে কথা বলে (এ সম্পর্কে) প্রস্তাবও দেবো", বলেন তথাগত রায়।

শাড়ির নকশা তৈরি করে কেনার আহ্বান, বিতর্কে বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পল

তথাগত রায় ২০০২-২০০৬ পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সভাপতি পদে ছিলেন এবং ২০০২-২০১৫ সাল পর্যন্ত বিজেপির জাতীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যও ছিলেন। ২০১৫ সালের মে মাসে তাঁকে ত্রিপুরার রাজ্যপাল হিসাবে নিয়োগ করা হয় এবং পরবর্তীতে ২০১৮ সালের অগাস্ট মাসে তিনি মেঘালয়ের রাজ্যপাল হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

মেঘালয়ের রাজ্যপাল হিসাবে তথাগত রায়ের কার্যকালের মেয়াদ মে মাসেই শেষ হয়ে যায় কিন্তু কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে এই মেয়াদ আরও কিছুদিন বাড়ানো হয়।

রাজ্য বিজেপি নেতাদের করা কিছু বিতর্কিত মন্তব্যের বিষয়ে তাঁর মতামত জানতে চাওয়া হলে, তথাগত রায় কারও নাম না করেই বলেন যে, তিনি মনে করেন কিছু বিতর্কিত বক্তব্য "দলের ক্ষেত্রে ভালো করার থেকে ক্ষতিই করেছে বেশি"।

"পশ্চিমবঙ্গে কখনওই উত্তর ভারতীয় সংস্কৃতির মতো 'গৌ হামারি মাতা হ্যায়' (গরু আমাদের মা) এইসব কথা কোনও কাজে আসবে না। আবার গরুর দুধের মধ্যেই সোনা আছে বা গরুর প্রস্রাব পানে কোভিড -১৯ রোগকে আটকানো যায় এইসব কথা মানুষের মন পেতে বঙ্গ বিজেপিকে মোটেই সাহায্য করবে না", বলেন তথাগত রায়।

যদিও রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ তথাগত রায়ের এই বক্তব্যের বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি, তবে দলীয় নেতৃত্বের একাংশ মনে করছে যে তথাগত রায়ের মন্তব্য আসলে তাঁকে লক্ষ্য করেই করা হয়েছে।

দিলীপ ঘোষ বলেন, "আমি তাঁর এই কথাগুলো নিজের কানে শুনিনি তাই এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাই না।"

পশ্চিমবঙ্গে ২০২১ সালের এপ্রিল বা মে মাস নাগাদ বিধানসভা নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। ঠিক তার আগেআগেই তথাগত রায়ের বাংলার সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরে আসার ইচ্ছা বেশ ইঙ্গিতবহ বলেই মনে করা হচ্ছে।