This Article is From Aug 31, 2018

স্পুফ ভিডিওতে চিনে নিন মধ্যপ্রদেশের বাহুবলিকে !

মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের “বাহুবলি” থিমের ভিডিওকে ঘিরে উন্মাদনা দেখা গেল ইন্টারনেটে।

স্পুফ ভিডিওতে চিনে নিন মধ্যপ্রদেশের বাহুবলিকে !

স্পুফ ভিডিওতে শিবরাম সিং চৌহান ও অন্যান্য নেতাদের বিকৃতরূপ দেখা গেছে।

ভোপাল:

মধ্যপ্রদেশে নির্বাচনের কয়েক মাস আগে বিজেপি এবং কংগ্রেসের সমর্থকদের মধ্যে অনলাইনে ভিডিও-কেন্দ্রিক যুদ্ধ শুরু হয়ে গেল। মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের “বাহুবলি” থিমের ভিডিওকে ঘিরে উন্মাদনা দেখা গেল ইন্টারনেটে। বিজেপি সমর্থকরা উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে ভিডিওর এই ভার্সনটা তৈরি করেছেন “মধ্যপ্রদেশের বাহুবলী” শিবরাজ সিং চৌহানের ক্ষমতা প্রদর্শনের জন্য। তাঁর প্রতিপক্ষে রয়েছে কংগ্রেসের জ্যোতিরাদিত্য শিন্ডিয়া, রাহুল গান্ধী এবং তাঁর মা সোনিয়া গান্ধীর মতো হেভিওয়েট সদস্যরা। 2.16 মিনিটের এই ভিডিওটি মধ্যপ্রদেশের নির্বাচনের আগে একটা প্রোমো হিসাবে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। সিনেমায় মাহিশ্মতীর রাজপুত্র বাহুবলির (প্রভাস) মতোই ভিডিওতে শিবরাজ সিং চৌহানকে ছবির বিখ্যাত ডায়লগ বলতে দেখা যাচ্ছে। ভিডিওতে তিনি বলছেন, “আমি হলাম শিবরাম সিং চৌহান। আমি মধ্যপ্রদেশের মানুষদের সব রকমভাবে রক্ষা করবো। নিজের প্রাণ দিতে হলেও আমি পিছুপা হব না।“ ভিডিওতে কংগ্রেস নেতা কমল নাথ, রাহুল গান্ধী, সোনিয়া গান্ধী, দিগবিজয় সিং-কে খালি গায়ে শিবরাজ সিংকে শিব লিঙ্গ তুলতে দেখে অবাক হতে দেখা যাচ্ছে।

ইউনিয়ন মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমারকে “কাটাপ্পার” ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে। ভিডিওর ক্লাইম্যাক্সে জ্যোতিরাদিত্য শিন্ডিয়া এবং শিবরাজ সিং চৌহানকে পরস্পরের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামতে দেখা যাচ্ছে। মিস্টার চৌহানকে বুকে বালি লাগাতে দেখা যাচ্ছে। মিস্টার শিন্ডিয়াকে বাহুবলির খলনায়ক “ভাল্লাদেব”-এর চরিত্রে দেখা যাচ্ছে। যদিও কংগ্রেসের তরফে এই ভিডিওটা মুক্তি দেওয়ার জন্য বিজেপিকে কটাক্ষ করা হয়েছে, তবুও বিজেপি নিজেদের স্পুফের থেকে দূরে রাখতেই চেয়েছে। “বিভিন্ন আইটি বিশেষজ্ঞ নিজেদের রাজনৈতিক মতাদর্শ থেকে এই ধরণের ভিডিও তৈরি করে। আমরা জানি না কোথা থেকে এই ধরণের সৃজনশীল চিন্তাভাবনা পায় মানুষ। কিন্তু ভিডিওটা দেখার পর আমরা বুঝতে পেরেছি এমন কেউ যে মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের সমর্থক সেই এই ভিডিওটা বানিয়েছে”, মধ্যপ্রদেশের বিজেপি আইটি সেলের প্রধান জানিয়েছেন।

কংগ্রেস নেত্রী শোভা ওজা জানান, “শুধুমাত্র সময় বলবে কে বাহুবলি আর কে ভাল্লাদেব। রাজ্যের ভোটাররা ঠিক করবে। কিন্তু নেতারা যে সব ভাষার ব্যবহার করেছেন সেগুলো ঠিক নয়। মানুষ বেকারত্ব, আইনের শাসন, কৃষক অসন্তোষ ইত্যাদি বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন আর বিজেপি এইসব ভিডিও প্রকাশ করছে।“

রাজ্যের নির্বাচনের আগে 230 টা নির্বাচনী কেন্দ্রের ভোটারদের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের উদ্দেশ্যে জুলাই মাসে শিবরাম সিং চৌহান উজ্জইন থেকে তাঁর “জন আশীর্বাদ যাত্রা” শুরু করেন।