This Article is From Feb 28, 2020

দিল্লির নতুন পুলিশ কমিশনার হলেন এসএন শ্রীবাস্তব

দিল্লির হিংসার ঘটনায় সমালোচিত অমূল্য পট্টনায়েককে সরিয়ে দিল্লির নতুন পুলিশ কমিশনার হলেন এসএন শ্রীবাস্তব।

দিল্লির নতুন পুলিশ কমিশনার হলেন এসএন শ্রীবাস্তব

অমূল্য পট্টনায়েককে সরিয়ে দিল্লির নতুন পুলিশ কমিশনার এসএন শ্রীবাস্তব।

নয়াদিল্লি:

দিল্লির হিংসার ঘটনায় সমালোচিত অমূল্য পট্টনায়েককে সরিয়ে দিল্লির নতুন পুলিশ কমিশনার হলেন এসএন শ্রীবাস্তব। তাঁকে এর আগে দিল্লির হিংসা প্রতিরোধে বিশেষ কমিশনার হিসেবে নিযুক্ত করেছিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। এবার তাঁকে পুলিশ কমিশনার হিসেবে নিয়োগ করা হল। অমূল্য পট্ট‌নায়েক অবসর নিচ্ছেন শনিবার। এসএন শ্রীবাস্তব ১৯৮৫ ব্যাচের একজন আধিকারিক। অমূল্য পট্টনায়েকের মেয়াদ এক মাসের জন্য বাড়ানো হয়েছিল। তা শেষ হচ্ছে শনিবার। উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে শান্তি ফেরাতে পদক্ষেপ করছে কেন্দ্রীয় সরকার। এখনও পর্যন্ত ৩৯ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল NDTV-কে বলেন, ‘‘হিংসার সময় দিল্লি পুলিশের প্রতি মানুষের বিশ্বাস ছিল না। এমনকী, দিল্লির পুলিশ কমিশনারের ভাবমূর্তিও খুব ভাল ছিল না, যে কোনও কারণেই হোক। কিন্তু শিগগিরি দিল্লি পেতে চলেছে নতুন পুলিশ কমিশনার।''

সিআরপিএফ এসএন শ্রীবাস্তবকে নতুন পদে যোগ দেওয়ার জন্য অব্যাহতি দিয়েছে।

রবিবার থেকে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে কেন্দ্র করে দিল্লিতে শুরু হওয়া হিংসাকে থামাতে দিল্লি পুলিশের সক্রিয়তার অভাবের অভিযোগ তুলেছেন দিল্লির বাসিন্দারা এবং রাজনৈতিক নেতারা। এই পরিস্থিতিতে সরিয়ে দেওয়া হল পট্টনায়েককে।

সিএএ-র সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে সংঘর্ষে যখন ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে উত্তর-পূর্ব দিল্লি, সেই পরিস্থিতিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় বহু মানুষ অভিযোগ জান‌িয়েছে কোথাওই পর্যাপ্ত পুলিশ ছিল না। এমনকী একদিন পরেও উত্তর-পূর্ব দিল্লির বহু মানুষ অভিযোগ করেন, হয় পুলিশের উপস্থিতি সামান্য অথবা কোথাও একেবারেই অল্প পরিমাণে পুলিশ সবে মোতায়েন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার পুলিশের কাছে ৭,৫০০ ফোন আসে পুলিশের কন্ট্রোল রুমে। এর আগে সোমবারও এসেছিল ৩,৫০০ কল। NDTV-কে জানিয়েছেন এক পুলিশ আধিকারিক। তার আগে রবিবারও আসে অন্তত ৭০০ ফোন। বুধবার ১,৫০০ ফোন আসার কথা জানিয়েছেন ওই আধিকারিক।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বৈঠক করেছেন দিল্লি পুলিশের সিনিয়র আধিকারিকদের সঙ্গে। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে কেন্দ্র করে দিল্লিতে ছড়িয়ে হিংসায় অন্তত ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় শুক্রবার ভোর চারটে থেকে সকাল ১০টা এবং বিকেল চারটে থেকে সন্ধ্যা আটটা পর্যন্ত বড় জমায়েতের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হচ্ছে।