Kolkata Traffic Update: শুক্রবার দুপুরে Durga Puja Carnival-এর জন্য কোন কোন রাস্তা বন্ধ থাকবে জানুন

Durga Puja Carnival: রেড রোডে ‘দুর্গাপুজো কার্নিভাল’। সে কারণেই দুপুর দুটো থেকে রেড রোড সংযোগকারী রাস্তাগুলি বন্ধ রাখা হবে।

Durga Puja Carnival: দুপুর দুটো থেকে রেড রোড সংযোগকারী রাস্তাগুলি বন্ধ রাখা হবে বলে জানিয়েছে ট্রাফিক ডিপার্টমেন্ট।

শুক্রবার রেড রোডে ৭৫টি পুজো কমিটির দুর্গাপ্রতিমার শোভাযাত্রা ‘দুর্গাপুজো কার্নিভাল' (Durga Puja Carnival)। সে কারণেই দুপুর দুটো থেকে রেড রোড (Red Road) সংযোগকারী রাস্তাগুলি বন্ধ রাখা হবে বলে জানিয়েছে ট্রাফিক (Traffic) ডিপার্টমেন্ট। দুপুর দুটোর পর থেকে রেড রোড সংযোগকারী রাস্তা যেমন লাভার্স রোড, কুইনসওয়ে, এসপ্লানেড র‌্যাম্প এবং পলাশী গেট রোডে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণে রাখা হবে। দুপুর ২টো থেকে এই রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ থাকবে। রেড রোড বন্ধ রয়েছে দুপুর ১২টা থেকেই। এজেসি বোস রোড, নিউ রোড, ডাফরিন রোডে ১২টা থেকে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। ওই রাস্তাগুলিতে ৩টে পর্যন্ত যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে। এছাড়া দুপুর ২টো থেকে হেয়ার স্ট্রিট, চৌরঙ্গি রোড, ক্যাথিড্রাল রোড, মেয়ো রোড, স্ট্র্যান্ড রোড, জওহরলাল নেহরু রোড, বেন্টিঙ্ক স্ট্রিট, কুইনসওয়ে, আর এন মুখার্জি রোড, ওল্ড কোর্ট হাউস স্ট্রিটের দু'পাশে গাড়ি পার্কিং বন্ধ রাখা হবে।

শহর ও শহরের আশপাশের যে সমস্ত পুজো এবার রাজ্য সরকারের ‘বিশ্ববাংলা শারদ সম্মান ২০১৯' পেয়েছে তারাই যোগ দেবে ‘দুর্গাপুজো কার্নিভাল'-এ। রাজ্য সরকার আয়োজিত ওই কার্নিভালে প্রতিটি পুজো কমিটির একটি করে ট্যাবলো থাকবে। সেগুলি একের পর এক রেড রোডে আসবে। প্রতিটি ট্যাবলোতেই সেই পুজোর যে থিম তাও প্রদর্শিত হবে। সঙ্গে থাকবেন কমিটির সদস্যরা। এছাড়া নর্তক, সুরকাররাও থাকবেন।

৭৫টি প্রতিমা নিয়ে শুক্রবার রেড রোডে হবে ‘দুর্গাপুজো কার্নিভাল', থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর মন্ত্রিসভার সদস্যরা ছাড়াও এখানে উপস্থিত থাকবেন বিভিন্ন দেশ থেকে আগত বহু বিদেশি অতিথিও। কলকাতা পৌরসভার মেয়র-ইন-কাউন্সিল-এর সদস্য দেবাশিস কুমার তিনি প্রতিমার নিরঞ্জনের দায়িত্বে থাকবেন বলে জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত দেবাশিস কুমার নিজেও ‘বিশ্ববাংলা শারদ সম্মান ২০১৯'-এর অন্যতম প্রাপক ত্রিধারা সম্মিলনীর প্রধান পৃষ্ঠপোষক।

ধারে ভারে ছোটো হলেও সচেতনতা ও সাহসিকতার বার্তা দুই দুর্গাপুজোয়

প্রতিটি কমিটিকে ২ মিনিট করে দেওয়া হবে পারফরম্যান্সের জন্য। সমস্ত অতিথি অভ্যাগতরা দু'টি পোডিয়ামে বসবেন। সে দু'টি পোডিয়াম বাঁকুড়ার টেরাকোটা দিয়ে সজ্জিত করা হয়েছে। শো চলবে দু'ঘণ্টা। দর্শকাসনে থাকবেন প্রায় ২০,০০০ লোক।

More News