This Article is From Apr 21, 2019

অমৃতসরে নির্বাচনী প্রার্থী হিসেবে কি বিজেপির পছন্দ সানি দেওলের ‘ঢাই কিলোর হাত’?

সূত্রের খবর, পাঞ্জাবের অমৃতসর (Amritsar) লোকসভা আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য অমিত শাহ অভিনেতা সানি দেওলের সঙ্গে দেখা করেন।

Elections 2019: বিজেপির প্রধান অমিত শাহ পুনেতে দেখা করেন সানি দেওলের সঙ্গে

হাইলাইটস

  • পাঞ্জাবের ৩ টি আসনে এখনও প্রার্থী দেয়নি বিজাপি
  • আকালি দলের সঙ্গে পাঞ্জাবে জোট করেছে বিজেপি
  • সানি দেওলের সঙ্গে দেখা করেন অমিত শাহ
চণ্ডীগড়:

দেশে লোকসভা নির্বাচনের তৃতীয় দফার নির্বাচনও চলে এল। এখন পাঞ্জাবের তিনটি আসনে নিজেদের প্রার্থী ঘোষণা করতে পারেনি দেসের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। শুক্রবারে বিজেপির প্রধান অমিত শাহ (BJP chief Amit Shah) পুনেতে অভিনেতা সানি দেওলের (actor Sunny Deol) সঙ্গে দেখা করেন। সূত্রের খবর জাতীয় নির্বাচনে পাঞ্জাবের যে তিনটি আসনে এখনও তাঁরা প্রার্থী ঘোষণা করতে পারেননি সেই বিষয়েই তাঁদের এই বৈঠক হয়। সূত্রের খবর, পাঞ্জাবের অমৃতসর (Amritsar) লোকসভা আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য অমিত শাহ অভিনেতা সানি দেওলের সঙ্গে দেখা করেন। যদিও দলের তরফে এখনও কোনও ঘোষণা করা হয়নি।

 'পরিবর্তনের হাওয়া বইছে'! কানহাইয়া কুমারের প্রচারে বলিউডের এই অভিনেতা

সানি দেওল এনডিটিভিকে বলেন, “আমি এটা সম্পর্কে শুনেছি (রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার বিষয়ে গুজব প্রসঙ্গে)। আমি শুধু অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করি এবং আমরা একটি ছবি তুলি, এইটুকুই মাত্র!” বিজেপি পাঞ্জাবের শিরোমানি আকালি দলের (Shiromani Akali Dal) সঙ্গে জোট গঠন করেছে। জোটের চুক্তি অনুযায়ী তাঁরা পাঞ্জাবের ১৩ টি লোকসভা আসনের মধ্যে তিনটিতে নিজেদের প্রার্থী দিতে চলেছে: অমৃতসর, গুরুদাসপুর ও হোশিয়ারপুর।

৬২ বছর বয়সী সানি দেওল ‘গদর: এক প্রেম কথা', ‘হিম্মত', ‘ঘাতক' এবং ‘বর্ডার'-এর মতো চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন।

অমৃতসর আসনের জন্য বিজেপি দল অভিনেতা পুনম ধিলন ও রাজিন্দর মোহন সিং চিনার নাম নিয়েও চিন্তাভাবনা করেছিল। গত বছর বিজেপির মুম্বাই ইউনিটের ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে নিযুক্ত হন পুনম ধিলন।

গুরুদাসপুর আসনের জন্য বিজেপির পছন্দ অভিনেতা এবং প্রাক্তন সংসদ সদস্য বিনোদ খান্নার স্ত্রী কবিতা খান্না বা তাঁর পুত্র অভিনেতা অক্ষয় খান্না।

 স্বাধীন ভারতের প্রথম সন্ত্রাসবাদী কে? পরিচালক বিশাল ভরদ্বাজের নিশানায় কে?

দশ বছর আগে রাজনীতিতে নিজের ভূমিকা শুরু করেছিলেন সানি দেওলের বাবা, প্রবীণ অভিনেতা ধর্মেন্দ্র। তিনি ২০০৪ সালের জাতীয় নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে রাজস্থানের বিকানের থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন এবং জিতেওছিলেন। গত সপ্তাহেই, উত্তরপ্রদেশের মথুরায় প্রবীণ অভিনেতা ধর্মেন্দ্র তাঁর স্ত্রী, অভিনেত্রী ও বিজেপির সংসদ সদস্য হেমা মালিনীর হয়ে প্রচারাভিযানে পা মেলান।

কিংবদন্তী বলিউড দম্পতি জাট সম্প্রদায়ের জন্য একটি সমাবেশে বক্তৃতা করেন যেখানে একটি বিশাল ভিড় পরিণত হয়। পাঞ্জাবে ভোটগ্রহণ হবে একটি দফাতেই। লোকসভা নির্বাচনের শেষ দিন ১৯ মে ভোট হবে পাঞ্জাবে।